BREAKING NEWS

১০  আশ্বিন  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

জীবনতলায় গৃহবধূর রহস্যমৃত্যু, গণধর্ষণ ও খুনের অভিযোগে গ্রেপ্তার স্বামী

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 4, 2018 4:49 pm|    Updated: July 4, 2018 4:52 pm

Jibontala: Woman killed after gang-rape, husband held

ফাইল ছবি।

দেবব্রত মণ্ডল, দক্ষিণ ২৪ পরগনা:  বছর খানেকের দাম্পত্য জীবনে অশান্তির শেষ ছিল না৷ জোর করে একবার গর্ভপাতও করানো হয়েছিল বলে অভিযোগ৷ শেষপর্যন্ত, মারাই গেলেন দক্ষিণ ২৪ পরগনার জীবনতলার বছর উনিশের এক তরুণী৷ মৃতের বাপের বাড়ির লোকেদের অভিযোগ, ওই তরুণীকে গণধর্ষণ করেছে স্বামী ও তার বন্ধুরা৷ গণধর্ষণের পর খুন করা হয়েছে৷ মৃতার স্বামীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ৷

[বন্ধ ঘর থেকে উদ্ধার গৃহবধূর কম্বলচাপা মৃতদেহ, চাঞ্চল্য সোনারপুরে]

দক্ষিণ ২৪ পরগনার জীবনতলার নিয়ারগিরিতে বাপের বাড়ি আহুরজাহান লস্করের৷ কলেজে পড়ার সময়েই বিয়ে হয়ে গিয়েছিল তাঁর৷ পরিবারের লোকেরা জানিয়েছেন, বছর খানেক আগে আহুরজাহানের সঙ্গে রেজিস্ট্রি বিয়ে হয় কারিমুল্লা মোল্লার৷ পেশায় দর্জি কারিমুল্লার বাড়ি দক্ষিণ ২৪ পরগনার মহেশতলায়৷ মঙ্গলবার স্ত্রীকে বাপের বাড়িতে রেখে যায় কারিমুল্লা৷ রাতে মারা যান আহুরজাহান৷ তাঁর পরিবারের লোকেদের বক্তব্য, বিয়ের পরও পড়াশোনা চালিয়ে যাচ্ছিল ওই তরুণী৷ একবার জোর করে আহুরজাহানের গর্ভপাতও করিয়েছে কারিমুল্লা৷ সোমবার কলেজ থেকে ফেরার পথে স্ত্রীকে জোর করে বাসন্তীতে নিয়ে যায় সে৷ বাসন্তীর কাঁঠালবেড়িয়ায় ওই তরুণীকে গণধর্ষণ করে কারিমুল্লা ও তার বন্ধুরা৷ মঙ্গলবার যখন আহুরজাহানকে নিয়ে কারিমুল্লা জীবনতলায় শ্বশুরবাড়িতে আসে, তখন ওই তরুণী রীতিমতো অসুস্থ৷ মঙ্গলবার রাতে বাপের বাড়িতেই মারা যান আহুরজাহান৷ তাঁর মৃত্যুর পর কারিমুল্লা মোল্লাকে বেধড়ক মারধর করেন আহুরজাহানের বাপের বাড়ির লোক ও পাড়া-প্রতিবেশীরা৷ তাঁর বিরুদ্ধে জীবনতলা থানায় জোর করে গর্ভপাত, গণধর্ষণ ও খুনের অভিযোগে এফআইআর করা হয়েছে৷ অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ৷

[জগন্নাথ মূর্তিতে জুড়ে দেওয়া হয় হাত ও পা, অভিনব স্নানযাত্রা বর্ধমানের কালনায়]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে