BREAKING NEWS

২৩ আষাঢ়  ১৪২৭  বুধবার ৮ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

ছেলের জন্মদিনের জন্য সঞ্চিত অর্থ ত্রাণ তহবিলে দান, নজির শিলিগুড়ির দম্পতির

Published by: Bishakha Pal |    Posted: April 4, 2020 7:11 pm|    Updated: April 4, 2020 7:11 pm

An Images

সংগ্রাম সিংহরায়, শিলিগুড়ি: ছেলের জন্মদিনের জন্য জমানো অর্থ করোনা আক্রান্তদের সহায়তায় তুলে দিলেন শিলিগুড়ির অরবিন্দপল্লির বাসিন্দা বাপন ঘোষ ও তার স্ত্রী পাঞ্চালিদেবী। শনিবার রাজ্যের পর্যটনমন্ত্রীর হাতে মুখ্যমন্ত্রী ত্রাণ তহবিলে ২৫ হাজার টাকার চেক তুলে দেন তাঁরা। অন্যদিকে শিলিগুড়ি মহকুমা শাসক সুমন্ত সহায়ের হাতে তাঁরা প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলের জন্য আরও ২৫ হাজার টাকার চেক তুলে দেন। তাঁদের এই উদ্যোগে এই অসময়ে চারিদিকে সাড়া পড়ে গিয়েছে। পর্যটনমন্ত্রী বলেন, “এভাবেই মানুষ যদি এগিয়ে আসে তাহলে কেউই অভুক্ত থাকবে না।”

পাঁচ বছরের একরত্তি ছেলে রুদ্রায়ণ। শনিবার ছিল তার জন্মদিন। বাবা বাপন ঘোষ ও মা পাঞ্চালিদেবীর ইচ্ছে ছিল, ধুমধাম করে আয়োজন করা হবে ছেলের জন্মদিন। ছেলের বন্ধুরা হই-হুল্লোড় করে একসঙ্গে এই দিনটি পালন করবে। সেই মতো আগাম প্রস্তুতিও ছিল। এক মাস আগে থেকেই শুরু হয়েছিল তোড়জোড়। কিন্তু বাদ সাধলো করোনা ভাইরাস। করোনা আক্রমণের আতঙ্কে দেশজুড়ে চলছে লকডাউন। আর তার জেরে সমস্ত রকম সামাজিক যোগাযোগ বন্ধ। ফলে অনুষ্ঠান করা সম্ভব নয়। আর এখান থেকেই অন্যরকম চিন্তাভাবনা শুরু করলেন বাপনবাবু।

[ আরও পড়ুন: হোম কোয়ারেন্টাইনের নোটিস লাগাতে বাধা! বিতর্কের মুখে মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরি ]

ছেলের জন্মদিনের অনুষ্ঠানের জন্য জমিয়ে রাখা টাকা তিনি দান করলেন করোনার ত্রাণ তহবিলে। মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ২৫ হাজার টাকা এবং প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে আরও ২৫ হাজার টাকা তুলে দেন তিনি। অন্যদিকে ১০ বস্তা চাল দুস্থদের মধ্যে বিলি করেন। বাপনবাবু বলেন, “উদ্বৃত্ত টাকা আমি অনুষ্ঠান করবার জন্যই রেখেছিলাম। তাই অনুষ্ঠান করার যখন কোন উপায় নেই, এই টাকাটা এখন ভাল কাজে লাগুক। সেটাই চাইছিলাম। তাই বাড়িতে আলোচনা করে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।” তাঁর সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে সম্পূর্ণ সমর্থন করছেন স্ত্রী পাঞ্চালিদেবীও। পাঞ্চালিদেবীর বক্তব্য, “জন্মদিন প্রত্যেক বছরই করা যাবে। কিন্তু এখন যা পরিস্থিতি, অনেকেই না খেতে পেয়ে দিন কাটাচ্ছেন। তাঁদের পাশে দাঁড়ানোর যে সিদ্ধান্ত আমার স্বামী নিয়েছেন, তাকে সম্পূর্ণ সমর্থন জানাই। উনি মাঝে মধ্যে এই ধরনের উদ্যোগ নেন। আমাদের পরিবারের পূর্ণ সমর্থন রয়েছে।” আর যার জন্মদিনের টাকায় এই উদ্যোগ, সেই পাঁচ বছরের রুদ্রায়ণ অবশ্য এখনও অতশত বোঝার বয়স নয়। তবে জানিয়ে দিল, “এবার জন্মদিন হবে না। বাবা বলেছে পরের বছর বন্ধুদের ডাকবো অনেক মজা হবে।”

[ আরও পড়ুন: আইসোলেশনে মৃত ব্যক্তির দেহ কবর দিতে গিয়ে বিপত্তি, স্থানীয়দের বিক্ষোভে ধুন্ধুমার আন্দুলে ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement