২২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  সোমবার ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাজ্য সরকারের আয়োজিত পুজো কার্নিভালে আমন্ত্রিত ছিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। অনুষ্ঠানে ডাকা সত্ত্বেও তাঁকে ঠিকমতো যত্ন করা হয়নি বলে অভিযোগের সুর চড়িয়েছিলেন। সোমবারের শিলিগুড়ি সফরে এবার শহরজুড়ে লাগানো মুখ্যমন্ত্রীর কাটআউট নিয়ে ক্ষোভে ফুঁসলেন রাজ্যপাল। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “বিমানবন্দর থেকে সব জায়গায় মুখ্যমন্ত্রীর কাটআউট দেখলাম। কোথাও আমার কোনও কাউআউট দেখেছেন?”

দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই বিভিন্ন জেলাসফরে যাচ্ছেন রাজ্যপাল। ইতিমধ্যে দুই চব্বিশ পরগনা, হুগলির সিঙ্গুর, শিলিগুড়িতেও গিয়েছেন তিনি। কিন্তু প্রতি জেলারই উচ্চপদস্থ প্রশাসনিক আধিকারিকদের দেখা পাননি রাজ্যপাল। রাজ্য সরকারের দাবি, কাউকে কিছু না জানিয়ে আচমকা জেলা সফরে যান রাজ্যপাল। তাই কোনও আমলার সঙ্গেই দেখা হয় না তাঁর। সোমবার এই অভিযোগ খণ্ডন করলেন রাজ্যপাল। পালটা তাঁর দাবি, জেলাশাসকদের তরফ থেকে দেখা না হওয়ার প্রেক্ষিতে চিঠি পেয়েছেন রাজ্যপাল। জেলাশাসকরা ওই চিঠিতে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন রাজ্য প্রশাসনের নির্দেশ ছাড়া রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করতে পারবেন না তাঁরা। জেলাশাসকদের চিঠির উত্তরে বেশ কষ্ট পেয়েছেন বলেই জানান রাজ্যপাল। এছাড়াও ধনকড় সমান্তরাল প্রশাসন চালাচ্ছেন বলে সুর চড়িয়েছিলেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধানের অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন জগদীপ ধনকড়। মুর্শিদাবাদ সফরের জন্য চেয়ে হেলিকপ্টার না পাওয়ার প্রসঙ্গেও এদিন ক্ষোভ প্রকাশ করেন জগদীপ ধনকড়।  

[আরও পড়ুন: মাত্রাতিরিক্ত ঘুমের ওষুধ খেয়েই অসুস্থ নুসরত! জল্পনা ঘনিষ্ঠ মহলে]

এদিন রাজ্যপালের অভিযোগ-পালটা যুক্তির মধ্যে উঠে আসে বুলবুল প্রসঙ্গও। বুলবুলের সময় রাজ্য প্রশাসনের ভূমিকার প্রশংসা করেছিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। তবে সোমবার সেই প্রসঙ্গে মুখ খুললেন তিনি। কেন মুখ্যমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড়ের প্রসঙ্গে তাঁকে কিছু জানালেন না, সে প্রসঙ্গে ক্ষোভ উগরে দেন রাজ্যপাল। রাজনৈতিক মহলের মতে, রাজ্যপাল এবং মুখ্যমন্ত্রীর সম্পর্ক কখন ভাল আর কখন খারাপ, তা যেন বোঝাই দায়। প্রশংসার পরেও রাজ্যপালের বুলবুল প্রসঙ্গে তোলা প্রশ্ন যেন আরও একবার সে কথাই প্রমাণ করল।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং