×

৫ ফাল্গুন  ১৪২৫  সোমবার ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
নিউজলেটার

৫ ফাল্গুন  ১৪২৫  সোমবার ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সুরজিৎ দেব, ডায়মন্ড হারবার: এলাকায় নতুন করে গজে উঠেছে মদের দোকান। আর সেই মদের দোকানকে কেন্দ্র করেই এলাকায় বাড়ছে সমাজবিরোধীদের তাণ্ডব। প্রতিবাদে রবিবার বেশ কয়েক ঘণ্টা বিক্ষোভ দেখালেন দক্ষিণ ২৪ পরগণার মন্দিরবাজার এলাকার বাসিন্দারা। নষ্টের গোড়া মদের দোকানটিকেই বন্ধ করতে চান স্থানীয়রা। রবিবার মদের দোকানের সামনে ঘন্টার পর ঘন্টা চলে বিক্ষোভ। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় মন্দিরবাজার থানার পুলিশ। কিন্তু তাদেরও ঘেরাও করে রাখেন স্থানীয়রা।

[ইভটিজারদের হামলায় চুল হলুদ, নতুন উপদ্রব উত্তরপাড়ায়]

নতুন গজিয়ে ওঠা একটি মদের দোকানকে কেন্দ্র করে প্রতিদিনই অশান্তি বাড়ছে মাধবপুর স্টেশন থেকে যাদবপুর হাট পর্যন্ত এলাকায়। এলাকার মহিলারা চান না গ্রামে কোনও মদের দোকান থাকুক। এই মদের দোকান থাকার কারণেই এলাকায় বাড়ছে সমাজ বিরোধীদের দাপাদাপি। অত্যাচারিত হচ্ছেন মহিলারা। রাস্তায় চলাচল করতে ভয় পাচ্ছেন সাধারণ মানুষ। অবাধে চলছে চুরি, ছিনতাই। পুলিশ ও আবগারি দপ্তরকে জানিয়েও কাজের কাজ কিছুই হয়নি।

[সরস্বতী পুজোয় বেড়াতে যেতে দেননি মা, অভিমানে আত্মঘাতী ছাত্রী]

তাই রবিবার সকাল থেকেই মদের দোকানটির সামনে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন এলাকার মানুষ। বিশেষ করে এই আন্দোলনে মহিলাদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। বিক্ষোভের খবর পেয়ে পুলিশ এলে আন্দোলনকারীরা পুলিশকে ঘেরাও করে রাখেন। প্রায় ৩ ঘন্টা ধরে বিক্ষোভকারীদের হাতে ঘেরাও হয়ে থাকেন মন্দিরবাজার থানার পুলিশকর্মীরা। আন্দোলনের নেতৃত্ব দেয় স্থানীয় একটি সমাজ কল্যাণ কমিটি। তাঁদের দাবি, অবিলম্বে এলাকায় শান্তি ফেরাতে ব্যবস্থা নিক প্রশাসন। বন্ধ করে দেওয়া হোক মদের দোকানটিও। পুলিশ প্রশাসনের কাছে একটি লিখিত প্রতিবাদপত্রও পেশ করেন আন্দোলনকারীরা। সম্প্রতি নদিয়া এবং উত্তর ২৪ পরগনাতেও মদের দোকান বন্ধের দাবিতে, একই রকমভাবে পথে নেমেছিলেন মহিলারা। এমনকী আইন হাতে তুলে নিয়ে মদের দোকান ভেঙে দেওয়ার দৃষ্টান্তও আছে। একের পর এক এই ধরনের ঘটনার পরও কেন চোখ খুলছে না প্রশাসনের, সেটাই লাখ টাকার প্রশ্ন।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং