২২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  সোমবার ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

বাবলু হক, মালদহ: দিল্লিগামী ফরাক্কা এক্সপ্রেস ট্রেনের এসি কামরার ছাদে উঠে আত্মঘাতী হলেন এক যুবক। ওভারহেডের তার ধরে ফেলার ফলে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হয় তাঁর। ঘটনার জেরে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে মালদহ টাউন স্টেশনের এক নম্বর প্লাটফর্মে। ইতিমধ্যেই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

মালদহ টাউন স্টেশনের জিআরপি সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃতের নাম নাম বিনোদ ভুঁইয়া। তাঁর বাড়ি ঝাড়খণ্ডের রাচি এলাকায়। আত্মীয়ের বিয়ে উপলক্ষে দুদিন আগে সপরিবারে মালদহ শহরে এসেছিলেন বিনোদবাবু। রবিবার ফারাক্কা এক্সপ্রেসে বিনোদ ভুঁইয়া, তাঁর স্ত্রী এবং পরিবারের লোকরা দিল্লি যাওয়ার জন্য মালদহ টাউন স্টেশনে এসেছিলেন। সেই সময় আচমকা ১ নম্বর প্লাটফর্মে দাঁড়িয়ে থাকা মালদহ-ফরাক্কা এক্সপ্রেস ট্রেনের মাঝামাঝি একটি কামরার ছাদে উঠে পড়েন বিনোদবাবু। এরপরই সকলের অলক্ষ্যে রেলের ওভারহেড তার ধরে ফেলেন তিনি। হাজার ভোল্টের ওভারহেড তারের বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যান ওই যুবক। ঝলসে যায় তাঁর শরীর। বিদ্যুতের ঝটকায় ট্রেনের ছাদ থেকে প্ল্যাটফর্মের নিচে ছিটকে পড়েন বিনোদ। এরপর এই রেল কর্তৃপক্ষ তড়িঘড়ি ওই ব্যক্তিকে উদ্ধারের জন্য ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। 

সংকটজনক অবস্থায় রেল পুলিশ তাঁকে উদ্ধার করে মালদহ মেডিক‍্যাল কলেজ হাসপাতালে ভরতি করে। চিকিৎসা শুরুর পর চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন ওই যুবকের শরীরের ৯০ শতাংশ পুড়ে গিয়েছে। ফলে তাঁকে বার্ন ইউনিটের ভেন্টিলেশনে রাখা হয়। পরে সোমবার ভোরে হাসপাতালেই মৃত্যু হয় তাঁর। প্রাথমিক তদন্তে রেল পুলিশ জানতে পেরেছে, স্ত্রীর সঙ্গে মনোমালিন্যের কারণেই আত্মঘাতী হয়েছেন ওই যুবক। 

তবে কী স্টেশনে আসার পরই কিছু হয়েছিল?  কী ঘটনা ঘটল যাতে ওই ব্যক্তি নিজেকে আত্মহত্যার জন্য এমন পদক্ষেপ নিলেন? এব্যাপারে জখম ওই ব্যক্তির পরিবারের লোকদের জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে রেল পুলিশ। যদিও পরিবারের পক্ষ থেকে এখনই এই ব্যাপারে নির্দিষ্ট ভাবে কিছু জানানো হয়নি‌।

[আরও পড়ুন: রাজ্য মন্ত্রিসভায় গুরুত্ব বাড়ল সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের, দায়িত্ব ফিরে পেলেন দপ্তরহীন ২ মন্ত্রী]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং