Advertisement
Advertisement
বিজেপি

মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশের পরেই সক্রিয় পুলিশ! বালুরঘাটে বাতিল বিজেপির বিজয় মিছিল

বিজয় মিছিল করবই, বলেছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

Excitment arise in Balurghat after police stop BJP celebration rally
Published by: Soumya Mukherjee
  • Posted:June 7, 2019 9:26 pm
  • Updated:June 7, 2019 9:26 pm

রাজা দাস, বালুরঘাট: বিজেপির বিজয় মিছিল বাতিল করার জেরে উত্তেজনা ছড়াল বালুরঘাটের অমৃতখণ্ড গ্রাম পঞ্চায়েতের কামারপাড়ায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য ওই এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করেছে পুলিশ। বিষয়টিকে কেন্দ্র করে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে স্থানীয় বিজেপি কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে।

[আরও পড়ুন- অন্যত্র বিয়ে পাকা, রেজিস্ট্রির আগে প্রেমিকাকে বিষ খাইয়ে খুন যুবকের!]

বালুরঘাট লোকসভা আসনে জেতার পরেই বিভিন্ন এলাকায় বিজয় মিছিল বের করে বিজেপি। শুক্রবারও অমৃতখণ্ড গ্রাম পঞ্চায়েতের কামারপাড়া এলাকায় একটি মিছিল হওয়ার কথা ছিল। পুলিশ ও স্থানীয় প্রশাসনের কাছে অনুমতিও নিয়ে রেখেছিলেন বিজেপির স্থানীয় নেতারা। শুক্রবার বেলা ১০টা নাগাদ কামারপাড়ার দলীয় কার্যালয়ে ভিড় জমান দলের কর্মী-সমর্থকরা। বাদ্যযন্ত্রের পাশাপাশি গেরুয়া আবিরও নিয়ে আসা হয়। কিন্তু, মিছিল শুরুর আগেই ঘটনাস্থলে পৌঁছে যান ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট বৃত্ত লেপচা ও ডিএসপি (হেড কোয়ার্টার) ধীমান মিত্র। তাঁদের সঙ্গে ছিলেন বালুরঘাট থানার আইসি জয়ন্ত দত্ত-সহ প্রচুর পুলিশকর্মীও। পুলিশের পক্ষ থেকে বিজেপি কর্মীদের জানিয়ে দেওয়া হয়, বিজয় মিছিল করা যাবে না। এলাকায় জারি করা হয় ১৪৪ ধারা। কিন্তু, অনুমতি থাকা সত্ত্বেও কেন বিজয় মিছিল করা যাবে না? পুলিশের কাছে তা জানতে চান বিজেপির নেতা-কর্মীরা। বিষয়টিকে কেন্দ্র করে উভয়পক্ষের মধ্যে তুমুল বচসাও শুরু হয়। পরে আরও পুলিশকর্মী নিয়ে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। কামারপাড়ার বিজেপি নেতা বাপ্পা শীল জানান,  এভাবে তবে মিছিল বা মিটিং আটকে দিয়ে বিজেপিকে রোখা যাবে না। প্রয়োজনে বড় আন্দোলনেও নামবেন দলের কর্মী-সমর্থকরা।

Advertisement

[আরও পড়ুন- শ্রমিক সংগঠনের ক্ষমতা দখলের লড়াই, উত্তপ্ত দুর্গাপুর ইস্পাত কারখানা]

বৃহস্পতিবার নিমতায় খুন হওয়া তৃণমূল কর্মী নির্মল কুণ্ডু-র বাড়ি গিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে গিয়ে তিনি অভিযোগ করেন, বিজয় মিছিল করার নামে বিভিন্ন জায়গায় অত্যাচার চালাচ্ছে বিজেপি। পার্টি অফিস দখল করছে, শান্তি-শৃঙ্খলা বিঘ্নিত হচ্ছে। তাই রাজ্যে আর কোনও বিজয় মিছিল করা যাবে না। মুখ্যমন্ত্রীর এই মন্তব্যের পরেও তাঁরা বিজয় মিছিল করবেন বলেই জানান বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।  

Advertisement

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ