৫ ফাল্গুন  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

দেবব্রত মণ্ডল, বারুইপুর: স্কুলের পোশাকে লোগো হিসাবে পদ্মফুলের ব্যবহারকে কেন্দ্র করে সরগরম গোটা এলাকা। লোকের মুখে মুখে ঘুরছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার সোনারপুরের রানিয়া অবৈতনিক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কথা। লোগোর প্রতিবাদে শুক্রবার স্কুলের সামনে বিক্ষোভ দেখান অভিভাবকরা। এই ঘটনার সঙ্গে বিজেপির যোগসাজশ দেখছেন অনেকেই। যদিও গেরুয়া শিবির তাদের দাবি খারিজ করেছে। এদিকে, অভিভাবকদের বিক্ষোভে ভুল স্বীকার কর্তৃপক্ষের।

প্রায় দশ বছর ধরে একইরকমের স্কুলের পোশাক ব্যবহার করা হয় দক্ষিণ ২৪ পরগনার সোনারপুরের রানিয়া অবৈতনিক প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। বহু বছর পর সেই স্কুলের পোশাক নিয়ে তৈরি হল বিতর্ক। স্কুলের পোশাকে জ্বলজ্বল করছে পদ্মফুলের লোগো। তা নজরে আসতেই উত্তেজিত হয়ে পড়েন অভিভাবকরা। শুক্রবার স্কুলের সামনে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন তাঁরা। অভিভাবকদের অভিযোগ, স্কুলের পরিচালন কমিটি নিজের সিদ্ধান্তেই এই লোগো ব্যবহার করেছে। এর সঙ্গে নিশ্চয়ই বিজেপির যোগসাজশ রয়েছে।

[আরও পড়ুন: ‘৬ বছর নষ্ট করলে কেন?’ প্রেমদিবসে প্ল্যাকার্ড নিয়ে শ্বশুরবাড়ির সামনে ধরনায় যুবক]

সরকারি নিয়মানুযায়ী সর্বশিক্ষা মিশনের লোগো অবশ্যই ব্যবহার করতে হবে। যদি কোনও স্কুলের নিজস্ব কোনও লোগো থাকে তাহলে তারা সর্বশিক্ষা মিশনের লোগোর পাশে স্কুলের নিজস্ব লোগো লাগাতে পারেন। তবে স্কুলের নিজস্ব লোগোটি স্কুলের সমস্ত নথিপত্রে ব্যবহার করতে হবে। এক্ষেত্রে স্কুল লোগো ছাত্রছাত্রীদের জামা ছাড়া অন্য কোথাও নেই। বিষয়টি সম্পুর্ণ বেআইনি বলেই জানিয়েছে সোনারপুর ব্লক স্কুল শিক্ষাদপ্তর৷ স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকা অবশ্য ভুল মেনে নিয়ে দ্রুত সংশোধন করার আশ্বাস দিয়েছেন৷ আলোচনা করে সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিয়েছেন স্কুলের প্রধানশিক্ষিকাও।

এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক আকচাআকচি। তৃণমূলের তরফে স্কুলের লোগো বিতর্কের নেপথ্যে গেরুয়া শিবিরকে দায়ী করা হচ্ছে। পালটা অভিযোগ খারিজে ব্যস্ত বিজেপি। দলীয় নেতাকর্মীদের দাবি, এই ঘটনার সঙ্গে বিজেপির কোনও যোগাযোগ নেই।

ছবি: বিশ্বজিৎ নস্কর

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং