১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শনিবার ২৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

সন্ধে নামতেই ধান ঝাড়ার শব্দ, মাঝরাতে পুকুরে ঝাঁপ দিচ্ছে কেউ! ‘ভূতে’র আতঙ্কে কাঁটা দেগঙ্গা

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: January 21, 2022 7:42 pm|    Updated: January 21, 2022 8:14 pm

Ghost Fear in North 24 Parganas deganga area | Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী

অর্ণব দাস, বারাসত: পরিত্যক্ত মিলিটারি ক্যাম্প ঘিরে ভূতের আতঙ্ক। কাঁটা উত্তর ২৪ পরগনার দেগঙ্গার (Deganga) বাসিন্দারা। সন্ধে গড়ালে বাড়ি থেকে বের হওয়ার সাহস পাচ্ছেন না অধিকাংশই।

উত্তর ২৪ পরগনার দেগঙ্গার বিশ্বনাথপুরে রয়েছে প্রাচীন একটি মিলিটারি ক্যাম্প। স্বাধীনতার পরই তৈরি হওয়া ওই ক্যাম্পে একটা সময় জওয়ানরা থাকলেও বহুদিন আগে তাঁদের আনাগোনা বন্ধ হয়েছে। পরবর্তীতে বিশেষ ক্ষমতা সম্পন্ন মানুষদের রাখা হত সেখানে। কিন্তু বছর ২০ আগে সেই পাটও চুকে গিয়েছে। এখন কার্যত ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে সেই মিলিটারি ক্যাম্প। ভরতি করে রাখা খড়। বারান্দায় ঘুরে বেড়াচ্ছে গরু। ভেঙেছে জানলা, দরজা। আর এই পরিত্যক্ত ক্যাম্পই দেগঙ্গাবাসীর মাথা ব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

[আরও পড়ুন: Coronavirus: অবিলম্বে খোলা হোক স্কুল, আরজি জানিয়ে রাজ্যকে চিঠি দেওয়ার সিদ্ধান্ত উপদেষ্টা কমিটির]

স্থানীয়দের একাংশের দাবি, সূর্য ডুবতেই নানারকম আওয়াজ ভেসে আসে ওই বাড়িটি থেকে। কখনও যেন মনে হয় কেউ চিৎকার করছে। কখনও পাওয়া যায় ধান ঝাড়ার শব্দ। মাঝরাতে কখনও স্থানীয়রা শুনতে পান পুকুরে ঝাঁপ দেওয়ার শব্দ। আচমকা জানলা-দরজা বন্ধ হওয়ার শব্দও শোনা যায়। কখনও আবার শোনা যাচ্ছে, কান্নার আওয়াজ। যা রীতিমতো ঘুম উড়িয়েছে স্থানীয়দের।

এলাকার বাসিন্দাদের থেকে জানা গিয়েছে, পরিত্যক্ত এই ক্যাম্পটি অসামাজিক কাজের আখড়ায় পরিণত হয়েছে। পুলিশের পক্ষ থেকে কয়েকবার সেখানে অভিযান চালানো হয়। গ্রেপ্তারও করা হয়েছিল কয়েকজনকে। স্থানীয়দের একাংশের দাবি, অসামাজিক কাজকর্ম চালানোর জন্য কিছু লোক পরিকল্পনামাফিক ভূতের আতঙ্ক ছড়াচ্ছে। সকলেই চাইছেন এই পুরনো মিলিটারি ক্যাম্পের ঐতিহ্য বজায় রাখতে অবিলম্বে সংস্কারের কাজ করা হোক।

[আরও পড়ুন: একা সম্পত্তি ভোগের লোভে ভাড়াটে খুনি দিয়ে স্বামীকে হত্যা, ইসিএল কর্মী খুনে ধৃত স্ত্রী-সহ ৪]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে