BREAKING NEWS

১৪ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বুধবার ১ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘ক্ষমতা থাকলে বাংলায় এনআরসি করে দেখাক’, মোদিকে চ্যালেঞ্জ মমতার

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: April 8, 2019 3:46 pm|    Updated: April 8, 2019 3:46 pm

Mamata Banerjee challenges Narendra Modi on NRC

বিক্রম রায়, কোচবিহার: দলের ইস্তেহারে যখন দেশের জুড়ে এনআরসির চালু করার কথা বলছে বিজেপি, তখন এই ইস্যুতেই কেন্দ্রীয় সরকার চ্যালেঞ্জ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কোচবিহারের জনসভায় তাঁর হুঁশিয়ারি, ‘এনআরসি পুরোটাই ভাঁওতা। অসমে ৪০ লক্ষ মানুষের নাম বাদ দিয়েছে। বাংলার এনআরসি করতে দেব না। ক্ষমতা থাকলে করে দেখাক।’ শুধু তাই নয়, কোচবিহারে বিজেপি প্রার্থীকে অস্ত্র পাচারকারী বলেও কটাক্ষ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

[ আরও পড়ুন: আস্থা ভোটে হার, ভাটপাড়া পুরসভার চেয়ারম্যানের পদ থেকে অপসারিত অর্জুন সিং]

যেদিন শিলিগুড়ি নির্বাচনী জনসভা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, সেদিন কোচবিহারে দিনহাটার পালটা সভা ছিল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়েরও। মোদি যে ইস্যুগুলি তুলে আক্রমণ করেছিলেন, প্রত্যেকটির পালটা দিয়েছিলেন মমতাও। সেই থেকে লাগাতার উত্তরবঙ্গেই জনসভা করে যাচ্ছেন তিনি। সোমবার তো আবার সভা করলেন দু’জায়গায়। সকালে জলপাইগুড়ির নাগরাকাটায়, আর দুপুরে কোচবিহার শহরের রাসমেলার মাঠে জনসভা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দুটি জনসভায় তীব্র ভাষা আক্রমণ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে।

শিলিগুড়িতে তাঁকে উন্নয়নের ‘স্পিডব্রেকার’ বলে কটাক্ষ করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এদিন কোচবিহারে সভার শুরুতেই তৃণমূল জমানায় উত্তরবঙ্গ কী কী কাজ হয়েছে, তার খতিয়ান তুলে ধরেন মুখ্যমন্ত্রী। বলেন, ‘দিল্লির বাবুরা নন, কোচবিহারকে হেরিটেজ শহর করেছে এ রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেসের সরকারই।’ কোচবিহারে কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় ও মেডিক্যাল কলেজে তৈরি করে দিয়েছে সরকার। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কটাক্ষ, ‘এই নির্বাচন দিল্লি সরকার পরিবর্তনের নির্বাচন। অথচ ফ্যাসিবাদী ঔদ্ধত্যপূর্ণ প্রধানমন্ত্রী তাঁর কাছে কৈফিয়ত তলব করছেন!’ মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, ‘সারদা-নারদা কেলেঙ্কারি হয়েছে সিপিএম জমানায়। ছয় বছর ধরে তদন্ত চালিয়েও অভিযুক্তদের ধরতে পারেনি কেন্দ্রীয় সরকার। উলটে অভিযুক্তদের পাশে বসিয়ে মিটিং করছেন প্রধানমন্ত্রী।” রীতিমতো স্লোগান দেওয়ার ঢঙে বলেন, ‘সারদা-নারদা-হাওয়ালা মোদির বাঁশিওয়ালা।’

লোকসভা ভোটে মুখে কলকাতা পুলিশ কমিশন-সহ রাজ্যের পুলিশকর্তাদের রদবদল নিয়ে কমিশনের সঙ্গে রাজ্যের সংঘাত চরমে। সোমবার জনসভায় নিজের ভাষণে সেই প্রসঙ্গও তোলেন মুখ্যমন্ত্রী। বলেন, ‘দু’একজন অফিসারকে বদল করে কোনও লাভ হবে না। মনে রাখবেন, যাঁরা রয়েছেন, তাঁরাও আমাদের অফিসার। আর যাঁরা আসবেন, তাঁরা জানেন কীভাবে কাজ করতে হয়।’ আগামী ১১ এপ্রিল লোকসভা ভোটের প্রথম দফাতেই ভোটগ্রহণ উত্তরবঙ্গের আলিপুরদুয়ার ও কোচবিহারে।

ছবি: দেবাশিস বিশ্বাস

[ আরও পড়ুন: বাসে টিকিট কেটে যাত্রীদের পাশে বসে জনসংযোগ পুরুলিয়ার ‘ডাক্তারবাবুর’]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে