১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বাড়ি ফিরেও কাজহীন, পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ঘরে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন বিধায়ক

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: May 30, 2020 1:35 pm|    Updated: May 30, 2020 1:44 pm

An Images

সুমিত বিশ্বাস, পুরুলিয়া: দীর্ঘ লকডাউনে উপার্জনহীন হয়ে ভিন রাজ্য থেকে গ্রামে ফিরছেন। কিন্তু সংক্রমনের আশঙ্কায় ঠাঁই হচ্ছে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে। কাউকে আবার চিকিৎসকরা পরামর্শ দিচ্ছেন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার। এই অবস্থায় পরিযায়ী শ্রমিক পরিবারগুলোর পাশে দাঁড়ালেন পুরুলিয়ার কাশীপুরের বিধায়ক স্বপন বেলথরিয়া। একেবারে ঘরে ঘরে গিয়ে নিত্যসামগ্রী জিনিসপত্র পৌঁছে দিচ্ছেন বিধায়ক। শুক্রবার থেকে তিনি এই কাজ শুরু করেছেন। ‘পরিযায়ী শ্রমিকের পাশে আপনার বিধায়ক’ এই নাম দিয়ে কর্মসূচি চালু করেছে কাশীপুর বিধানসভা এলাকার তৃণমূল নেতৃত্ব।

পরিযায়ী শ্রমিক পরিবারগুলিকে দেওয়া নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রীর প্যাকেটে থাকছে ৫ কেজি চাল, ১ কেজি মুসুর ডাল, ৩কেজি আলু, ২ কেজি পেঁয়াজ, এক প্যাকেট মুড়ি, মাস্ক ও সাবান। বাড়ি বাড়ি পৌঁছনোর পাশাপাশি শ্রমিকরা যে সব প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন, সেখানেও পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে এই প্যাকেট। বিধায়ক স্বপন বেলথরিয়ার কথায়, “পরিযায়ী শ্রমিকদের হাতে এখনও সেভাবে কাজ নেই। ফলে চরম আর্থিক সমস্যার মধ্যে রয়েছেন তাঁরা। তাই আমরা এই খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছি।”

[আরও পড়ুন: বাড়ছে করোনা রোগীর সংখ্যা, চাপ কমাতে বর্ধমানে এবার নয়া কোভিড হাসপাতাল]

কাশীপুর বিধানসভা তৃণমূল সূত্রে জানা গিয়েছে, তাদের বিধানসভা এলাকায় প্রায় পাঁচ হাজার পরিযায়ী শ্রমিক রয়েছেন। তার মধ্যে কাশীপুর ব্লকে ইতিমধ্যেই এক হাজার জন চলে এসেছেন। হুড়া ব্লকে ফিরেছেন পাঁচশ জন। কাশীপুর বিধানসভা এলাকার বাসিন্দা তথা জেলা যুব নেতা সৌমেন বেলথরিয়া বলছেন, “বিধায়কের পাশাপাশি আমাদের নেতা-কর্মীরাও রোজকার প্রয়োজনীয় সামগ্রীর প্যাকেট পৌঁছে দিচ্ছেন ঘরে ঘরে। সেইসঙ্গে আমরা স্বাস্থ্যবিধির পাঠও দিচ্ছি।”একেবারে হাতের কাছে এই প্যাকেট পেয়ে পরিযায়ী শ্রমিকদের পরিবারের সদস্যরা খুশি তো বটেই, অনেকটা নিশ্চিন্তও।

[আরও পড়ুন: যাত্রী দেখে তবেই বাড়বে বেসরকারি বাসের সংখ্যা, ১ ঘণ্টা অন্তর চলবে ভেসেলও]

এদিকে পুরুলিয়া জেলা তৃণমূল এই জেলার প্রবেশপথে অর্থাৎ নাকা পয়েন্টের কাছে শিবির করেছে। সেখানে প্রশাসনের তরফে পরিযায়ীদের স্বাস্থ্যপরীক্ষার পর তৃণমল সদস্যরা শিবির থেকে জল, নানা শুকনো খাবার তুলে দিচ্ছেন তাঁদের। সেইসঙ্গে কয়েকটি শিবিরে কমিউনিটি কিচেন করেও ভিন রাজ্য থেকে ফেরা পরিযায়ীদের ডিম-ভাত খাওয়ানো হচ্ছে। এই জেলার ১৬টি নাকা পয়েন্টের মধ্যে ঝালদার তুলিন, জয়পুরের কাঁঠালটাঁড়, বলরামপুরের দাঁতিয়ায় এই শিবির করেছে তৃণমূল। এখান থেকে স্বাস্থ্যবিধির পাঠও দেওয়া হচ্ছে। পুরুলিয়া জেলা তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক নবেন্দু মাহালি বলেন, “ভিন রাজ্য থেকে আসা পরিযায়ীরা ১৪দিন কিভাবে কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন, আমরা সেই বিষয়গুলিও ওই ক্যাম্প থেকে বলে দিচ্ছি।”

ছবি: সুনীতা সিং।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement