১০ শ্রাবণ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ২৭ জুলাই ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

দেবাঞ্জন কাণ্ডের ছায়া! এবার বারাকপুর কমিশনারেটের উচ্চপদস্থ কর্মী পরিচয়ে আর্থিক প্রতারণা

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: July 1, 2021 2:53 pm|    Updated: July 2, 2021 8:27 pm

Financial fraud with the identity of a high-ranking employee of the Barrackpore Commissionerate | Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী

অর্ণব দাস, বারাসত: বারাকপুর কমিশনারেটের (Police Commissionerate, Barrackpore) উচ্চপদস্থ আধিকারিক পরিচয়ে আর্থিক প্রতারণার অভিযোগ। পুলিশ ও আদালতের দ্বারস্থ প্রতারিত ব্যাক্তি। অভিযোগ, ধাপে ধাপে ১৪ লক্ষ টাকা খুইয়েছেন তিনি।

অভিযোগকারীর নাম অর্কপ্রভ মজুমদার। মধ্যমগ্রামের (Madhy) বাসিন্দা তিনি। তাঁর অভিযোগ, কয়েকবছর আগে রিচার্ড নামে এক ব্যক্তির সঙ্গে পরিচয় হয় তাঁর। তিনি নিজেকে বারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের উচ্চপদস্থ আধিকারিক হিসেবে পরিচয় দেয়। জানা গিয়েছে, সরকারি বিভিন্নকাজের দরপত্র পাইয়ে দেওয়ার নাম করে অর্কপ্রভবাবুর কাছ থেকে ধাপে ধাপে ১৪ লক্ষ টাকা নেয় রিচার্ড। পরবর্তীতে দীর্ঘদিন পেরিয়ে গেলেও কাজ হয়নি। অভিযোগ, এরপরই টাকা ফেরত চাইতে গেলে অর্কপ্রভবাবুকে ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের খুনের হুমকি দেওয়া হয়। আরও দেড় কোটি টাকা দাবি করা হয় বলে অভিযোগ। জোর পূর্বক সই করানো সাদা কাগজে।

[আরও পড়ুন: রেড রোডে ভয়াবহ দুর্ঘটনা, ফোর্ট উইলিয়ামের পাঁচিল ভেঙে ঢুকে পড়ল মিনি বাস, মৃত ১]

এরপরই পুলিশের দ্বারস্থ হন অর্কপ্রভ মজুমদার। যদিও পুলিশের তরফে কোনও সহযোগিতা পাননি বলেই দাবি তাঁর। আইনজীবী মারফত বারাকপুর কমিশনারেটে দুবার চিঠি পাঠিয়েছেন বলেও দাবি অভিযোগকারীর। অবশেষে মঙ্গলবার বারাকপুর আদালতে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। দেবাঞ্জন কাণ্ডে (Debanjan Deb) নিয়ে যখন তোলপাড় গোটা রাজ্য ঠিক সেই সময় এই ঘটনায় হতবাক সকলেই।

[আরও পড়ুন: কসবা ভুয়ো টিকা কাণ্ড: পুলিশের জালে আরও ১, বিরাটি থেকে ধৃত দেবাঞ্জনের অফিসের মালিক]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement