BREAKING NEWS

০৯  আষাঢ়  ১৪২৯  শনিবার ২৫ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ভোডাফোনের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ, ক্রেতা সুরক্ষা আদালতের দ্বারস্থ অনিল বসু

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 22, 2018 9:33 pm|    Updated: May 22, 2018 9:33 pm

Ex MP Anil basu files case in consumer court against vodafon

দিব্যেন্দু মজুমদার, হুগলি: তিনি ও তাঁর স্ত্রী দু’জনেই ভোডাফোন ইন্ডিয়ার গ্রাহক। কিন্তু ভ্যাটের অজুহাতে মোবাইল পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থাটি ওই দম্পতির সঙ্গে প্রতারণা করছে বলে অভিযোগ। বিল মেটানোর সত্ত্বেও ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা কেটে নেওয়া হচ্ছে। ভোডাফোনের বিরুদ্ধে হুগলির চুঁচুড়ায় ক্রেতা সুরক্ষা আদালতে মামলা করলেন আরামবাগের প্রাক্তন সিপিএম সাংসদ অনিল বসু। ১০ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ চান তিনি।

[অসুস্থ আরাবুল ইসলাম, জামিনের আবেদন শুনলেনই না বারুইপুর আদালতের বিচারক]

বাম জমানায় আরামবাগের দীর্ঘদিনের সাংসদ ছিলেন। এতটাই প্রভাবশালী ছিলেন, যে লোকে বলত, তাঁর কথায় নাকি বাঘে-গরুতেও একঘাটে জল খায়। ২০০৯ সালে লোকসভা ভোটেও আরামবাগ কেন্দ্রে সিপিএম প্রার্থী ছিলেন অনিল বসু। কিন্তু, জিততে পারেননি। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সম্পর্কে অশালীন মন্তব্য করে দল থেকেও বহিষ্কৃত। রাজ্য রাজনীতিতে অনিল বসু এখন অতীত। মঙ্গলবার হুগলির চুঁচুড়ায় ক্রেতা সুরক্ষা আদালতে ভোডাফোন বিরুদ্ধে প্রতারণা অভিযোগ মামলা করলেন তিনি। মোবাইল পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থার থেকে ১০ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়েছেন প্রাক্তন সাংসদ।

[স্কুলের সবজি বাগান তছনছের অভিযোগ জয়ী নির্দল প্রার্থীর বিরদ্ধে, সরগরম মালবাজার]

জানা গিয়েছে, অনিল বসু ও তাঁর স্ত্রী সবিতা ভোডাফোনের পোস্টপেড গ্রাহক। মাসে মাসে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে বিল বাবদ টাকা কেটে নেয় সংস্থাটি। আরামবাগের প্রাক্তন সাংসদের অভিযোগ, গত দু-তিন মাস ধরে ভ্যাটের কারণ দেখিয়ে অতিরিক্ত টাকা কাটছে ভোডাফোন। এমনকী, বিল মেটানোর পরেও অনিল বসুর স্ত্রী কাছ থেকে ফের টাকা নেওয়া হয়েছে। সেই টাকা আর ফেরত পাননি তিনি। শুধু তাঁর স্ত্রীই নন, ভ্যাটের আজুহাতে রাজ্যের কয়েকশো গ্রাহকের বিশেষ করে মহিলা গ্রাহকদের কাছ কোটি কোটি টাকা লুট করেছে ভোডাফোন ইন্ডিয়া। অনিল বসুর দাবি, প্রতারণার হাত থেকে বাঁচতে ভোডাফোনেরই একটি প্রিপেড সিম নিয়েছিলেন তিনি ও তাঁর স্ত্রী। সিম প্রতি ৫৮০ টাকা নিলেও, কোনও রসিদ দেওয়া হয়নি। প্রাক্তন সাংসদের মোবাইলে আবার সিমটি চালুও হয়নি। ফলে এপ্রিল মাসে থেকে ব্যাংক ও স্টক এক্সচেঞ্চের সঙ্গে অনিল বসুর যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছে বলে অভিযোগ। প্রভূত আর্থিক ক্ষতির মুখে একদা সিপিএমের এই দাপুটে নেতা। এই সবকিছুর জন্য ভোডাফোন ইন্ডিয়াকে দায়ী করে ক্রেতা সুরক্ষা আদালতের দ্বারস্থ অনিল বসু।

[মদ্যপ অবস্থায় কুকুরকে পিটিয়ে খুন, থানায় অভিযোগ দায়ের পশুপ্রেমীর]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে