২ আশ্বিন  ১৪২৬  শুক্রবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

২ আশ্বিন  ১৪২৬  শুক্রবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্বরূপ গড়াই হত্যা মামলায় এবার সিবিআই তদন্তের দাবিতে সরব মৃতের পরিবার৷ নানুরের মৃত বিজেপি কর্মীর স্ত্রীর দাবি, স্বামীর খুনিদের খোঁজ পেতে সিবিআই তদন্তের উপরই ভরসা করছেন তিনি৷ যথাযথ তদন্ত করে স্বামীর খুনিদের ফাঁসি দিতে হবে৷ পাশাপাশি, তাঁর একটি চাকরি ও বাচ্চাদের পড়াশোনার ব্যবস্থা করার জন্যও বিজেপি নেতৃত্বের কাছে আরজি জানিয়েছেন তিনি৷

[ আরও পড়ুন: ঈশ্বর ভর করে! বিজ্ঞান মঞ্চের হাতে পড়ে জারিজুরি ফাঁস প্রতারকদের ]

সূত্রের খবর, বুধবার পূর্ব বর্ধমানের কাটোয়া মহাশ্মশানে হবে স্বরূপ গড়াইয়ের শেষকৃত্য৷ তার আগে নানুরে পৌঁছবেন বিজেপি নেতৃত্ব৷ গ্রামে একটি পদযাত্রা করে, তারপর তাঁর মৃতদেহ নিয়ে যাওয়া হবে কাটোয়ায়৷ ছেলের খুনিদের শাস্তির দাবিতে সরব হয়েছেন মৃত স্বরূপ গড়াইয়ের মা৷ সিবিআই তদন্ত এবং পরিবারের একজনের সরকারি চাকরির আরজি জানিয়েছেন তিনি৷ অন্যদিকে, স্বরূপ গড়াই খুনের ঘটনায় ইতিমধ্যেই দু’জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ধৃতরা সকলেই তৃণমূলকর্মী বলে পরিচিত। কিন্তু ঘটনায় মূল অভিযুক্ত বীরভূম জেলা পরিষদের পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ করিম খানকে এখনও গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ৷ তাদের দাবি, মূল অভিযুক্ত পলাতক৷ কিন্তু বিজেপি নেতৃত্বের অভিযোগ, জেলায় প্রকাশ্যে ঘুরছে করিম খান৷ তাঁর গ্রেপ্তারির দাবিতে ইতিমধ্যে জেলাজুড়ে বিক্ষোভে করেছে বিজেপি কর্মীরা। সিউড়িতে এসপি অফিসের সামনে এবং নানুর থানাতেও লাগাতার বিক্ষোভ চলে।

[ আরও পড়ুন: দেহব্যবসার ফাঁদে পড়ে প্রতারণার শিকার শিলিগুড়ির যুবক, তদন্তে পুলিশ ]

উল্লেখ্য, বীরভূমের নানুরের বিজেপি কর্মী স্বরূপ গড়াইয়ের হত্যাকাণ্ডকে ঘিরে গত আড়াই দিন ধরে উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে রাজ্য রাজনীতি৷ জেলা থেকে যার আঁচ পৌঁছে গিয়েছে কলকাতাতেও৷ শুক্রবার রাতে বীরভূমের নানুরের রামকৃষ্ণপুর গ্রামে একটি চায়ের দোকানে বসেছিলেন স্বরূপ গড়াই নামে ওই বিজেপি কর্মী। আরও বেশ কয়েকজন ছিলেন তাঁর সঙ্গে। অভিযোগ, সেই সময় আচমকাই চায়ের দোকানে বোমাবাজি করা হয়। এরপরই স্বরূপকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় দুষ্কৃতীরা। গুলি লাগে ওই বিজেপি কর্মীর বুকে। অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁকে পার্ক সার্কাসের কাছে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভরতি করা হয়। সেখানেই রবিবার রাতে তাঁর মৃত্যু হয়। এনআরএসের মর্গে সোমবার তাঁর দেহ ময়নাতদন্তে নিয়ে যাওয়া হয়। নিহতের স্ত্রী চায়নার দাবি বিজেপির রাজ্য দপ্তরে নিয়ে যাওয়া হবে দেহ। তাতেই আপত্তি জানায় পুলিশ। এনআরএসে এই নিয়ে অশান্তির পরিবেশ তৈরি হয়। এরপর সোমবার গভীর রাতে ২২টি গাড়ির কনভয় করে স্বরূপ গড়াইয়ের দেহ নিয়ে যাওয়া হয় নানুরে। নোটিস দিয়ে স্বরূপের পরিবারকে জানিয়ে দেওয়া হয় সিয়ান হাসপাতালের মর্গে রাখা রয়েছে দেহ। তবে মঙ্গলবার সকালে দেহ ফেরত নিতে এনআরএস হাসপাতালে চলে আসেন নিহতের স্ত্রী। সঙ্গে ছিলেন বিজেপি নেতা অনুপম হাজরা। তাঁরা অভিযোগ করেন, পুলিশ স্বরূপ গড়াইয়ের দেহ চুরি করেছে। মৃতের পরিবারকে অন্ধকারে রেখে দেহ লোপাট করেছে পুলিশ৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং