BREAKING NEWS

০৮ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  সোমবার ২৩ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বাবার যৌন লালসার শিকার দুই নাবালিকা সন্তান, শ্রীঘরে অভিযুক্ত

Published by: Paramita Paul |    Posted: May 18, 2020 5:58 pm|    Updated: May 18, 2020 6:46 pm

Father accused to rape two minor daughters in Diamond harbour

ছবি: প্রতীকী।

সুরজিৎ দেব, ডায়মন্ডহারবার: বাবার বিরুদ্ধে দুই নাবালিকা মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল। অভিযোগ, দিনের পর দিন মেয়েদের ভয় দেখিয়ে ও পানীয়ের সঙ্গে মাদক মিশিয়ে খাইয়ে এই কুকীর্তি চালিয়ে যাচ্ছিল বাবা। নির্যাতিতা দুই নাবালিকার মায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে বাবাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।ডায়মন্ডহারবার এলাকার এই ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, ডায়মন্ডহারবার পুলিশ জেলার রবীন্দ্রনগর থানার ৪ নম্বর ধানক্ষেত এলাকার এক যুবকের সঙ্গে কুড়ি বছর আগে বিয়ে হয়েছিল বাটানগর উলুডাঙার বাসিন্দা এক যুবতীর। তাঁদের চারটি কন্যাসন্তান। বনিবনা না হওয়ায় দেড়বছর আগে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিবাহবিচ্ছেদের মামলা হয়। তখনই মেয়েদের নিয়ে বাপেরবাড়ি থাকতেন ওই মহিলা। ছ’মাস আগে ওই মহিলার স্বামী দুই মেয়েকে নিজের কাছে নিয়ে এসে রাখে। অভিযোগ, শনিবার দুই মেয়ে কাঁদতে কাঁদতে মাকে ফোন করে জানায় তাদের বাবার কুকীর্তির কথা। রবিবার ওই মহিলা তাঁর বছর বিয়াল্লিশের স্বামীর বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে লিখিতভাবে সমস্ত অভিযোগ জানান। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ অভিযুক্ত বাবাকে রাতেই তার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে পকসো আইনে মামলা রুজু করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। সোমবার অভিযুক্তকে আলিপুর আদালতে তোলা হলে তাকে জেল হেফাজতে পাঠানো হয়।

[আরও পড়ুন : দাবি মেনেছে সরকার, অবশেষে শিলিগুড়ি পুরনিগমের প্রশাসকের দায়িত্বে নিলেন অশোক ভট্টাচার্য]

নির্যাতিতা দুই মেয়ের মায়ের অভিযোগ, প্রথম প্রথম ভয় দেখিয়ে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হতে মেয়েদের বাধ্য করত তাঁর স্বামী। পরে পানীয়ের সঙ্গে মাদক মিশিয়ে খাইয়ে তাদের অসহায়তার সুযোগ নিত সে। দিনের পর দিন এভাবেই মেয়েদের ওপর অত্যাচার চালিয়েছে স্বামী পুলিশের কাছে এমনই অভিযোগ করেছেন ওই মহিলা। নাবালিকা দুজনের শারীরিক পরীক্ষার জন্য পাঠিয়েছে পুলিশ। নির্যাতিতা দুই বোন আদালতে গোপন জবানবন্দিও দেবে বলে পুলিশসূত্রে জানা গিয়েছে। এদিকে এই ঘটনার কথা জানাজানি হতেই এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দারা গ্রেফতার হওয়া বাবার কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

[আরও পড়ুন : ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রই এখন কোয়ারেন্টাইন সেন্টার! আমফান দুর্গতদের রাখার জায়গা নিয়ে চিন্তায় প্রশাসন]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে