BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

হাসপাতালে ভরতি তিন বছর ধরে নিখোঁজ বৃদ্ধ, সুস্থ হতেই ঘরে ফেরাল হ্যাম রেডিও

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: April 8, 2020 6:01 pm|    Updated: April 8, 2020 6:01 pm

An Images

সুরজিৎ দেব, ডায়মন্ড হারবার: জ্বর ও সর্দি-কাশির মতো কিছু প্রাথমিক উপসর্গ ছিল। তাই দক্ষিণ ২৪ পরগনার মন্দিরবাজার থেকে উদ্ধারের পর কোনওরকম ঝুঁকি না নিয়ে এক অজ্ঞাতপরিচয় বৃদ্ধকে পাঠানো হয়েছিল সম্প্রতি করোনা হাসপাতালে রূপান্তরিত ফলতা ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে। বর্তমানে সম্পূর্ণ সুস্থ ওই বৃদ্ধ। কিন্তু বৃদ্ধের পরিচয় জানা না থাকায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাঁকে ছাড়তে পারেননি। শেষপর্যন্ত হ্যাম রেডিও ক্লাবের সদস্যদের সাহায্যে ঠিকানা উদ্ধার করে ওই ব্যক্তির পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ সম্ভব হয়। বৃহস্পতিবার তাঁকে তাঁর পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হবে।

নাম নিখিল চন্দ্র সরকার। বাড়ি সুন্দরবনের বাসন্তীর ঝড়খালিতে। গত তিনবছর ধরে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। সম্প্রতি তাঁকে মন্দিরবাজার এলাকা থেকে অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করে মন্দিরবাজার গ্রামীণ স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়। জ্বর ও সর্দি-কাশি থাকায় দিনপাঁচেক আগে সেখান থেকে তাঁকে পাঠানো হয় ফলতা ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসার জন্য। উল্লেখ্য করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে এই ফলতা ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রটিকে করোনা হাসপাতাল হিসেবে চিহ্নিত করেছে স্বাস্থ্যদপ্তর। আর তাতেই আতঙ্ক ছড়ায় এলাকায়। কিন্তু চিকিৎসকরা জানিয়ে দেন জ্বর, সর্দি-কাশির মত প্রাথমিক কিছু উপসর্গ থাকলেও তিনি করোনা আক্রান্ত নন। বরং এখন ওই ব্যক্তি সম্পূর্ণ সুস্থ।

[আরও পড়ুন: সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃত করে পোস্ট, গ্রেপ্তার বাংলাদেশি যুবক-সহ ৩]

ফলতা ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্র সূত্রে জানা গিয়েছে, নিখিলবাবুকে হাসপাতাল থেকে ছুটি দেওয়া হয়েছে আগেই। কিন্তু নিজের নাম-ঠিকানা বলতে না পারায় বেকায়দায় পড়ে যায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। শেষপর্যন্ত ওয়েস্ট বেঙ্গল রেডিও ক্লাবের সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন তাঁরা। যোগাযোগ করা হয় ক্লাবের সম্পাদক অম্বরীশ নাগ বিশ্বাসের সঙ্গেও। হ্যাম রেডিওর তৎপরতায় বুধবারই জানা যায় অজ্ঞাতপরিচয় ওই ব্যক্তির নাম ও ঠিকানা। যোগাযোগ করা হয় তাঁর পরিবারের সঙ্গে। বৃহস্পতিবার তাঁকে বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে যেতে হাসপাতালে আসছেন তাঁর আত্মীয়রা।

এদিকে ওয়েস্ট বেঙ্গল রেডিও ক্লাবের সম্পাদক অম্বরীশ নাগ বিশ্বাস জানিয়েছেন, তিনবছর পর মানসিক ভারসাম্যহীন বৃদ্ধকে তাঁর পরিবার-পরিজনেদের কাছে ফিরিয়ে দিতে পেরে প্রচণ্ড খুশি তাঁরা। এত অল্প সময়ে বিশেষ করে করোনার মত ভয়ঙ্কর এই সঙ্কটের মধ্যেও ওই ব্যক্তির ঠিকানা খুঁজে পেতে ক্লাব সদস্যরা যে আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়েছে সেজন্য তাঁদের ধন্যবাদও জানিয়েছেন তিনি। ডায়মন্ড হারবার স্বাস্থ্যজেলার আধিকারিকরা জানিয়েছেন, ওই বৃদ্ধের আত্মীয়দের তাঁকে চোদ্দোদিন হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখার পরামর্শও দেওয়া হয়েছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement