BREAKING NEWS

৮ মাঘ  ১৪২৮  শনিবার ২২ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

‘বিজেপির সবচেয়ে বড় দালাল’, নাম না করে ওয়েইসিকে তোপ মুখ্যমন্ত্রীর

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: November 20, 2019 2:58 pm|    Updated: November 20, 2019 2:58 pm

Mamata Bannerjee slams AIMIM chief Asaduddin Owaisi

শাহজাদ হোসেন: লড়াই জমে উঠছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বনাম আসাদউদ্দিন ওয়েইসির। অল ইন্ডিয়া মজলিস-ই-ইত্তেহাদুল মুসলিমিন বা মিম প্রধান আসাদউদ্দিন ওয়েইসি বাংলার সংখ্যালঘুদের দলে টানতে তৃণমূল বিরোধী প্রচার শুরু করে দিয়েছেন। এবার তাঁকে পালটা জবাব দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সাগরদিঘির সভা থেকে মিমকে ‘বিজেপির সবচেয়ে বড় দালাল’ বলে তোপ দাগলেন মমতা।
সম্প্রতি শাসকদলের বিরদ্ধে ওয়েইসি তোপ দেগে বলেছিলেন, ‘বাংলায় মুসলমানরা সুরক্ষিত নয়। দীর্ঘদিন ধরে তাদের ঠকিয়ে আসছে তৃণমূল। বাংলায় বিজেপি কী করে ৪২টির মধ্যে ১৮টি লোকসভা আসন পেল, সেই জবাব দিন মুখ্যমন্ত্রী।’ বুধবার মুর্শিদাবাদের সাগরদিঘি থেকে তাঁকে জবাব দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সাগরদিঘির সভা থেকে তিনি বলেন, ‘হায়দরাবাদ থেকে কেউ টাকার থলি নিয়ে এখানে এসে
বলছে যে মুসলিমদের জন্য লড়াই করবে। কী করে লড়াই করবে? ওরাই তো বিজেপির সবচেয়ে বড় দালাল। কেউ লড়বে না, লড়ব আমরাই।’

[আরও পড়ুন: বেলঘরিয়ায় এটিএম জালিয়াতি চক্রের পর্দাফাঁস, গ্রেপ্তার ৪ বিদেশি]

বাংলায় মুসলিম ভোট ব্যাংক এখনও তৃণমূলের দখলে। দলের সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সংখ্যালঘুদের দিকে যেভাবে হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন, তাতে ভরসা রেখেই এখনও শাসকদলের প্রতি অটুট ভরসা তাঁদের। আর সেখানেই থাবা বসাতে চায় আসাদউদ্দিনের দল। তাই তৃণমূল বিরোধী মন্তব্য করে তাঁদের বিমুখ করতে মরিয়া আসাদউদ্দিন। এমনকী, তৃণমূল বিরোধী লড়াইয়ে নেমে তাঁর দলের মুখপাত্র আসিফ ওয়াকার সাফ জানিয়েছেন, ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে রাজ্যের ২৯৪টি আসনেই প্রার্থী দেবে মিম। সংবাদমাধ্যমে ওয়াকার আরও বলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গের প্রতিটি গ্রামে আমাদের উপস্থিতি রয়েছে। আগামী বিধানসভা নির্বাচনে প্রথমবারের জন্য সব আসনেই আমরা প্রার্থী দেব।’ আর তারপরই নিজের দিকে সংখ্যালঘু সমর্থন টেনে রাখতে মমতার এই তোপ। অর্থাৎ একুশের ভোটে শুধু বিজেপিই নয়, মজলিস-ই-ইত্তেহাদুল মুসলিমিনের বিরুদ্ধে লড়াইয়েও যে বেশ বেগ পেতে হবে তৃণমূলকে, তা বেশ টের পেয়েছেন দলনেত্রী। আর তাই এমন বার্তা।
বুধবার মুর্শিদাবাদের সাগরদিঘির সভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী ফের এনআরসি বিরোধিতায় সুর চড়ান। তিনি স্পষ্ট বলেন, ‘বাইরের নেতারা এসে এনআরসি নিয়ে আপনাদের ভয় দেখাচ্ছে। আমি বলছি, বাংলায় এনআরসি হবে না। আপনারা বাইরের কারও কথায় বিশ্বাস করবেন না। বিশ্বাস করুন আমাদের, যাঁরা আপনাদের জন্য কাজ করে।প্রত্যেকে আপনারা এদেশের নাগরিক। কাউকে বিতাড়িত হতে দেব না।’

[আরও পড়ুন: শাসকদলের উদ্বেগ বাড়িয়ে বাংলার সব আসনে প্রার্থী দিতে চলেছে ওয়েইসির দল]

এদিন সাগরদিঘির সভা থেকে বিভিন্ন প্রকল্পের কাজের জন্য আরও এক হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করে গেলেন মুখ্যমন্ত্রী। সভা সেরেই তিনি পৌঁছে যান বাহালনগরে, জম্মু-কাশ্মীরের কুলগামে জঙ্গিদের গুলিতে নিহত শহিদ শ্রমিকদের বাড়িতে। সেখানে গিয়ে পরিবারের সদস্যদের হাতে তুলে দেন ৫০ হাজার টাকা।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে