Advertisement
Advertisement

আরও প্যাঁচে মোর্চা, গুরুং-রোশনের নামে জারি লুক আউট নোটিস

পুলিশের ধরপাকড়ে ভেস্তে গেল মোর্চার বৈঠক।

Lookout notice issued against GJM supremo Bimal Gurung and Roshan Giri
Published by: Sangbad Pratidin Digital
  • Posted:September 1, 2017 11:46 am
  • Updated:October 1, 2019 3:12 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আরও প্যাঁচে বিমল গুরুং। গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার সভাপতির বিরুদ্ধে এবার লুক আউট নোটিস জারি করল রাজ্য প্রশাসন। অর্থাৎ, তাঁকে যে কোনও মুহূর্তে গ্রেপ্তার করা হবে। আর এক মোর্চা শীর্ষ নেতা রোশন গিরিও পুলিশের ব়্যাডারে। এদিন বিমল গুরুংয়ের ডাকা বৈঠকে যোগ দিতে গিয়ে পুলিশের হাতে ধরা পড়েছেন মোর্চার বেশ কয়েকজন নেতা। অল্পের জন্য তদন্তকারীদের ফাঁস কেটে বেরিয়ে যান গুরুং।

[বিমল-বিনয় বিবাদে বনধের ফাঁসেই পাহাড়, মৃত্যু মোর্চা সমর্থকের]

দার্জিলিংয়ে জোড়া বিস্ফোরণের জেরে তাঁর বিরুদ্ধে ইউএপিএ ধারায় মামলা রুজু হয়েছিল। এবার যে কোনও মুহূর্তে বিমল গুরুংকে গ্রেপ্তার করা হবে। পুলিশ সূত্রে খবর, দার্জিলিং-সিকিমের সীমানা লাগোয়া কোনও জায়গায় রয়েছেন মোর্চা সভাপতি। ধরপাকড় এড়াতে প্রায়ই তিনি ডেরা বদলাচ্ছেন। গোপন আস্তানা থেকে নিয়মিত সংবাদমাধ্যমের কাছে পাঠাচ্ছেন অডিও টেপ। গুরুংকে ঘিরতে তাঁর সাঙ্গোপাঙ্গদের এক এক করে ধরতে শুরু করেছে পুলিশ। বিনয় তামাংয়ের ক্ষেত্রে কী কৌশল নেওয়া হবে? এই নিয়ে সিকিমের নামচিতে বিমল গুরুং সহকর্মীদের বৈঠকে ডেকেছিলেন। কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠক ডাকা হয়েছিল সিকিমের নামচি লাগোয়া মাঝিটার এলাকায়। সেখানে  যোগ দিতে গিয়ে পুলিশের জালে ধরা পড়েন মোর্চার ১৪ জন নেতা, কর্মী। তাঁদের মধ্যে রয়েছেন সাবিত্রী রাই, সমর অধিকারীর মতো নেতারা। পুলিশের দাবি ওই বৈঠকে বিমল গুরুং, প্রকাশ গুরুংরা উপস্থিত ছিলেন। তল্লাশি আঁচ করে মোর্চার শীর্ষ নেতারা পালিয়ে যান। পুলিশের অভিযান এবং দলীয় নেতাদের গ্রেপ্তারির জেরে মোর্চার এদিনের বৈঠক ভেস্তে যায়। গুরুং এবং রোশন গিরির নামে লুক আউট নোটিস জারি হওয়ায় যে কোনও সীমান্ত বা দেশের কোনও জায়গা পুলিশ তাঁকে গ্রেপ্তার করতে পারবে।

Advertisement

[‘ভারতে উড়বে ইসলামিক পতাকা, মোদি রুখতে পারবেন না’]

সূত্রের খবর, গুরুং এবং রোশন গিরিকে ধরতে প্রশাসন সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপানোয় মোর্চার অন্দরে ঠান্ডা স্রোত বইছে। পুলিশের ধরপাকড়ের ভয়ে এখন মোর্চার বেশ কিছু নেতা অন্তরালে। এই অবস্থায় কোন পথে আন্দোলন চলবে তা নিয়ে সংশয়ে মোর্চা কর্মী, সমর্থকরা। গুরুংয়ের নির্দেশে বিনয় তামাং কার্যত নজরবন্দি হওয়ায় সাধারণ মোর্চা সমর্থকদের মধ্যে বিভ্রান্তি বাড়ছে।

Advertisement

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ