Advertisement
Advertisement

এবার ভিডিও কলে কলেজ ছাত্রীকে মোমো চ্যালেঞ্জ খেলার আহ্বান!

পড়ুয়া ও অভিভাবকদের সতর্ক থাকার বার্তা সিআইডির।

Killer Momo knocks Jalpaiguri student’s mobile
Published by: Tanumoy Ghosal
  • Posted:August 27, 2018 2:17 pm
  • Updated:August 27, 2018 2:19 pm

শ্রীকান্ত পাত্র ও শান্তনু কর: এবার আর মেসেজ নয়, সরাসরি ভিডিও কল করে মোমো চ্যালেঞ্জ খেলার আহ্বান! ফের আতঙ্ক ছড়াল জলপাইগুড়িতে। পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছেন ধূপগুড়ির এক কলেজ ছাত্রী। পশ্চিম মেদিনীপুরের চন্দ্রকোণায়ও এক কলেজ ছাত্রের মোবাইলে মারণগেমের লিংক এসেছে বলে জানা গিয়েছে। এদিকে রাজ্যের মোমো প্রসারের ঘটনায় উদ্বিগ্ন সিআইডি। সোশ্যাল মিডিয়ায় সচেতনতামূলক প্রচার শুরু করেছে রাজ্য গোয়েন্দা সংস্থা।

[ মোমো আতঙ্কের গ্রাসে উত্তরবঙ্গ, মারণগেমের লিংক পৌঁছল আরও তিনজনের কাছে]

Advertisement

মোমো চ্যালেঞ্জ গেম। অনলাইনে গেমের আড়ালে আত্মহত্যার প্ররোচনা। মোবাইলে অচেনা নম্বর থেকে মোমো পরিচয়ে মেসেজ কিংবা লিংক আসছে। ছড়াচ্ছে আতঙ্ক। এ রাজ্যে জলপাইগুড়ি শহরে প্রথম মোমো গেমের খপ্পরে পড়েছিলেন এক কলেজ ছাত্রী। অচেনা নম্বর থেকে মেসেজ পেয়ে পুলিশের অভিযোগ দায়ের করেছিলেন তিনি। আর এবার মারণ গেমের আতঙ্ক ছড়াল ওই জেলারই ধূপগুড়িতে। তবে এবার মেসেজ কিংবা লিংক নয়, ভিডিও কল! ধূপগুড়ির সুকান্ত মহাবিদ্যালয়ের এক ছাত্রীর দাবি, রবিবার দুপুরে তাঁর মোবাইলে একটি ভিডিও কল আসে। কলটি রিসিভ করার সঙ্গে সঙ্গেই স্ক্রিনে ভেসে ওঠে অদ্ভুতদর্শন এক প্রাণীর ছবি। ভয়ে ফোন কেটে দেন ওই কলেজ ছাত্রী। সোমবার ধূপগুড়ি থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি।

Advertisement

পশ্চিম মেদিনীপুরের চন্দ্রকোণায় এক কলেজে ছাত্রের মোবাইলে মোমো লিংক এসেছে বলে জানা গিয়েছে। ওই ছাত্রের নাম মণিরুল হক খান। বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকোত্তরের ছাত্র তিনি। চন্দ্রকোণার মহেশপুর গ্রামের যুবক মণিরুলের দাবি, দিন কয়েক আগে কলকাতায় গিয়েছিলেন তিনি। কলকাতা থেকেই একটি জিও সিম কেনেন। রবিবার দুপুরে জিও নম্বরে মোমো পরিচয় দিয়ে মেসেজ করা হয়। তাঁকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকিও দেওয়া হয়। চন্দ্রকোণা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন মণিরুল হক খান। এদিকে আবার বীরভূমের পাড়ুইয়েও ছড়িয়েছে মোমো আতঙ্ক।

[ দাম্পত্য কলহের জের, স্ত্রীকে কুপিয়ে আত্মঘাতী যুবক]

রাজ্যে মোমো আতঙ্ক নিয়ে উদ্বিগ্ন সিআইডি। টুইট করে রাজ্যবাসীকে সতর্ক করেছেন রাজ্য গোয়েন্দা সংস্থার আধিকারিকরা। অভিভাবকদের উদ্দেশে সিআইডি-র আবেদন, সন্তানদের উপর নজর রাখুন। মোবাইলে  অচেনা নম্বর থেকে কোনও মেসেজ বা লিংক এলেই অভিযোগ দায়ের করুন থানায়। জানা গিয়েছে, এখনও পর্যন্ত মোমো সংক্রান্ত সবচেয়ে বেশি অভিযোগ জমা পড়েছে উত্তরবঙ্গে। সংশ্লিষ্ট থানাগুলির সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন গোয়েন্দারা।

 

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ