৩০ শ্রাবণ  ১৪২৭  শনিবার ১৫ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

মিড ডে মিল কাণ্ডে তৎপর বিকাশ ভবন, চুঁচুড়ায় স্কুল পরিদর্শনে যাচ্ছেন প্রজেক্টের ডিরেক্টর

Published by: Tanujit Das |    Posted: August 20, 2019 1:06 pm|    Updated: August 20, 2019 1:12 pm

An Images

দেবাদৃতা মণ্ডল, চুঁচুড়া: মিড ডে মিলে নুন-ভাত দেওয়ার ঘটনায় চুঁচুড়ার বালিকা বাণীমন্দির স্কুলে পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে যাচ্ছেন হুগলি জেলার ডিআই ও মিড ডে মিল প্রজেক্টের ডিরেক্টর৷ বিকাশ ভবন সূত্রে খবর, শিক্ষাসচিবের নির্দেশেই স্কুলে যাচ্ছেন তাঁরা৷ খতিয়ে দেখবেন সমস্ত পরিস্থিতি৷ স্কুলের খাদ্যসামগ্রী কেনার জন্য বরাদ্দ টাকা কেন সঠিকভাবে ব্যবহার করা হল না, এর সঙ্গে কে কে যুক্ত রয়েছে, কার গাফিলতিতে ছাত্রীদের ফ্যান ভাত ও নুন খেয়ে থাকতে হল, এসব প্রশ্নেরই উত্তর খুঁজবেন তাঁরা৷

[ আরও পড়ুন: ব্যারেজের ছাড়া জলে বিপদ সুবর্ণরেখার তীরে, ঝাড়গ্রামের একাংশে প্লাবনের আশঙ্কা ]

সোমবার এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর ইতিমধ্যে দুই শিক্ষিকাকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। হুগলির জেলাশাসক ওয়াই রত্নাকর রাওয়ের নির্দেশে সাসপেন্ড করা হয়েছে ওই স্কুলের প্রাক্তন টিআইসি শমিতা কুশারী এবং বর্তমান টিআইসি পূর্বা মুখোপাধ্যায়কে৷ সূত্রের খবর, সোমবারের ঘটনার জেরে নড়েচড়ে বসেছে প্রশাসন৷ জেলার প্রায় এক হাজার স্কুলের মিড ডে মিলের অবস্থা কী পর্যায়ে রয়েছে, তা খতিয়ে দেখতে চলেছেন জেলা প্রশাসনের আধিকারিকরা। সেই রিপোর্ট পাঠানো হবে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে৷ গাফিলতির প্রমাণ পেলে কড়া শাস্তি পাবেন অভিযুক্তরা৷ 

[ আরও পড়ুন: পুরুলিয়ায় টিকটক করতে গিয়ে ট্রেনের ধাক্কায় যুবকের মৃত্যু, ভিডিওর খোঁজে পুলিশ ]

অন্যদিকে, অভিযোগ পেয়ে সোমবার চুঁচুড়ার বালিকা বাণীমন্দির স্কুলে যান হুগলির বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়৷ অভিযোগ করেন, দীর্ঘ কয়েক মাস ধরে এখানে মিড ডে মিল নিয়ে বড় দুর্নীতি চলছে৷ ২৫ হাজার টাকার ডিম ও ২৫৬ বস্তা চালের কোনও হদিশ দিতে পারেনি স্কুল কর্তৃপক্ষ৷ স্কুল পরিচালন কমিটির মাথারা টাকা লুট করছে৷ বিশাল বড় চুরি হচ্ছে৷ ঘটনার সঙ্গে তৃণমূলের মাথারা জড়িত রয়েছে৷ এখানেই শেষ নয়, এই ইস্যুতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও আক্রমণ শানান লকেট চট্টোপাধ্যায়৷ বলেন, ‘‘কন্যাশ্রীর জন্য মুখ্যমন্ত্রী বিশ্বসেরার সম্মান আনছেন, এদিকে তাঁর রাজ্যের কন্যারা খেতে পাচ্ছে না৷’’ সমগ্র ঘটনার তদন্ত চেয়ে হুঁশিয়ারি দেন হুগলির সাংসদ৷ স্পষ্ট জানান, ‘‘শেষ দেখে ছাড়ব৷’’ যদিও এই অবস্থার জন্য স্কুলের পরিচালন সমিতির চেয়ারম্যান তথা চুঁচুড়া পুরসভার প্রধান গৌরীকান্ত মুখোপাধ্যায়ের দিকেই অভিযোগের আঙুল তুলেছেন শিক্ষিকাদের একাংশ। এবং যথারীতি সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন গৌরীকান্ত বাবু৷ উলটে স্কুলের চার শিক্ষিকাকে দোষারোপ করেছেন তিনি৷

[ আরও পড়ুন: আলিপুরদুয়ারে বিরল প্রজাতির ছত্রাক-সহ গ্রেপ্তার ভুটানের তিন নাগরিক ]

অন্যদিকে মঙ্গলবার সকালে অন্যন্য পদ্ধতিতে এই ঘটনার প্রতিবাদ করলেন বাউল শিল্পী স্বপন দাস৷ মিড ডে মিল দুর্নীতির অভিযোগে স্কুলের সামনেই গান ধরেন তিনি৷ কেবল বাউল শিল্পী নন, ঘটনার প্রতিবাদে আওয়াজ তুলেছেন অভিভাবকরাও৷ ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত ও দোষীদের শাস্তির দাবিতে সরব হয়েছেন তাঁরা৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement