৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, দুর্গাপুর: সৌজন্যের নজির গড়ল তৃণমূল ও বিজেপি। রাজ্যজুড়ে যখন একের পর এক শাসকদলের দলীয় কার্যালয় আক্রান্ত হচ্ছে তখন দুর্গাপুরে দখল হয়ে যাওয়া তৃণমূলের কার্যালয় দাঁড়িয়ে থেকে ফিরিয়ে দিল বিজেপি। দুর্গাপুরের ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের ফরিদপুর গ্রামে তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়ে তৃণমূলের প্রতীক মুছে তার উপর বিজেপির প্রতীক এঁকে দখল করে নেওয়া হয়। বুধবার সকালে দলীয় কার্যালয় দখল হয়ে যাওয়ায় ক্ষোভে ফেটে পড়ে স্থানীয় তৃণমূল কর্মীরা। খবর পৌঁছায় বিজেপির কানেও। বিজেপির জেলা নেতৃত্বের নির্দেশে স্থানীয় নেতৃত্ব ঘটনাস্থলে এসে তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়ে বিজেপির প্রতীক মোছার কাজ শুরু করেন। তৃণমূল ও বিজেপি কর্মীরা হাতে হাত মিলিয়েই এই কার্যালয় মুছে তৃণমূলের হাতে তুলে দেয়। রাজনৈতিক সৌজন্য বজায় রেখে তৃণমূলের কার্যালয় তুলে দেওয়া হয় শাসকদলের হাতে। স্থানীয় তৃণমূল নেতা দেবাশিষ মাঝি বলেন, “ভোট পরবর্তী হিংসা ছড়াতেই বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতিরাই পার্টি অফিস দখল করেছিল। পরে পুলিশের কাছে অভিযোগ করায় বিজেপির কর্মীরা এসে আমাদের কার্যালয় আমাদের ফিরিয়ে দেয়।”

অন্যদিকে স্থানীয় বিজেপি নেতা নিরঞ্জন মণ্ডল জানান, “তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের কারণেই পার্টি অফিস দখল করে এক গোষ্ঠী। কিন্তু বিজেপির বদনাম হচ্ছে দেখেই আমরা তৎপর হয়ে বিজেপির প্রতীক মুছে তা তুলে দিই তাদের।” এদিকে ইস্পাতনগরীতে বিজেপির পার্টি অফিস করাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়ায়। ডিএসপির জমিতে পার্টি অফিস করা নিয়ে বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব প্রকট হয়ে ওঠে। ইস্পাতনগরীর আযর্ভট্ট থেকে শোভাপুর অ্যাভিনিউয়ে যাওয়ার পথে রাস্তার ধারে বুধবার বিজেপির কর্মীরা পার্টি অফিস তৈরি শুরু করে। খবর পেয়ে পুলিশ এসে সেই অফিস বন্ধ করে দেয়। দলের একটিই পার্টি অফিস থাকবে বলে জানায় বিজেপির দুর্গাপুর মণ্ডলের নেতৃত্ব। কিন্তু তা অগ্রাহ্য করেই এই অফিস তৈরি হচ্ছিল বলে দলীয় কর্মীদের অভিযোগ।

ছবি: উদয়ন গুহরায়

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং