৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

রাজকুমার, আলিপুরদুয়ার:  ভুটানে পাচার হওয়ার পথে আলিপুরদুয়ারের জয়গাঁ থেকে বিরল প্রজাতির কিরাজরি ছত্রাক উদ্ধার করলেন এসএসবি ও বনদপ্তরের হ্যামিলটনগঞ্জের আধিকারিকরা। যৌথ অভিযানে ধরা পড়েছে ভূটানের তিনজন নাগরিকও।

[ আরও পড়ুন: গাড়ির সিটে সোনা পাচারের ছক বানচাল, ৪ কোটি টাকার সোনার বিস্কুট-সহ গ্রেপ্তার ৩]

উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বন্যজন্তুর দেহাংশ পাচারের ঘটনা নতুন নয়। কিন্তু কিরাজরি ছত্রাকটি কি?  শুধুমাত্র  নেপাল ও হিমালয় পাহাড়ে পাওয়া যায় এই বিরল প্রজাতির ছত্রাক। উত্তরাখণ্ডের পাহাড়ি এলাকা ছাড়া ভারতে আর কোথাও এই কিরাজরি ছত্রাক দেখতে পাওয়া যায় না। সন্তানহীনতা, হেপাটাইটিস, এমনকী ক্যানসারের মতো রোগের ওষুধ তৈরিতে এই ছত্রাক ব্যবহার করা হয় বলে জানা গিয়েছে। ওষুধি গুণের কারণে কিরাজরি ছত্রাক বহুমূল্য।

গোপনসূত্রে খবর পেয়ে সোমবার রাতে আলিপুরদুয়ারের ভুটান সীমান্ত লাগোয়া জয়গাঁ এলাকায় যৌথ অভিযান চালান এসএসবি-র জওয়ান ও বনদপ্তরের হ্যামিলটনগঞ্জ রেঞ্জের কর্মীরা। হাতনাতে ধরা পড়ে ভূটানের তিনজন নাগরিকরা। তদন্তকারীরা জানিয়েছেন,  ধৃতদের কাছ থেকে ৫ কেজি কিরাজরি ছত্রাক পাওয়া গিয়েছে। যার বাজারমূল্য প্রায় ১ কোটি টাকারও বেশি। বস্তুত, চিনে সোনার থেকেও বেশি দামি কিরাজরি ছত্রাক। ধৃতদের হেফাজতে নিয়েছেন আলিপুরদুয়ারের হ্যামিলটনগঞ্জ বনবিভাগের কর্মীরা।

এদিকে সোমবার রাতে আলিপুরদুয়ারের কালচিনি থেকে এসার গুম্পা নামে এক বিরল প্রজাতির উদ্ভিদজ প্রাণী উদ্ধার করেছেন এসএসবি-র জওয়ানরা। এই ঘটনায়ও তিনজনকে ভূটানের নাগরিককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। জানা গিয়েছে, হিমালয় বরফাবৃত এলাকা এসার গুম্পা নামে শুয়োপোকা জাতীয় এক শ্রেণির প্রাণী দেখতে পাওয়া যায়। বজ্রপাত বা অন্য কোনও প্রাকৃতিক কারণে মৃত্যুর পর, এই প্রজাতির প্রাণীর শরীরের বিশেষ এক ধরনের উদ্ভিদ জন্মায়। যৌবন ধরে রাখতে গোটা বিশ্বের এসার গুম্পা নামে ওই গাছের বিপুল চাহিদা আছে বলে জানা গিয়েছে।

[ আরও পড়ুন: ‘যা পাখি উড়তে দিলাম তোকে…’, কিশোরদের হাত থেকে বিরল বসন্তবৌড়ি ছানা উদ্ধার মহিলার]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং