BREAKING NEWS

৩ কার্তিক  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২১ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

গাড়িতে লেখা ‘মহামন্ত্রী, বিজেপি’, তোলা আদায় করতে এসে গুলি–বন্দুক সমেত পুলিশের জালে ৫

Published by: Suparna Majumder |    Posted: October 9, 2021 9:49 am|    Updated: October 9, 2021 9:49 am

Five held during extortion bid as BJP minister in Purulia | Sangbad Pratidin

সুমিত বিশ্বাস, পুরুলিয়া: গাড়িতে বড় নেম প্লেটে লেখা “মহামন্ত্রী, ভারতীয় জনতা পার্টি, ঘাটশিলা”। সেই সঙ্গে বিজেপির পদ্ম ফুলের প্রতীক। এই গাড়িতে চড়েই ঝাড়খণ্ড থেকে জঙ্গলমহল পুরুলিয়ার বান্দোয়ানের নান্না গ্রামে এক ঠিকাদারের কাছ থেকে তোলা আদায় করতে এসে বৃহস্পতিবার পুলিশের জালে ধরা পড়ল পাঁচ জন। ধৃতদের গাড়ি থেকে উদ্ধার হয়েছে একাধিক আগ্নেয়াস্ত্র ও মোবাইল। চার চাকার গাড়িটিকেও আটক করেছে পুলিশ।

ধৃতরা ঝাড়খণ্ডের বিজেপির (BJP) সঙ্গে যুক্ত কিনা তা খতিয়ে দেখছে পুরুলিয়া জেলা পুলিশ (Purulia Police)। ধৃতদেরকে শুক্রবার পুরুলিয়া আদালতে তোলা হলে দু’জনের তিন দিন পুলিশ হেফাজত হয়েছে। বাকি চার জনের ১৪ দিন জেল হেফাজত হয়। এদিন পুরুলিয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অভিযান) চিন্ময় মিত্তাল বলেন, “ঝাড়খণ্ড থেকে তোলা আদায় করতে আসায় অস্ত্রশস্ত্র সমেত পাঁচ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের গাড়ির নেমপ্লেটে ‘মহামন্ত্রী’, ‘ভারতীয় জনতা পার্টি’ লেখা ছিল। সব কিছু খতিয়ে দেখা হচ্ছে।”

Five held during extortion bid as BJP minister in Purulia

[আরও পড়ুন: প্রতিবেশী নাবালিকাকে অশালীন ভিডিও দেখিয়ে শ্লীলতাহানির চেষ্টা, বালুরঘাটে গ্রেপ্তার সাধু]

পুরুলিয়া জেলা পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃতরা হল, তুষার দত্ত, রাজেশ কুমার, সত্যজিৎ অধিকারী, তপন ভরি ও দেবাশিস দত্ত। তুষার, সত্যজিৎ, তপন, দেবাশিসের বাড়ি ঝাড়খণ্ডের পূর্ব সিংভূম জেলার ঘাটশিলা থানার কাশিডা গ্রামে। ধৃত রাজেশের বাড়ি ঝাড়খণ্ডের পূর্ব সিংভূম জেলার জাদুগোড়া থানার তেতুঁলডাঙা কপার মেন রোড এলাকায়। তুষার ও রাজেশের তিন দিন পুলিশ হেফাজত হয়েছে। বাকি তিন জনের ১৪ দিনের জেল হেফাজত হয়। এদের বিরুদ্ধে ৪৮৪, ৩৬৮, ৩২৩, ৫০৬, ১২০ বি আইপিসি ও ২৫/২৭ অস্ত্র আইনে মামলা হয়েছে। এদের কাছ থেকে গুলি ভরতি একটি রাইফেল, একটি পিস্তল ও মোবাইল উদ্ধার হয়। তবে ওই আগ্নেয়াস্ত্রের কোন নথিপত্র ছিল না। নান্না গ্রামের ওই ঠিকাদারের কাছ থেকে আগ্নেয়াস্ত্র দেখিয়ে তোলা আদায় করতে চেয়েছিল বলে অভিযোগ। বান্দোয়ান থানার ওসি রানা ভগতের কাছে এই খবর আসা মাত্রই তিনি পুলিশের টিম নিয়ে সেখানে পৌঁছে ধৃতদের গ্রেপ্তার করেন।

পুরুলিয়া জেলা পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার ধৃতরা নান্না গ্রামের বাসিন্দা কৃত্তিবাস সিং মহাপাত্রের বাড়িতে আসে। তিনি পেশায় কোয়াক ডাক্তার। বাড়ির সঙ্গে লাগোয়া তার চেম্বার রয়েছে। তার ছেলে তুফান সিং মহাপাত্র ঠিকাদার। তিনি ঝাড়খণ্ডের পূর্ব সিংভূম জেলার ঘাটশিলায় ঠিকাদারের কাজ করেন। এর আগেও ধৃতদের মধ্যে কয়েকজন এই ঠিকাদারের কাছ থেকে তিন লক্ষ টাকার চেক নিয়ে যায় বলে অভিযোগ। গত বৃহস্পতিবার ওই ধৃতরা আরও তিন লক্ষ টাকা চেয়ে আগ্নেয়াস্ত্র দেখিয়ে ওই ঠিকাদারকে প্রাণনাশের হুমকি দেন বলে অভিযোগ। এই ঘটনার পরই ওই ঠিকাদারের বাবা কৃত্তিবাস সিং মহাপাত্র থানায় এসে বিষয়টি পুলিশকে বিস্তারিত জানান। যদিও তার আগেই পুলিশ নিজেদের নেটওয়ার্কে খবর পেয়ে যায়।

Five held during extortion bid as BJP minister

এই ঘটনায় পুরুলিয়া জেলা তৃণমূল বিজেপিকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেছে। পুরুলিয়া জেলা পরিষদের সভাধিপতি সুজয় বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “এখন বিজেপি দলটার এটাই সংস্কৃতি হয়ে গিয়েছে। ঝাড়খণ্ডে ওরা গুন্ডারাজ চালায়। এখানেও তাই করতে এসেছিল।” তবে বিজেপির পুরুলিয়া জেলা সভাপতি বিদ্যাসাগর চক্রবর্তী বলেন, “এই বিষয় নিয়ে আমরা ঝাড়খণ্ডের রাজ্য নেতৃত্বের সঙ্গে কথা বলেছি। ধৃতরা আদৌ বিজেপির সঙ্গে যুক্ত কিনা দেখা হচ্ছে।”

[আরও পড়ুন: Coronavirus Update: গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনা আক্রান্ত ৭৮৪ জন, অনেকটাই কমল মৃত্যু]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement