৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বাজারে আকাল! করোনা রুখতে এভাবে বাড়িতেই তৈরি করুন হ্যান্ড স্যানিটাইজার

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: March 15, 2020 7:22 pm|    Updated: March 15, 2020 7:23 pm

An Images

সৌরভ মাজি, বর্ধমান: করোনা ভাইরাস রুখতে স্যানিটাইজার ব্যবহারের পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। কিন্তু গ্রাম বাংলার মানুষের অনেকের কাছেই তা এখনও অজানা। উপরন্তু খেটে খাওয়া মানুষের পক্ষে দোকান থেকে বেশি টাকা খরচ করে তা কেনাও সম্ভব হচ্ছে না। তবে বাজারে কিনতে না পারলে এবার ঘরোয়া পদ্ধতিতেই স্যানিটাইজার তৈরি করে নিন। কীভাবে? করোনা নিয়ে সচেতনতার বার্তা দিতে এবং স্যানিটাইজার তৈরী ও ব্যবহারের কৌশল জানাতেই প্রচারে নেমেছে পূর্ব বর্ধমানের মেমারির পাল্লারোড পল্লীমঙ্গল সমিতি নামে একটি সংস্থা।

স্বল্প খরচে স্যানিটাইজার তৈরি করে তা ব্যবহারের পরামর্শ দিচ্ছেন  এই সমিতির সদস্যরা। হাতেকলমে তৈরি করাও শিখিয়ে দিচ্ছেন। একইসঙ্গে নিজেরাও তৈরি করে তা ব্যবহার করার জন্য দিচ্ছেন তাঁরা। সংস্থার তরফে সন্দীপন সরকার জানান, অযথা করোনা ভাইরাস নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। সতর্কতা ও সাবধানতা নেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। সেক্ষেত্রে তাঁরাও বারবার হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে হাত ধোয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন। বাজারে আপাতত এই পণ্যের অনেক দাম এবং আকাল বললেও ভুল হবে না! অনেক সময়ে গরীব মানুষের পক্ষে তা কেনাও সম্ভব না। তাই ঘরোয়া পদ্ধতিতে তৈরি করে কীভাবে ব্যবহার করা হয় এই হ্যান্ড স্যানিটাইজার? স্থানীয়দের শেখাচ্ছেন তাঁরা।

কীভাবে তৈরি করা যাবে এই স্যানিটাইজার?

সন্দীপনবাবুরা জানাচ্ছেন, গ্রামগঞ্জে প্রায় সকলের বাড়িতেই অ্যালোভেরা গাছ রয়েছে। তা দিয়েই স্যানিটাইজার তৈরি করা যায়। অ্যালোভেরা থেকে জেলটা বের করে নিতে হবে। তার সঙ্গে সার্জিক্যাল স্পিরিট (অ্যালকোহল) মিশিয়ে সহজেই তৈরি করা যায় স্যানিটাইজার। ৬০ ভাগ সার্জিক্যাল স্পিরিটের সঙ্গে ৪০ ভাগ অ্যালোভেরা জেল মিক্সিতে বা অন্য কোনওভাবে ভাল করে মেশালেই তৈরি হয়ে যাবে হ্যান্ড স্যানিটাইজার। আবার এতে সুগন্ধীও মেশানো যায়। সেক্ষেত্রে ডেটল বা স্যাভলন জাতিও কিছু মিশিয়ে নিলেও চলবে বলে জানাচ্ছেন ওই সংস্থার সদস্যরা। ঘরোয়া পদ্ধতিতে তৈরি এই স্যানিটাইজার কম খরচে তৈরি হলেও বাজারে কেনা জিনিসের মতি কার্যকরী বলেও দাবি করছেন সংস্থার সদস্যরা।

সংস্থার তরফে ইতিমধ্যে বেশ কিছু পরিমাণ স্যানিটাইজার এই পদ্ধতিতে তৈরি করে রাখা হয়েছে। কোথাও বাজারে স্যানিটাইজার অমিল হলে তাঁরা সাধারণ মানুষকে তা বিনামূল্যে সরবরাহ করবেন। আবার গ্রামের মানুষ চাইলেও তাঁরা দেবেন। ইতিমধ্যে স্যাম্পেল বিলিও করেছেন তাঁরা। নিজেরাও ব্যবহার করছেন। সংস্থার দাবি, বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নিয়ে ঘরোয়া পদ্ধতিতে এই স্যানিটাইজার তৈরি করেছেন তাঁরা।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement