BREAKING NEWS

০২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ১৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

তিন জোড়া রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার আসছে শিলিগুড়িতে!

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: November 7, 2016 11:57 am|    Updated: November 7, 2016 11:57 am

Jungle safari can be start from December in Siliguri

ব্রতীন দাস, শিলিগুড়ি: রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার আসছে শিলিগুড়িতে! ডিসেম্বর থেকেই শুরু হচ্ছে বাঘ-সাফারি৷ শিলিগুড়ির শালুগাড়ার কাছে বেঙ্গল সাফারি পার্কেই এবার সংসার পাততে চলেছে তিন জোড়া রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার৷ অতিথিদের আসার আর বেশি দেরি নেই৷ তাই জোরকদমে চলছে তাদের ‘গৃহস্থালী’ সাজানোর কাজ৷

বেঙ্গল সাফারি পার্কের অধিকর্তা অরুণ মুখোপাধ্যায় বলেছেন, বাঘেদের থাকার জন্য নাইট শেল্টার তৈরির কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে৷ নিভৃতে তাদের বিচরণের জন্য তৈরি করা হচ্ছে নিজস্ব বাগান৷ বাঘেরা যাতে রোদ পোহাতে পারে, আবার সেখান থেকে পর্যটকরা তাদের দেখতেও পারেন, এমনটা মাথায় রেখেই তৈরি করা হচ্ছে কৃত্রিম পাহাড়৷ পরিখা কেটে জলের ব্যবস্থা করা হয়েছে এনক্লোজারের ভিতর৷ কোনও বাঘ অসুস্থ হয়ে পড়লে সঙ্গে সঙ্গে যাতে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা যায়, সেজন্য হাসপাতাল তৈরি করা হয়েছে৷ রয়েছেন চিকিৎসকও৷

বাঘেদের জন্য কুড়ি হেক্টর এলাকাজুড়ে এনক্লোজার তৈরি করা হচ্ছে বলে বেঙ্গল সাফারি পার্ক সূত্রে খবর৷ তবে এখানে শুধু পর্যটকদের মনোরঞ্জনের জন্যই যে বাঘ আনা হচ্ছে তা নয়৷ বন দফতর সূত্রের খবর, শিলিগুড়ির এই পার্কে  বাঘেদের প্রজনন কেন্দ্র গড়ে তোলার পরিকল্পনা রয়েছে৷ এর জন্য প্রয়োজন স্বাস্থ্যবান বাঘ৷ এক বনকর্তা জানিয়েছেন, “সুস্থ-সবল প্রজন্মের জন্য সংকরায়ণের মাধ্যমে প্রজনন ঘটানোর লক্ষ্য রয়েছে৷ সেকারণে বাইরের বাঘের সঙ্গে আলিপুর চিড়িয়াখানা কিংবা ঝড়খালির বাঘকে একসঙ্গে রাখা হবে৷”

ওড়িশার নন্দনকানন থেকে কয়েকমাস আগেই চারটি বাঘ আনা হয়েছে৷ বর্তমানে সেগুলির ঠিকানা কলকাতার আলিপুর চিড়িয়াখানা৷ ওই চারটি বাঘকে শিলিগুড়িতে আনা হচ্ছে বলে খবর৷ এ ছাড়াও ঝড়খালি, ডুয়ার্সের দক্ষিণ খয়েরবাড়ি ও আলিপুর চিড়িয়াখানা থেকেও বাছাই করে আরও দু’টি বাঘ আনার কথাবার্তা চলছে৷

রাজ্যের বনমন্ত্রী বিনয় বর্মন বলেছেন, “শিলিগুড়ির বেঙ্গল সাফারিতে ছ’টি রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার আনার পরিকল্পনা রয়েছে৷ পরিকাঠামো তৈরির কাজ চলছে৷ তা শেষ হলে শীঘ্রই বাঘ চলে আসবে৷ ডিসেম্বর থেকেই আমরা বাঘ-সাফারি চালুর চেষ্টা করছি৷”

শিলিগুড়ি থেকে পাহাড় ও ডুয়ার্সে যাওয়ার পথে ২৯৭ হেক্টর এলাকা জুড়ে গড়ে উঠেছে বেঙ্গল সাফারি পার্ক৷ আফ্রিকান সাফারির ধাঁচে গড়ে তোলা হচ্ছে পার্কটিকে৷ এখানে খাঁচায় নয়, সমস্ত বন্যপ্রাণী জঙ্গলে ছাড়া৷ ব্যাটারিচালিত বাসে চেপে ঘুরে দেখার ব্যবস্থা রয়েছে পর্যটকদের জন্য৷ তবে খুব শীঘ্রই এখানে হাতি সাফারিও চালু হয়ে যাওয়ার কথা, এমনটাই জানিয়েছেন পার্কের কর্তারা৷

ইতিমধ্যেই পার্কে চলে এসেছে গন্ডার৷ নদিয়ার বেথুয়াডহরি থেকে আনা হয়েছে পাঁচটি ঘড়িয়াল৷ রয়েছে তিন প্রজাতির হরিণ৷ বেশ কয়েক ধরনের পাখি ও লেসার ক্যাট৷ হাতি ও বাঘ এসে গেলে পার্কের আকর্ষণ অনেকটাই বেড়ে যাবে বলে মনে করছে কর্তৃপক্ষ৷

তবে শিলিগুড়িতে বাঘ আনতে তোড়জোড় চললেও বক্সার জঙ্গলে আদৌও বাঘ রয়েছে কি না তা নিয়ে এখনও বিতর্ক রয়ে গিয়েছে রাজ্যের বনকর্তাদের অন্দরেই৷ সাড়ে সাতশো হেক্টর এলাকাজুড়ে থাকা ওই জঙ্গলে বাঘের অস্তিত্বের প্রমাণ পেতে পঞ্চাশটি ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরা লাগিয়েছে বন দফতর৷ কিন্তু এখনও পর্যন্ত তাতে কোনও বাঘের ছবি ধরা পড়েনি৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে