Advertisement
Advertisement
ছটপুজোয় গুলি

২০ বছরের প্রতিহিংসার আগুন, শত্রুকে লক্ষ্য করে গুলি যুবকের

গুলি লক্ষ্যভ্রষ্ট হওয়ায় প্রাণে বাঁচলেন ব্যক্তি।

Man shoots enemy to take revange after 20years in Asansol
Published by: Sucheta Sengupta
  • Posted:November 2, 2019 8:48 pm
  • Updated:November 2, 2019 8:49 pm

চন্দ্রশেখর চট্টোপাধ্যায়, আসানসোল: কুড়ি বছর পর প্রতিশোধ নিতে ছট পুজোর দিনকেই ধার্য করল দুষ্কৃতী। পুজো সেরে ফেরার সময় প্রকাশ্যে এক ব্যক্তিকে লক্ষ্য করে গুলি চালানোর অভিযোগ উঠল প্রতিবেশীর বিরুদ্ধে। আসানসোল পুরনিগমের বেজডি কোলিয়ারি এলাকায় প্রায় ৩ রাউন্ড গুলি চললেও, উপস্থিত বুদ্ধির জোরে প্রাণে রক্ষা পেয়েছেন ওই ব্যক্তি। হামলাকারী পলাতক। তার খোঁজে নেমেছে কুলটি থানার নিয়ামতপুর ফাঁড়ির পুলিশ।
সন্ধে তখন প্রায় সাড়ে সাতটা। বেজডি এলাকার শিবমন্দির থেকে ছট পুজো সেরে ডালা মাথায় বাড়ি ফিরছিলেন ৭৪ নং ওয়ার্ড এলাকার বাসিন্দা সঞ্জয় পাসোয়ান। আচমকা পিছন থেকে কেউ তাঁকে খুব কাছ থেকে গুলি চালায়। কিন্তু তা লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। বিপদ টের পেয়ে সঞ্জয় সঙ্গে সঙ্গে পুজোর ডালা ফেলে দৌড়ে পালান। তাঁকে ধাওয়া করে হামলাকারীও। পিছন থেকে ফের গুলি চালানো হয়। তাও সঞ্জয়ের কান ঘেঁষে বেরিয়ে যায়। এরপর তিনি নিজের এলাকায় পৌঁছে এক প্রতিবেশীর বাড়িতে ঢুকে দরজা বন্ধ করে দেন। এভাবেই নিজের প্রাণরক্ষা করেন সঞ্জয় পাসোয়ান। ঘটনার জেরে এলাকায় চাঞ্চল্য দেখা দেয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্ত শুরু করেছে নিয়ামত ফাঁড়ির পুলিশ। পলাতক হামলাকারী।

[আরও পড়ুন: দুষ্কৃতীদের বোমার আঘাতে মৃত্যু তৃণমূল কর্মীর, চাঞ্চল্য রামপুরহাটে]

জানা গিয়েছে, হামলাকারীর নাম পাপ্পু মাহাতা। কী কারণে সঞ্জয়ের উপর এমন হামলা, এনিয়ে তাঁর নিজের মত যে আগের একটি ঘটনার প্রতিশোধ নিতেই এমন হামলা চালিয়েছে পাপ্পু। বছর কুড়ি আগে সঞ্জয়ের এক বোনের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল পাপ্পুর। সেসময় পরিবার সেই সম্পর্ক মেনে নেয়নি। সালিশী সভা বসিয়ে বিষয়টির মীমাংসা হয়। পাপ্পুর কাছ থেকে জরিমানা নেওয়া হয়েছিল। পাশাপাশি তাকে গ্রামছাড়াও
করা হয়। তখন পাপ্পু চলে গিয়েছিল ভিন রাজ্যে।
বছর কুড়ি পর সে ফিরে এসেছে। এলাকায় ছট পুজোর ভিড়ের মাঝেই সে প্রতিশোধ নেবে বলে ঠিক করে। ফলে এদিন সন্ধেবেলা সঞ্জয় পুজো দিয়ে ফেরার সময়েই সে টার্গেট করে গুলি চালায়। কিন্তু বরাতজোরেই বেঁচে যান তিনি। লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়ে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায় পাপ্পু। ততক্ষণে এলাকায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। পলাতক পাপ্পুর খোঁজে নেমেছে পুলিশ। আর সঞ্জয় বলছেন, পুজো দিয়ে ফেরার পথে এমন বিপদ থেকে ভগবানই তাঁকে রক্ষা করেছেন।

Advertisement

[আরও পড়ুন: সন্দেশখালিতে গুলিবিদ্ধ ভিলেজ পুলিশের মৃত্যু, থমথমে এলাকা]

Advertisement

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ