BREAKING NEWS

২ কার্তিক  ১৪২৮  বুধবার ২০ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘রাজনীতি কবে ছাড়বেন মমতাদিদি?’, বাটলা হাউস এনকাউন্টার প্রসঙ্গ টেনে তোপ নাড্ডার

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: March 16, 2021 6:50 pm|    Updated: March 17, 2021 6:38 pm

WB Assembly Polls: JP Nadda attacks Mamata Banerjee with linked to Batla House encounter | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বঙ্গের ভোটযুদ্ধেও (WB Assembly Polls) ঢুকে পড়ল দিল্লির বাটলা হাউস এনকাউন্টার ইস্যু। মঙ্গলবার বাঁকুড়ার (Bankura) কোতুলপুরে নির্বাচনী প্রচারে এসে এই ইস্যুতেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তোপ দেগেছেন বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা (JP Nadda)। বাটলা হাউস শুটআউটে পুলিশ ইন্সপেক্টর হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্ত আরিজ খানের প্রসঙ্গ টেনে তাঁর কটাক্ষ, ”মমতাদিদি বলেছিলেন, বাটলা হাউসে ফেক এনকাউন্টার হলে উনি রাজনীতি ছেড়ে দেবেন। ওই ঘটনায় আরিজ খানকে তো ফাঁসির সাজা দিয়েছে আদালত। এখন কবে উনি রাজনীতি ছাড়বেন?” এদিনের সভা থেকে ফের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের বিদায়ের বার্তা দিয়েছেন তিনি।

বাটলা হাউস (Batla House) এনকাউন্টার কী এমন বিষয়, যা বাংলার নির্বাচনী যুদ্ধেও উঠে এল? জানতে হলে পিছিয়ে যেতে হবে অন্তত দেড় দশক। দিল্লির জামিয়া নগরে জঙ্গিদমনে নেমেছিল দিল্লি পুলিশ। যার পোশাকি নাম ছিল ‘অপারেশন বাটলা হাউস’। সেই অভিযানে খতম হয়েছিল ইন্ডিয়ান মুজাহিদিনের দুই জঙ্গি আরিফ আমিন এবং মহম্মদ সাজিদ। জঙ্গি সন্দেহে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল মহম্মদ সইফ এবং জিশানকে। ঘটনায় মৃত্যু হয়েছিল দিল্লি পুলিশ ইন্সপেক্টর তথা এনকাউন্টার স্পেশ্যালিস্ট মোহন চাঁদ শর্মার। অভিযুক্ত আরিজ খান (Ariz Khan) ছিল পলাতক। ঘটনায় বেশ কয়েকজন স্থানীয় বাসিন্দাদেরও গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। উত্তাল হয়েছিল রাজধানী।

[আরও পড়ুন: ‘কে বলেছে আমি তৃণমূলে? প্রধানমন্ত্রীর সভায় থাকব’, ফের বিস্ফোরক শিশির]

এরপর সম্প্রতি ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে স্নাতক আরিজ খানকে ফাঁসির সাজা শুনিয়েছে আদালত। বিরলের মধ্যে বিরলতম ঘটনা বলে অ্যাখ্যা দিয়েছেন বিচারকরা। নিহত পুলিশ ইনস্পেক্টর মোহন চাঁদ শর্মার হত্যাকাণ্ডে দোষী সাব্যস্ত ‘ইন্ডিয়ান মুজাহিদিন’-এর জঙ্গি আরিজ খানকে মৃত্যুর শাস্তি দেওয়া হয়েছে। সোমবার এই সাজা ঘোষণার পর মঙ্গলবারই এই ইস্যুতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Mamata Banerjee)বিঁধলেন জেপি নাড্ডা। বাঁকুড়ার কোতুলপুর থেকে ‘সম্মান যাত্রা’র উদ্বোধন করেন তিনি। সেই জনসভা থেকেই তৃণমূল সুপ্রিমোর উদ্দেশে কটাক্ষ করে বলেন, ‘‘উনি বাটলা হাউসে ফেক এনকাউন্টারের কথা বলেছিলেন, রাজনীতি ছেড়ে দেবেন বলেছিলেন। মমতাদিদি, কবে আপনি রাজনীতি ছাড়ছেন?”  প্রসঙ্গত, এ নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, সোনিয়া গান্ধীদের আগেই বিঁধেছিলেন আরেক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবিশংকর প্রসাদ। তৃণমূলের তরফে তার জবাবও দেওয়া হয়। তবে নাড্ডার মন্তব্য নিয়ে এখনও তৃণমূলের তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি। এছাড়া অনগ্রসর শ্রেণির হিন্দুদের উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন জেপি নাড্ডা। তিলি, মাহিষ্যদের এবার থেকে OBC তালিকায় আনা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

[আরও পড়ুন: ‘জনগণ দিন তালি, সব চেয়ার খালি’, বিজেপি নেতাদের ফাঁকা জনসভা নিয়ে শ্লেষ মমতার]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement