১৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শনিবার ৪ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

দালালের মাধ্যমে ওপার বাংলায় যাওয়ার ছক বানচাল, বাগদায় ধৃত ৫ বাংলাদেশি

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: August 5, 2019 8:50 pm|    Updated: August 5, 2019 8:50 pm

Five bangladeshi citizen gets 14 days jail custody from Bagda

নিজস্ব সংবাদদাতা, বনগাঁ: দালাল ধরে চোরাপথে বাংলাদেশে যাওয়ার সময় বিএসএফের হাতে গ্রেপ্তার হল পাঁচজন বাংলাদেশি। সোমবার আদালতে তোলার পর তাদের ১৪ দিনের জেল হেফাজত দেন বনগাঁ আদালতের বিচারক। ধৃতদের জেরা করে দালাল চক্রের খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ। ধৃতদের নাম জসিম খাঁ, মহম্মদ মুন্না, নজরুল হাসান, মনিরুল ইসলাম ও রাকিব হাওলাদার। তাদের প্রত্যেকের বাড়ি বাংলাদেশের খুলনা জেলায়।

[আরও পড়ুন: বন্ধুকে খুনের পর দেহ মাটিতে, নদিয়ার ঘটনায় সম্পর্কের টানোপোড়েন? উঠছে প্রশ্ন]

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রায় প্রতিদিনই বাংলাদেশ থেকে ভারতে ও ভারত থেকে বাংলাদেশে অবৈধভাবে যাতায়াত করে অনেকে। মাঝে মাঝে বিএসএফ তাদের গ্রেপ্তার করে পুলিশের হাতে তুলেও দেয়। কিন্তু, তারপরও অবৈধভাবে দেশ পারাপারের ঘটনা বন্ধ হয়নি। রবিবার রাতে বাগদা থানার বয়রা সীমান্ত এলাকায় পাঁচজনকে ঘোরাঘুরি করতে দেখেন বিএসএফ জওয়ানরা। বিষয়টি নিয়ে সন্দেহ হওয়ায় তাদের আটক করে জেরা করা হয়। তখনও জানা যায় যে কিছুদিন আগে বাংলাদেশ থেকে অবৈধভাবে ভারতে প্রবেশ করেছিল তারা। রবিবার রাতে ফের বাংলাদেশে ফিরে যাওয়া কথা ছিল তাদের। সেই মতো দালালদের পরামর্শ মেনে বয়রা সীমান্তের কাছে ঘোরাঘুরি করছিল তারা। কিন্তু, দালালরা আসার আগে বিএসএফ জওয়ানরা তাদের আটক করে। এরপরই ধৃতদের পুলিশের হাতে তুলে দেয় বিএসএফ।

বাগদা থানার পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, গোপন সূত্রে খবর ছিল। তার ভিত্তিতে বাগদা থানার বয়রা সীমান্ত এলাকা টহলদারি করছিলেন বিএসএফের ১০৭ নম্বর ব্যাটেলিয়নের জওয়ানরা। এসময় তাদের হাতে আটক হয় ওই বাংলাদেশিরা। জেরা করতেই ধৃতরা জানায়, তারা বাংলাদেশি। চোরাপথে ভারতে ঢুকে বিভিন্ন রাজ্যে শ্রমিকের কাজ করছিল। আসন্ন বকরি ইদ উপলক্ষে রবিবার দেশে ফিরছিল। কিন্তু, দালালদের পরামর্শ মতো চলতে গিয়ে ধরা পড়ে তারা।

[আরও পড়ুন: ‘মারামারি করলে ফার্স্ট হব’,সেরে উঠে নয়া চেহারায় বীরভূমে ফিরেই হুঙ্কার অনুব্রতর]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে