BREAKING NEWS

২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  বুধবার ৭ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

সিংহ আঁকতে বিস্তর ঝামেলা, ছাঁচই ভরসা ফরওয়ার্ড ব্লকের কর্মীদের

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: March 22, 2019 8:15 pm|    Updated: March 22, 2019 8:15 pm

Forward bloc workers use lion's mold for wall painting.

সুমিত বিশ্বাস, পুরুলিয়া: মুখ হাঁ করা কেশরওয়ালা সিংহ আঁকা চাট্টিখানি কথা নয়। নির্বাচনের সময় দেওয়াল লিখনে অভিজ্ঞ শিল্পীরাও রীতিমত হিমশিম খান। এমনকী ঘাম ঝরে যায় পোড় খাওয়া প্রবীণ ফরওয়ার্ড ব্লকের নেতাদেরও। আর সিংহও হয়ে যায় রোগাটে! দলের তরুণ কর্মীরা তো সিংহ আঁকার ভয়ে হাতে রঙ-তুলি নিতেই চান না। ফলে ভোটের সময় বহু দেওয়ালেই ফরওয়ার্ড ব্লক প্রার্থীর নাম থাকলেও থাকে না কোনও প্রতীক।

২০১৫ সালে পুরুলিয়া জেলা সম্মেলনে ফরওয়ার্ড ব্লকের সম্পাদকীয় প্রতিবেদনে স্বীকার করা হয়েছিল যে কর্মীরা সিংহ আঁকতে পারেননি বলেই ২০১৪ সালের লোকসভা ভোটে তারা হেরে যায়। তাই এবার ফরওয়ার্ড ব্লকের রাজ্য দপ্তর থেকে সিংহ আঁকার ছাঁচ দেওয়া হয়েছে পুরুলিয়ার নেতা-কর্মীদের। সেই সিংহের ছাঁচ বসিয়ে নিজেদের প্রতীক আঁকছেন ফরওয়ার্ড ব্লকের নেতা-কর্মীরা। তবে মুখ হাঁ করা রাগী, ভারিক্কি চেহারার সিংহ আঁকা শেখাতে চলতি মাসে ফরওয়ার্ড ব্লকের পুরুলিয়া জেলা কমিটি রীতিমতো শিল্পী এনে জেলার পঞ্চাশ জন কর্মীকে প্রতীক আঁকার পাঠও দেয়। তবুও পুরুলিয়ার দেওয়ালে-দেওয়ালে সেভাবে ফুটে উঠছে না কেশরওয়ালা সিংহ।

ফলে নির্বাচনী বৈতরণী পার হতে দলের রাজ্য দপ্তর থেকে দেওয়া সিংহের ছাঁচই এখন ভরসা। তাই যেখানেই পুরুলিয়া লোকসভা কেন্দ্রের ফরওয়ার্ড ব্লক প্রার্থী বীর সিং মাহাতো প্রচারে যাচ্ছেন সেখানেই ওই ছাঁচ নিয়ে যেতে ভুলছেন না। দেওয়ালে রঙ-তুলি দিয়ে সহজেই সিংহ আঁকতে ছাঁচ নিয়ে রীতিমত টানাটানি করছেন বাম কর্মীরা। রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা সিপিএমের জেলা সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য বিলাসীবালা সহিসও তাঁর গ্রামের দেওয়াল লিখতে প্রাক্তন সাংসদ তথা প্রার্থী বীর সিং মাহাতোর কাছ থেকে ওই সিংহের ছাঁচ নিয়ে থলেতে ভরে নেন।

[যুবককে পিটিয়ে খুনের অভিযোগ সিপিএম নেতা ও দুই ছেলের বিরুদ্ধে]

পুরুলিয়া জেলা ফরওয়ার্ড ব্লক চাইছে, এই ছাঁচ দিয়েই দ্রুত দেওয়াল লিখে দিতে। তাতে মোটাসোটা চেহারার সিংহ হোক বা না হোক দেওয়ালে দলের প্রতীক তো থাকুক। দলের রাজ্য সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য অসীম সিনহা বলেন, “তরুণ কর্মীরা ছাড়াও বহু শিল্পীই সিংহ আঁকতে পারেন না। তাই চলতি মাসের গোড়ার দিকে ভাল শিল্পী খুঁজে দলের প্রতীক সিংহ আঁকা শেখানোর জন্য পুরুলিয়া জেলা দপ্তরে প্রায় পঞ্চাশজন কর্মীকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়।”

পুরুলিয়ার একাধিক সিপিএম, সিপিআই ও আরএসপি কর্মীরাও মেনে নিয়েছেন ফরওয়ার্ড ব্লকের প্রতীক সিংহ আঁকা খুবই কঠিন কাজ। ফলে এই জেলায় লোকসভা ভোটে বাম কর্মীরা প্রতীক আঁকতে গিয়ে খুব সমস্যায় পড়েন। কারণ এই লোকসভা আসনটি রাজ্য বামফ্রন্ট প্রতিবারই ফরওয়ার্ড ব্লককে ছেড়ে আসছে। তবে সিংহ আঁকার ভীতি কাটাতে জেলায় বাম কর্মীদের অভয় দিচ্ছেন প্রার্থী বীর সিং মাহাতো নিজেই। তাঁর কথায়, কলকাতায় রাজ্য দপ্তর থেকে অনেক সিংহের ছাঁচ নিয়ে এসেছি। তাই আর ভাবনা কিসের !

ছবি- অমিত সিং দেও

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে