১৩ ফাল্গুন  ১৪২৬  বুধবার ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

খাঁটি মুসলমানরা অশান্তি করে না, বিজেপিকে তোপ সিদ্দিকুল্লাহর

Published by: Paramita Paul |    Posted: December 18, 2019 8:03 pm|    Updated: December 18, 2019 8:04 pm

An Images

 

সৌরভ মাজি, বর্ধমান: বর্ধমানে এক কর্মসূচিতে এসে বিজেপিকে একহাত নিলেন রাজ্যের গ্রন্থাগার ও জনশিক্ষা প্রসার মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরি। পাশাপাশি, বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ লুঙ্গি পরা লোকজন রাজ্যে অশান্তি করছে বলে যে মন্তব্য করেছেন তা নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, “আসলে লোকটা ল্যাংটা লোক। ওর পশ্চিম-পূর্বের জ্ঞান নেই। নিজেই তাঁর মান রাখতে জানেন না। সাংসদ হয়েছেন। আর রাখাল-বাগালের মত কথা বললে শুনতে ভাল লাগে না।” 

এনআরসি ও সিএএ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “সারা ভারতে বিজেপি ভোট পেয়েছে ৩৭ শতাংশ। সেই ভোট কমেছে। মহারাষ্ট্র দেখিয়ে দিয়েছে বিজেপির বাইরেও সরকার গঠন করা যায়। ৬৫ থেকে ৬৭ শতাংশ যাদের ভোট তাদের কোনও মূল্য নেই, গণতন্ত্রে সেটা চলবে না।” নাম না করেই প্রধানমন্ত্রীকে তাঁর কটাক্ষ, “বিজেপির গা-জোয়ারি এখন আছে। ৫৬ ইঞ্চি আছে। শরীর স্বাস্থ্য খারাপ হলে ৫০ ইঞ্চি হবে, ৪৮ ইঞ্চি হবে, হতে হতে এক জায়গায় দাঁড়িয়ে যাবে।” নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল বিরোধী আন্দোলন সম্পর্কে রাজ্যের মন্ত্রীর প্রতিক্রিয়া, “সারা দেশ জুড়ে প্রতিবাদ হয়েছে। কালকেও দিদির সঙ্গে কথা হয়েছে। দিদি বিরোধিতার দায়িত্ব নিয়েছেন। ৭-৮ টি রাজ্যও প্রকাশ্যে বিরোধিতা করেছে।” 

[আরও পড়ুন : ‘বিজেপির আইটি সেলই দেশে হিংসা ছড়াচ্ছে’, মোদিকে তোপ অভিনেত্রী রেণুকা সাহানির]

দিল্লিতে ছাত্রছাত্রীদের উপর পুলিশের হামলার ঘটনারও নিন্দা করেছেন তিনি। সিদ্দিকুল্লাহ বলেন,“দিল্লিতে পুলিশ বাড়াবাড়ি করেছে। খুব অন্যায় করেছে। রবিবার কলকাতার রাসমণি রোডে প্রতিবাদ সভা হবে। শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন হোক আমরা চাইছি।” এনআরসি ও সিএএ ইস্যুতে সম্প্রতি রাজ্যে যে অশান্তি হয়েছে তারও নিন্দা করেছেন তিনি। সেই সংক্রান্ত প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, “আন্দোলন শান্তিপূর্ণ না থাকার পিছনে কিছু লোক আছে। গোলমাল পাকিয়ে তারা কেন্দ্রকে একটা শক্তি জোগাতে চাইছে যাতে রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা যায়। যাদের শক্তি নেই তারাই এই কাজ করছে। যারা খাঁটি মুসলমান, তারা এই কাজ করবে না। টুপি তো বাজারে কিনতে পাওয়া যায়। সেই টুপি পরলে কী করে বোঝা যাবে কে মুসলমান আর কে অমুসলমান।” 

[আরও পড়ুন : আবার বছর ৩৬ পরে, CAA’র বিরুদ্ধে মামলা লড়তে সুপ্রিম কোর্টে আইনজীবী তরুণ গগৈ]

আর ওই অশান্তির পিছনে মিমের মত সংগঠন রয়েছে কি না সেই প্রশ্নে তাঁর জবাব, “মিম নিয়ে বেশি বললে ওদের শক্তি বেড়ে যাবে।” কেন্দ্রীয় রেল প্রতিমন্ত্রীর গুলিচালনার নিদান প্রসঙ্গে তিনি দাবি জানান, গত ৭২ বছরে দেশে ৬৪ হাজার বার সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা হয়েছে। সব জায়গায় বিজেপি-আরএসএস এর হাত রয়েছে। আগে গুলি চালিয়ে তাঁদের শাস্তি দেওয়া হবে তো, প্রশ্ন তুলেছেন সিদ্দিকুল্লাহ।

An Images
An Images
An Images An Images