BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মদ-জুয়ার আসর নিয়ে প্রতিবাদের মাশুল, মাঝরাতে বাড়িতে চড়াও হয়ে শ্রমিককে খুন করল দুষ্কৃতীরা

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: June 10, 2020 11:03 am|    Updated: June 10, 2020 11:09 am

An Images

শাহজাদ হোসেন, জঙ্গিপুর: বাড়ির সামনের বাগানে জাঁকিয়ে বসেছিল মদ ও জুয়ার আসর। তার প্রতিবাদ করায় প্রাণ দিয়ে মাশুল গুনতে হল মুর্শিদাবাদের ধুলিয়ানে। প্রতিবাদী আনিকুল শেখকে গুলি করে খুনের অভিযোগ উঠল মদ্যপদের বিরুদ্ধে। বাবাকে বাঁচাতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে হাসপাতালে ভরতি আনিকুলের ছেলে শহিদুল। তাঁর শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গিয়েছে।

MSD-murder family
শোকগ্রস্ত পরিবার

স্থানীয় সূত্রে খবর, মঙ্গলবার সন্ধেবেলা ধুলিয়ান পুরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের গাজিনগরের বাসিন্দা পেশায় শ্রমিক আনিকুলের বাড়ির পাশের আমবাগানে মদ ও জুয়ার আসর বসায় এলাকারই জনা কয়েক যুবক। বেশ কয়েকদিন ধরেই এমন ঘটনা ঘটছিল। মঙ্গলবার তাদের বেআইনি কাজের প্রতিবাদ করেন আনিকুল। তাতেই ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে ওই যুবকরা। তখনকার মতো বাকবিতণ্ডা থেমে গেলেও দুষ্কৃতীরা রীতিমত ওঁৎ পেতে ছিল।

[আরও পড়ুন: দিনের শুরুতেই শাসকদলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে উত্তপ্ত বাসন্তী, যুব তৃণমূলের গুলিতে নিহত দলীয় কর্মী]

রাতে আনিকুল এবং পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা রাতের খাবার খেয়ে শুয়ে পড়লে, মধ্যরাতে চিন্টু নামে এক যুবক ও তার দলবল মদ্যপ অবস্থায় আনিকুলের বাড়িতে চড়াও হয়। দরজায় ধাক্কা দেয়। অভিযোগ, আনিকুল ঘরের দরজা খুলতেই পরপর দুটি গুলি ছোঁড়ে চিন্টু। রক্তাক্ত অবস্থায় লুটিয়ে পড়েন আনিকুল। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তাঁর। বাবাকে বাঁচাতে এসে গুলিবিদ্ধ হন তাঁর ছেলে শহিদুল ইসলাম। গুলি চালিয়ে ঘটনাস্থল থেকে চম্পট দিয়েছে দুষ্কৃতীরা।

[আরও পড়ুন: হোটেল খুলতেই ফের করোনার ছোবল দার্জিলিংয়ে, শৈলশহরে বাড়ছে আতঙ্ক]

ঘটনার খবর পেয়ে সামশেরগঞ্জ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জঙ্গিপুর মহকুমা হাসপাতালে পাঠায়। শহিদুলকে হাসপাতালে পাঠানো হয় চিকিৎসার জন্য। আপাতত সে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে বলে হাসপাতাল সূত্রে খবর। এই ঘটনায় এলাকায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে। আনিকুল ইসলাম এলাকায় সজ্জন ব্যক্তি বলে পরিচিত। তাঁর এহেন পরিণতিতে ক্ষোভে ফুঁসছেন এলাকাবাসী। মূল অভিযুক্ত চিন্টু শেখ, মোস্তাক শেখ, আশরাফ আলিদের দ্রুত গ্রেপ্তারির দাবি তুলেছেন তাঁরা। এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত চার জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে, বাকিদের সন্ধান চলছে বলে জানিয়েছেন জঙ্গিপুরের পুলিশ সুপার ওয়াই রঘুবংশী।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement