Advertisement
Advertisement

শক্তি বাড়িয়ে আরও গভীর নিম্নচাপ, পশ্চিমাঞ্চলে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস

কলকাতায় চলবে রোদ-বৃষ্টির খেলা৷

Heavy rainfall possibility in West district in West Bengal

ফাইল ছবি

Published by: Kumaresh Halder
  • Posted:August 8, 2018 1:47 pm
  • Updated:August 8, 2018 1:47 pm

রিঙ্কি দাস ভট্টাচার্য: ফের রাজ্যর পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলিতে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিল আলিপুর হাওয়া অফিস৷ ইতিমধ্যেই উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে অবস্থিত নিম্নচাপটি শক্তি বাড়িয়ে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে৷ পশ্চিমাঞ্চলে ভারী বৃষ্টিপাতের সঙ্গে সঙ্গে কলকাতা সহ হাওড়া ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায় বিক্ষিপ্তভাবে বজ্রগর্ভ বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে হওয়া অফিস৷ পশ্চিমের জেলাগুলিতে ভারি বৃষ্টির পূর্বাভাস জারি হতেই প্রশাসনের তরফেও শুরু হয়েছে তৎপরতা৷ দুর্যোগ মোকাবিলায় তৈরি থাকতে প্রশাসনিক দপ্তরগুলিতে সতর্কতা জারি করা হয়েছে৷ পশ্চিমের নদীগুলির উপরও নজরদারি শুরু হয়েছে বলে প্রশাসন সূত্রে খবর৷

[পুরুষাঙ্গ কেটে খুন প্রৌঢ়কে, গ্রেপ্তার প্রতিবেশী মহিলা]

দপ্তর সূত্রে জানানো হয়েছে, উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে অবস্থিত নিম্নচাপটি শক্তি বাড়িয়ে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। সেটি ক্রমশ পশ্চিম, উত্তর-পশ্চিমে সরে এসে। যার জেরে প্রতিবেশী রাজ্য ওড়িশা লাগোয়া রাজ্যের জেলাগুলিতে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে৷ কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দপ্তরের উপ মহানির্দেশক সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন বলেন, নিম্নচাপের প্রভাবে বেশি বৃষ্টি পাবে ওড়িশা। তবে বাদ যাবে না এই রাজ্যও। ওড়িশা ঘেঁষা পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, পুরুলিয়া, বাঁকুড়াতে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির পূর্বাভাস দক্ষিণের অন্যান্য জেলাগুলিতে। কলকাতায় চলবে রোদ-বৃষ্টির খেলা৷ নিম্নচাপের প্রভাবে বৃষ্টি পাবে উত্তরবঙ্গও৷ বুধ-বৃহস্পতিবার হালকা বৃষ্টি হলেও দার্জিলিং, কালিম্পং, জলপাইগুড়ি, কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ারের  ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা শুক্রবার থেকে।

Advertisement

[প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে গিয়ে ঘটল দুর্ঘটনা, ট্রেনের ধাক্কায় মৃত্যু মা ও মেয়ের]

এদিকে নিম্নচাপের প্রভাবে মঙ্গলবার দুপুরে বৃষ্টি নামে কলকাতা ও আশপাশের এলাকায়৷ হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, এদিন বিকেল সাড়ে পাঁচটা পর্যন্ত আলিপুরে বৃষ্টি হয়েছে ১১.৪ মিলিমিটার। দিনভর বৃষ্টি হলেও শহরে আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি তেমন কাটেনি। আবহাওয়া বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, নিম্নচাপের জেরে পরিমণ্ডলে প্রচুর পরিমাণ জলীয় বাষ্প ঢুকছে৷ যার জেরে তাপমাত্রা বাড়ছে না। উলটে চড়ছে অস্বস্তির পারদ। কয়েক ঘণ্টার বৃষ্টিতে এই গুমোট থেকে রেহাই মিলবে না৷ এদিন বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতা ছিল সর্বোচ্চ ৯৫ শতাংশ। সর্বনিম্ন ৭৬ শতাংশ। মেঘের কারণে আলিপুরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে ৩২.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস৷ আজ, দক্ষিণবঙ্গেও একই পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছে৷ বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হলেও আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি আজও অব্যাহত৷

Advertisement

[কওসরের গ্রেপ্তারির খবরে স্বস্তিতে খাগড়াগড়ের বাসিন্দারা, চরম শাস্তির দাবি]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ