৩০ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ১৭ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

আকাশনীল ভট্টাচার্য, বারাকপুর:  ভাটপাড়া পুরসভা কার্যত হাতছাড়া হয়ে গিয়েছে। আস্থা ভোটে এড়াতে এবার নৈহাটি পুরসভায় প্রশাসক বসানোর সিদ্ধান্ত নিল সরকার। শুক্রবার নবান্নে দপ্তরের সচিবের সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ বৈঠক করে পুর ও নগরোয়ন্ননমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। তিনি জানিয়েছেন, আপাতত নৈহাটি পুরসভা পরিচালনা করবেন বারাকপুরের মহকুমা শাসক। তিনি যদি দায়িত্ব নিতে রাজি না হন বা অন্য কোনও অসুবিধা থাকে, সেক্ষেত্রে পুরসভার প্রশাসক নিয়োগ করা হবে ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট পদমর্যাদার কোনও আধিকারিককে।

[আরও পড়ুন: ফের শক্তিপ্রমাণ অর্জুন সিংয়ের, ভাটপাড়ায় সংখ্যাগরিষ্ঠ হয়ে পুরবোর্ড দখলের পথে বিজেপি]

লোকসভা ভোটের মুখে যখন দাপুটে তৃণমূল নেতা অর্জুন সিং বিজেপিতে যোগ দেন, তখন থেকেই দলবদলের খেলা চলছে বারাকপুর শিল্পাঞ্চলে। আর অর্জুন সাংসদ নির্বাচিত হওয়ার পর বিজেপিতে যোগ দেওয়ার হিড়িক পড়ে গিয়েছে। তৃণমূল কাউন্সিলরদের দলবদলের জেরে ভাটপাড়া পুরসভায় সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে বিজেপি। এখন যা পরিস্থিতি, তাতে আগের বোর্ডের বিরুদ্ধে অনাস্থা এনে সহজেই পুরসভা দখল করে নিতে পারবেন গেরুয়া শিবিরের কাউন্সিলররা। নৈহাটি পুরসভাতেও তৃণমূলের অবস্থা টলমল। গত পুরভাটে ৩১ আসনের পুরসভায় সবকটি আসনে জিতেছিলেন তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থীরাই। কিন্তু লোকসভা ভোটের ফল প্রকাশের পরই পরিস্থিতি বদলে গিয়েছে। সম্প্রতি দিল্লিতে গিয়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন নৈহাটি পুরসভার ২৯ জন তৃণমূল কাউন্সিলর। জানা গিয়েছে, শুক্রবার পুরবোর্ডের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব আনেন ১৮ জন দলত্যাগী কাউন্সিলর। ভোটাভুটি চেয়ে নৈহাটি পুরসভার পুর আধিকারিকের কাছে চিঠি দেন তাঁরা। এরপরই নৈহাটি পুরসভায় ক্ষমতা ধরে রাখতে তৎপরতা শুরু হয় তৃণমূল শিবিরে। নবান্নে দপ্তরের সচিবের সঙ্গে বৈঠকের পর আস্থা ভোটে না গিয়ে নৈহাটি পুরসভায় প্রশাসক বসানোর সিদ্ধান্ত নেন পুর ও নগরোয়ন্নন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।

দিন কয়েক আগে মুখে কাপড় বেঁধে ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি দিতে দিতে নৈহাটি পুরসভায় তাণ্ডব চালিয়েছিল একদল দুষ্কৃতী। তালা ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছিল চেয়ারম্যানের ঘরে। ঘটনার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার পুরসভার গেটের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ করেন খোদ তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

[আরও পড়ুন: বিদ্রোহের আঁচ বঙ্গ বিজেপিতে, মণিরুল ইস্যুতে অনুপমের নিশানায় দলের নেতারা

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং