BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘৫৪৩টি আসনেই শূন্য পাবে বিজেপি’, নির্বাচনী জনসভায় চ্যালেঞ্জ মমতার

Published by: Sayani Sen |    Posted: April 9, 2019 1:54 pm|    Updated: April 17, 2019 4:00 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বাংলায় যে বিজেপি একটিও আসন পাবে না, আত্মপ্রত্যয়ের সুরে আগেই জানিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ কিন্তু রায়গঞ্জের সভা থেকে অন্যান্য রাজ্যে গেরুয়া শিবির ঠিক কেমন ফল করতে পারে, তা নিয়েও কার্যত চ্যালেঞ্জ করলেন তিনি৷ তাঁর দাবি, কোনও আসনে জয় তো দূরের কথা৷ নির্বাচনের পর নাকি অস্তিত্ব সংকটেও ভুগতে পারে গেরুয়া শিবির৷ নির্বাচনী সভা থেকে এই মন্তব্য করে বিজেপিকে চ্যালেঞ্জের মুখে ফেললেন তৃণমূল নেত্রী৷ 

[ আরও পড়ুন: ‘জামাই’ কটাক্ষের জবাব প্রচারে, সমাবেশ থেকেই তৃণমূলকে চ্যালেঞ্জ আলুওয়ালিয়ার]

দ্বিতীয় দফায় আগামী ১৮ এপ্রিল রায়গঞ্জে ভোটাভুটি৷ তার আগে তৃণমূল প্রার্থী কানাইয়ালাল আগরওয়ালের প্রচারে নির্বাচনী জনসভা করলেন তৃণমূল নেত্রী৷ মোদি সরকারের আমলে নোটবন্দি যে সবচেয়ে বড় দুর্নীতি, ফের সেকথা উল্লেখ করে বক্তব্য শুরু করেন৷ মোদির বায়োপিক থেকে গোরক্ষার নামে গণপ্রহারে খুন, পুলওয়ামার জঙ্গিহামলায় সেনা জওয়ানদের শহিদ হওয়া একের পর এক নানা ইস্যুতেই মোদিকে একহাত নেন মুখ্যমন্ত্রী৷ উত্তরবঙ্গের একাধিক জনসভা থেকে বাংলায় বিজেপি হারবে বলেই জানিয়েছেন রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান৷ কিন্তু এবার আর শুধু রাজ্য নয়৷ বাংলার ৪২টি আসনের বাইরেও উত্তরপ্রদেশ, রাজস্থান, বিহার, গুজরাট, পাঞ্জাব, তামিলনাড়ু-সহ বাকি সবকটি আসনেই বিজেপি হারবে বলেই দাবি করেন মুখ্যমন্ত্রী৷ ভোটের পর গেরুয়া শিবির ধুয়ে মুছে সাফ হয়ে যাবে বলে বক্তব্য তাঁর৷ 

[ আরও পড়ুন: গনি খানের নাম ভাঙিয়ে আর কতদিন? ভোটারের প্রশ্নে মেজাজ হারালেন ডালুবাবু]

এর আগের নির্বাচনী ফলাফলের দিকে নজর রাখলেই বোঝা যাবে যে রায়গঞ্জে কখনও সিপিএম, কখনও কংগ্রেসই ক্ষমতা দখল করেছে৷ কংগ্রেস-বামেদের বিরুদ্ধে তাঁর অভিযোগ, বারবার বিপুল ভোটে জয়ী হলেও, এলাকার উন্নয়নে কোনও নজর দেয়নি তারা৷ কংগ্রেস-বামেদের ঘাঁটিতে দলীয় প্রার্থীর হয়ে প্রচারে গেলেও, দলনেত্রীর আক্রমণের নিশানায় ছিল বিজেপি৷ বাম-কংগ্রেস নয়, নির্বাচনে গেরুয়া শিবিরই যে সবচেয়ে বড় ফ্যাক্টর, তা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আক্রমণ স্পষ্ট বলেই মত রাজনৈতিক মহলের৷ রাজ্য সরকারের উন্নয়নের খতিয়ান এবং কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে বাংলাকে বঞ্চনার অভিযোগ তুলে তৃণমূল প্রার্থীকে ভোট দেওয়ার আহ্বানও জানান দলনেত্রী৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement