BREAKING NEWS

১৩ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  বুধবার ২৭ মে ২০২০ 

Advertisement

২৪ ঘণ্টায় উত্তরবঙ্গে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা, ভিজতে পারে কলকাতা-সহ দক্ষিণের কয়েকটি জেলাও

Published by: Bishakha Pal |    Posted: May 23, 2020 10:19 am|    Updated: May 23, 2020 10:19 am

An Images

নব্যেন্দু হাজরা: আমফানের ধ্বংসলীলার ছবি এখনও মোছেনি শহর কলকাতার বুক থেকে। উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনার পরিস্থিতি আরও শোচনীয়। আমফানের প্রভাবে দক্ষিণবঙ্গে যে বৃষ্টি হয়েছিল, তার জেরে এখনও বহু জায়গায় জমে রয়েছে জল। এর মধ্যেই আবার বৃষ্টির পূর্বাভাস দিল হাওয়া অফিস। আগামী ২৪ ঘণ্টায় উত্তরবঙ্গের উপরের দিকের পাঁচ জেলায় ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনার কথা জানাল আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর। বৃষ্টি হতে পারে দক্ষিণবঙ্গের কয়েকটি জেলাতেও। সামান্য হলেও বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে কলকাতাতেও।

আমফানের জেরে উত্তরবঙ্গে বৃ্ষ্টিপাতের সম্ভাবনা কথা জানিয়েছিল হাওয়া অফিস। আগামী ২৪ ঘণ্টায় দার্জিলিং, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার, জলপাইগুড়িতে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। তবে বৃষ্টি বাড়বে রবিবার থেকে। মূলত আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার জলপাইগুড়ি তে বাড়ি থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হবে রবিবার। এই ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি চলবে বুধবার পর্যন্ত। উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় চলবে বৃষ্টিপাত। এই পাঁচ জেলার পাশাপাশি উত্তর দিনাজপুরেও মঙ্গল ও বুধবার ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে হাওয়া অফিস।
মূলত পূবালী হাওয়া দক্ষিণী হওয়ার জেরে সাগর থেকে প্রচুর জলীয় বাষ্প ঢুকছে রাজ্যে। এর জেরেই বজ্রগর্ভ মেঘ তৈরি হয়েছে। যার ফলে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে উত্তরবঙ্গ ও দক্ষিণবঙ্গের কয়েকটি জেলায়।

[ আরও পড়ুন: আমফান পরবর্তী পরিস্থিতি LIVE: বিধ্বস্ত এলাকা পরিদর্শনে দক্ষিণ ২৪ পরগনা যাচ্ছেন দিলীপ ঘোষ ]

শুধু উত্তরবঙ্গ নয়, সিকিম এবং উত্তর-পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলিতেও রয়েছে বৃষ্টির সম্ভাবনা। মূলত অসম, মেঘালয়, অরুণাচল প্রদেশে আগামী চার থেকে পাঁচ দিন ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। কলকাতায় শনিবার সকাল থেকে আংশিক মেঘলা আকাশ থাকবে। বিকেলের দিকে বজ্রগর্ভ মেঘ থেকে হালকা বৃষ্টির সামান্য সম্ভাবনা রয়েছে। শনিবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ২৭.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশপাশে। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৩.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশপাশে থাকবে। বাতাসে জলীয়বাষ্পের পরিমাণ ৬৪ থেকে ৯২ শতাংশ। আগামী কয়েক দিন ওড়িশার তাপমাত্রাও ২ থেকে ৩ ডিগ্রি বাড়তে পারে।

[ আরও পড়ুন: করোনাতঙ্ক ছাপিয়ে আমফানের ছোবলে অনিশ্চিত ভবিষ্যতের মুখে বাদাবনের মানুষ ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement