BREAKING NEWS

০৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শুক্রবার ২০ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

রাজ্যে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ, বন্ধ হল কামারপুকুর রামকৃষ্ণ মঠ

Published by: Suparna Majumder |    Posted: April 27, 2021 4:18 pm|    Updated: April 27, 2021 8:48 pm

Kamarpukur Ramakrishna Mission closed due to increase of COVID-19 active cases in Bengal | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভোটের আবহে রাজ্যের করোনা (Corona Virus) পরিস্থিতি ক্রমেই উদ্বেগজনক হয়ে উঠছে। দ্রুত গতিতে ছড়াচ্ছে সংক্রমণ। এমন অবস্থায় ভক্তদের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হল কামারপুকুর রামকৃষ্ণ মঠ(Kamarpukur Ramakrishna Mission)। মঙ্গলবার মঠের পক্ষ থেকে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানানো হয়েছে একথা। জানানো হয়েছে, ২৮ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ভক্তদের জন্য বন্ধ থাকবে মঠের দরজা।

২০২০ সালের মার্চে প্রথম মারণ থাবা বসিয়েছিল বঙ্গে (West Bengal)। ভাইরাসের দাপট থেকে বাঁচতে জারি হয়েছিল লকডাউন। স্তব্ধ হয়ে গিয়েছিল জনজীবন। গণপরিবহণ থেকে ধর্মস্থান, সবকিছুই বন্ধ রাখা হয়েছিল করোনাকে রুখতে। রাজ্যের সমস্ত বড় ধর্মস্থান এবং প্রার্থনাস্থলগুলিও বন্ধ রাখা হয়েছিল। আনলক পর্যায়ে সব একে একে খুলতে শুরু করে। করোনা বিধি মেনেই ভক্তদের যাতায়ার শুরু করে। কিন্তু করোনার (COVID-19) দ্বিতীয় ঢেউ মারাত্মক আকার নেওয়ায় কিছুদিন আগেই ফের অনির্দিষ্ট কালের জন্য বেলুড় মঠ (Belur Math) বন্ধ রাখার কথা ঘোষণা করা হয়েছিল। হুগলির তারকেশ্বর মন্দিরের (Tarakeshwar Temple) গর্ভগৃহে প্রবেশও নিষিদ্ধ করা হয়েছে। হুগলির বাঁশবেড়িয়ায় হংসেশ্বরী মন্দিরেও ভক্তদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: সরকারি হাসপাতালে মেলেনি বেড, বিনা চিকিৎসায় বাড়িতেই মৃত্যু করোনা রোগীর! ]

এমন পরিস্থিতিতে এবার কামারপুকুর রামকৃষ্ণ মঠের দরজাও বন্ধ করা হল। এতদিন অবশ্য কোভিড বিধি মেনেই মঠের অন্দরে ভক্তরা প্রবেশ করতে পারবেন। কিন্তু সংক্রমণ যেভাবে বাড়ছে তাতে ভক্তদের সুরক্ষা বেশি প্রয়োজন। সেই কারণেই ২৮ এপ্রিল পর্যন্ত মঠ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তারপর পরিস্থিতি বুঝে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।

এদিকে করোনার কোপ পড়েছে উত্তরবঙ্গের পর্যটনেও। পাহাড়প্রেমীদের অত্যন্ত পছন্দের স্থান পশ্চিম দার্জিলিংয়ের মিরিক লেক। হাজার হাজার মানুষের সেখানে যান প্রকৃতির অপরূপ শোভা দেখতে। কিন্তু অতিমারীর এই কঠিন সময়ে তা আর সম্ভব নয় বলেই জানা গিয়েছে। করোনার কারণেই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে মিরিক লেক (Myrick Lake)। এদিকে, গত কয়েকদিনের মতো সোমবারও ঊর্ধ্বমুখী ছিল বাংলার করোনা গ্রাফ। চিন্তা বাড়াচ্ছে ক্রমাগত বাড়তে থাকা অ্যাকটিভ কেস। সোমবার স্বাস্থ্যদপ্তরের দেওয়া বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার কবলে পড়েছেন ১৫,৯৯২ জন। সোমবারের হিসেব অনুযায়ী করোনায় চিকিৎসাধীন মানুষের সংখ্যা ছিল ৯৪ হাজার ৯৪৯। এমন পরিস্থিতিতে আগামী ২৭ এপ্রিল থেকে ৭ মে পর্যন্ত সল্টলেকের নিকো পার্ক কর্তৃপক্ষ তাদের অ্যামিউজমেন্ট পার্ক এবং ওয়াটার পার্কও বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।  তারপর পরিস্থিতি বুঝে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। 

[আরও পড়ুন: উদ্বৃত্ত ভ্যাকসিন ফেরত চাইল সরকার, রাজ্যের বেসরকারি ক্ষেত্রে অনিশ্চিত টিকার দ্বিতীয় ডোজ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে