২৮ আশ্বিন  ১৪২৬  বুধবার ১৬ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

বিপ্লব দত্ত, কৃষ্ণনগর: প্রেমিক নয়, এবার  প্রেমের স্বীকৃতি পেতে ধরনায় বসলেন এক প্রেমিকা। প্রেমিকের বাড়ির সামনে তাঁর হারানো প্রেম ফিরিয়ে দেওয়ার দাবি তুলে সোমবার থেকে টানা ধরনা চালিয়ে যাচ্ছেন ওই প্রেমিকা। মঙ্গলবারও চলছে ধরনা।  যদিও ধরনায় বসার খবর পেয়েই  ছুটে যায় পুলিশ। অবশ্য নিজের হারিয়ে যাওয়া প্রেম ফিরে পাওয়ার দাবিতে অনড় ওই প্রেমিকা পুলিশকে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, তাঁর প্রেমের মর্যাদা দিয়ে তাঁকে বিয়ে না করা পর্যন্ত তিনি ধরনা চালিয়ে যাবেন। অবশ্য পরিস্থিতি বেগতিক বুঝে প্রেমিক ও তাঁর বাড়ির লোকজন পুলিশ আসার আগেই বাড়িতে তালা মেরে চম্পট দিয়েছেন।

ঘটনাটি ঘটেছে নদিয়ার কালীগঞ্জ থানার রাধাকান্তপুরে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রেমিকের বাড়ির সামনে ধরনায় বসা ওই প্রেমিকার নাম মাফুজা খাতুন। বাড়ি কালিগঞ্জ থানার গোবিন্দপুরে। তিনি পলাশী কলেজের তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী। মাফুজা জানিয়েছেন, তাঁর প্রেমিকের নাম জিন্নাত আলি। বাড়ি রাধাকান্তপুরে। সোমবার সকালে মাফুজা খাতুন তাঁর প্রেমিকের বাড়িতে চলে যান। এরপর হাতে একটি ব্যাগ নিয়ে প্রেমিকের বাড়ির সামনে ধরনায় বসে পড়েন।

[ আরও পড়ুন: আউশগ্রামে তৃণমূলের শান্তি মিছিলে হামলা, অভিযোগের তির বিজেপির দিকে ]

প্রেমিকা মাফুজা খাতুনের স্পষ্ট অভিযোগ, বিগত তিন বছর ধরে তাঁর সঙ্গে জিন্নাত আলির সম্পর্ক রয়েছে। তাঁদের মধ্যে  ঘনিষ্ঠতাও তৈরি হয়। প্রেমের খাতিরে তিনি প্রেমিককে সাহায্য করার জন্য বেশ কিছু টাকা পয়সাও দিয়েছেন। অথচ বেশ কিছুদিন ধরে জিন্নাত তাঁর সঙ্গে আর যোগাযোগ রাখতে রাজি হচ্ছেন না। এমনকী মোবাইলে কথাবার্তাও প্রায় বন্ধ হয়ে গিয়েছে। কিন্তু তিনি তাঁর প্রেমিককে ছাড়া বাঁচতে পারবেন না। তাঁকেই বিয়ে করবেন। বিয়ের প্রতিশ্রুতি পাওয়ার পর তিনি প্রেমিকের সঙ্গে মেলামেশা করেছিলেন। অথচ এখন  তাঁর প্রেমিক বিয়ে করতে রাজি হচ্ছে না। সেই কারণেই তিনি প্রেমিকের বাড়ি ছুটে এসেছেন।

মাফুজা খাতুনের বক্তব্য, “আমি ওকে ছাড়া কাউকে বিয়ে করব না।  আমাকেই ওকে বিয়ে করতে হবে।” যদিও প্রেমিকের বাড়ি ছুটে আসার জন্য প্রেমিকের মায়ের হাতে তাঁকে বেধড়ক মার খেতে হয়েছে বলেও অভিযোগ করেছেন মাফুজা খাতুন। এদিকে মাফুজা যে তাঁর ছেলেকে টাকা দিয়েছিলেন, সেকথা অস্বীকার করেছেন জিন্নাতের মা। উলটে তাঁর অভিযোগ, এসব করে টাকা নেওয়ার ফন্দি আঁটছেন মাফুজা।

[ আরও পড়ুন: কাটমানি ফেরত চাই, দাবিতে বনগাঁ শহরজুড়ে মিছিল ই-রিকশাচালকদের ]

এর আগে হারানো প্রেম ফিরে পাবার জন্য প্রেমিকার বাড়ির সামনে  রীতিমতো ব্যানার, পোস্টার নিয়ে ধরনায় বসেছিলেন এক প্রেমিক। ঘটনাটি সেসময় শোরগোল ফেলেছিল। এবার নিজের পুরনো প্রেম ফিরে পেতে এবং প্রেমের মর্যাদা আদায়ের জন্য প্রেমিকের বাড়ির সামনে ধরনায় বসেন প্রেমিকা মাফুজা খাতুন। খবর পেয়ে ছুটে আসে কালীগঞ্জ থানার পুলিশ। পুলিশের পক্ষ থেকে মাফুজা খাতুনকে বিভিন্ন রকমভাবে বোঝানোর চেষ্টা করা হয়। কিন্তু মাফুজা নাছোড়বান্দা। যদিও তাঁর হাতে ছিল না কোনও ব্যানার ও পোস্টার। তবে মাফুজা বাড়ি থেকে না বলে চলে এসেছেন  কিনা, পুলিশ তা জানার চেষ্টা করছে। এদিকে পুলিশ আসার আগেই ঘরে তালা মেরে পগার পার জন্নত শেখ ও তাঁর বাড়ির লোকজন। ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়েছে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং