BREAKING NEWS

১৪ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বুধবার ১ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

রাজ্যজুড়ে বেড়েই চলেছে ডেঙ্গুর প্রকোপ, নতুন করে আরও ৩ জনের মৃত্যু

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: November 8, 2019 2:19 pm|    Updated: November 8, 2019 3:08 pm

Killer dengue claims three more lives in North 24 Parganas

ব্রতদীপ ভট্টাচার্য ও কলহার মুখোপাধ্যায় : ডেঙ্গুর কোপে রাজ্যে মৃত্যু বেড়েই চলেছে। উত্তর ২৪ পরগনার বিভিন্ন জায়গায় অন্তত ৩ জনের প্রাণ কেড়েছে ডেঙ্গু। দেগঙ্গায় কলেজ ছাত্রী পাপিয়া খাতুন বেশ কয়েকদিন ধরে জ্বরে ভুগছিলেন। পরে তাঁর মৃত্যু হয় হাসপাতালে। পরিবারের অভিযোগ, ডেঙ্গুতেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে। হাবড়াতেও এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। তাঁর শরীরেরও ডেঙ্গুর জীবাণু বাসা বেঁধেছিল বলে রক্ত পরীক্ষায় জানা গিয়েছে।  ডেঙ্গুতে প্রাণ গিয়েছে উত্তর ২৪ পরগনার রাজারহাট এলাকায় চাঁদপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের আরও এক যুবকের।

দেগঙ্গার বাসিন্দা পাপিয়া খাতুন বেড়াচাঁপা সহিদুল্লাহ কলেজের বিএ তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী ছিলেন। পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, সাতদিন আগে জ্বর, গা-হাত-পা ব্যাথা নিয়ে বিশ্বনাথপুর প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে যান পাপিয়া। সেখানে চিকিৎসা করিয়ে বাড়িতে ফেরেন তিনি। এরপর ফের বমি-সহ অন্যান্য উপসর্গ দেখা দিতে আবার বিশ্বনাথ পুর প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়ার পরে বারাসত হাসপাতালে রেফার করা হয়।বারাসত থেকে আবার পাপিয়াকে রেফার করা হয় আরজি কর হাসপাতালে। সেখানেই বৃহস্পতিবার দুপুরে মৃত্যু হয় এই কলেজ ছাত্রীর। বাড়ির মেয়ের মৃত্যুর খবর দেগঙ্গায় পৌঁছতেই শোকের ছায়া পরিবার, প্রতিবেশীদের মধ্যে। আর এই মৃত্যুর খবরে নতুন করে আতঙ্কে স্থানীয় বাসিন্দারা।

[ আরও পড়ুন: মঞ্চে উঠতে দেরি, বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ে চূড়ান্ত হেনস্তার শিকার কার্তিক দাস বাউল]

হাবড়াতেও সবিতা কুণ্ডু নামে এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। গণদীপায়ন এলাকার বাসিন্দা সবিতাদেবীর পরিবার সূত্রে খবর, ২৭ অক্টোবর থেকে তিনি জ্বরে ভুগছিলেন। তাঁর শরীরেও ডেঙ্গুর উপসর্গ দেখা গিয়েছিল। ৩০ তারিখ হাবড়া হাসপাতালে রক্ত পরীক্ষা করে তাঁর শরীরের এনএস ওয়ান জীবাণুর অস্তিত্ব পাওয়া যায়। এরপর তাঁকে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করার পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা। সেখানে বুধবার রাতে মৃত্যু হয় সবিতাদেবীর। 

আরেকদিকে রাজারহাটের চাঁদপুরের বাসিন্দা, বছর সাতাশের যুবক রবিউল ইসলাম বৃহস্পতিবার সকালে জ্বর নিয়ে ভরতি হয়েছিলেন বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে। তাঁর রক্তপরীক্ষায় এনএস ওয়ান পজিটিভ মিলেছে। গতকাল সন্ধেবেলায় তাঁর মৃত্যু হয়। মরশুম বদলের সময়ে এভাবেই মশাবাহিত রোগ ডেঙ্গুর প্রকোপ বাড়ছে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে।

[ আরও পড়ুন: খড়দহ ও সোদপুরের মাঝে রেললাইনে ফাটল, ব্যাহত ট্রেন চলাচল]

দিন কয়েক আগে ডেঙ্গু প্রতিরোধে কাজ করতে গিয়ে মৃত্যু হয়েছে এক পুর আধিকারিকের। মারা গিয়েছেন কলকাতা পুলিশের এক মহিলা কনস্টেবলও। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, উপসর্গ বদলে নতুন রূপে ফিরে এসেছে ডেঙ্গু। এমনকী পরিচিত ওষুধও কাজ করছে না। নতুন ওষুধের সন্ধান চলছে। এই পরিস্থিতিতে ডেঙ্গুর মতো রোগ যে বেশ উদ্বেগে ফেলছে রাজ্যবাসীকে, তা বোঝাই যাচ্ছে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে