BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

আজ বৃষ্টিতে ভিজবে কলকাতা, ৭২ ঘণ্টার মধ্যে রাজ্যের একাধিক জেলায় কালবৈশাখীর সম্ভাবনা

Published by: Sulaya Singha |    Posted: May 4, 2020 9:48 am|    Updated: May 4, 2020 9:50 am

An Images

নব্যেন্দু হাজরা: গত কয়েকদিন ধরেই অল্পবিস্তর বৃষ্টিতে ভিজছে কলকাতা-সহ গোটা রাজ্য। আগামী তিনদিনও রাজ্যজুড়ে বজায় থাকবে সেই আবহাওয়া। মঙ্গলবার থেকে ঝড়-বৃষ্টি বাড়বে দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে। ৭২ ঘণ্টার মধ্যে দক্ষিণবঙ্গের দুই-এক জেলায় রয়েছে কালবৈশাখীর সম্ভাবনাও। একাধিক জেলায় হতে পারে ভারী বৃষ্টি। আগামী তিন দিন ঝড়-বৃষ্টিতে ভিজতে পারে তিলোত্তমাও। এমনই পূর্বাভাস দিল আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর।

কলকাতায় আজ সকালের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৫.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। রবিবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৩.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ ৫১ থেকে ৯৫ শতাংশ। গত ২৪ ঘন্টায় কলকাতা শহরে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ৩.৪ মিলিমিটার।

[আরও পড়ুন: রেশন কার্ড আটকে রেখে খাদ্যসামগ্রী আত্মসাৎ! রাজনৈতিক সংঘর্ষে উত্তপ্ত ভাঙড়]

বাংলাদেশ ও রাজস্থানে রয়েছে জোড়া ঘূর্ণাবর্ত। আরও একটি ঘূর্ণাবর্ত রয়েছে মধ্যপ্রদেশে। রাজস্থান থেকে পশ্চিমবঙ্গ পর্যন্ত রয়েছে পূর্ব-পশ্চিম নিম্নচাপ অক্ষরেখা। এটি মধ্যপ্রদেশের ঘূর্ণাবর্ত ও উত্তরপ্রদেশের উপর দিয়ে বিহার হয়ে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ পর্যন্ত বিস্তৃত। এর টানেই প্রচুর জলীয় বাষ্পে এই ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। আজ, সোমবার শহরে বিক্ষিপ্ত ঝড়-বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। একাধিক জেলায় ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া ও বজ্রবিদ্যুৎ-সহ হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে বলে জানাচ্ছে হাওয়া অফিস।

মঙ্গল ও বুধবার বৃষ্টি ও ঝড়ের দাপট বাড়বে দক্ষিণবঙ্গে। রয়েছে কালবৈশাখীর সম্ভাবনাও। ভারী বৃষ্টি হতে পারে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের বেশ কিছু জেলায়। দক্ষিণ আন্দামান সাগরে নিম্নচাপ এখনও ধীরগতিতে চলছে। অভিমুখ রয়েছে উত্তর-পশ্চিম দিকে। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত এটি আন্দামান সাগর ও দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করবে। সঙ্গে ঝোড়ো হাওয়ার গতিবেগ বাড়বে ঘণ্টায় ৭০ কিলোমিটার পর্যন্ত। শক্তি সঞ্চয় করে তা গভীর নিম্নচাপে পরিণত হবে। ফলে আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে। তবে এই নিম্নচাপ ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হওয়ার কোনও সম্ভাবনার কথা এখনও জানায়নি আবহাওয়া দপ্তর। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত এর সরাসরি কোনও প্রভাব এ রাজ্যে পড়বে না বলেই জানাচ্ছে আবহাওয়াবিদরা। এদিকে, ঝড়-বৃষ্টির পূর্বাভাসের কারণে আন্দামান-নিকোবরের মৎস্যজীবীদের বৃহস্পতিবার পর্যন্ত আন্দামান সাগর ও দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে যাওয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: রেশন নিয়ে টানা বিক্ষোভ, সালার থেকে শিক্ষা নিয়ে পরিদর্শনে জঙ্গিপুরের পুলিশ সুপার]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement