BREAKING NEWS

৩ মাঘ  ১৪২৮  সোমবার ১৭ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

আফরাজুল কাণ্ডে শম্ভুলালের সমর্থনে উত্তাল উদয়পুর, ২৪ ঘন্টা বন্ধ ইন্টারনেট পরিষেবা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 16, 2017 6:59 am|    Updated: September 19, 2019 1:37 pm

Mobile internet services remain suspended, prohibitory orders in place in Udaipur

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বাঙালি শ্রমিক মহম্মদ আফরাজুলকে নৃশংসভাবে খুনে অভিযুক্ত কট্টরপন্থী শম্ভুলাল রেগারকে সমর্থন করায় উদয়পুরে পুলিশ গ্রেফতার করল ৮০ জনকে। শম্ভুলাল রেগরের সমর্থনে মিছিল করার চেষ্টা করে কয়েকটি কট্টরপন্থী গোষ্ঠী। আর তা ঘিরেই শুক্রবার চরম উত্তেজনা দেখা দেয় উদয়পুরে। সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা ও হিংসা ছড়ানোর আশঙ্কায় সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে উদয়পুরে আরও ২৪ ঘন্টার জন্য মোবাইল ইন্টারনেট সংযোগ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। উদ্দেশ্য, শম্ভুলালের কুকীর্তির ভিডিও, খুনের ভিডিও, সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা ছড়ানোর বার্তা, ফেসবুক বা হোয়াটসঅ্যাপে উত্তেজনা ছড়ানোর অপচেষ্টা বন্ধ করা।

[২০১৯-এ মোদিকেই ভোট দেবেন ৭৯% দেশবাসী, দাবি সমীক্ষায়]

গত বুধবার রাতেও এই পরিষেবা ২৪ ঘন্টার জন্য বন্ধ করা হয়েছিল। ওই দিন কয়েকটি গোষ্ঠী শম্ভুলালের সমর্থনে মিছিল বের করার কথা ঘোষণা করে। এরপর গতকাল উদয়পুরে মিছিল বের করার চেষ্টা হলে পুলিশ ২০০ জনকে আটক করে। মিছিলে অংশগ্রহণকারীদের ওপর লাঠিও চালানো হয়। উত্তেজিত জনতার ছোড়া পাথরে কয়েকজন পদস্থ আধিকারিক-সহ ৩০ জন পুলিশ কর্মী জখম হন। ধর্মীয় সংগঠনের ছত্রছায়ায় সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই মিছিলের কথা ঘোষণা করায় উপদেশ রানা নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতারও করেছে পুলিশ।

[ডেঙ্গির চিকিৎসায় ১৭০০% বেশি বিল ফর্টিসের, মানল কেন্দ্রীয় সংস্থা]

উদয়পুরের পুলিশ সুপার রাজেন্দ্র প্রসাদ জানিয়েছেন, সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। মোবাইল ইন্টারনেট পরিষেবা আরও ২৪ ঘন্টা বন্ধ রাখা হয়েছে। প্রসাদ জানিয়েছেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। উল্লেখ্য, পশ্চিমবঙ্গের মালদহ থেকে কাজ করতে রাজস্থানের রাজসামান্দে এসেছিলেন মহম্মদ আফরাজুল। গত ৬ ডিসেম্বর ৩৫ বছরের শম্ভুলাল ৫০ বছরের আফরাজুলকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে খুন করে তাঁর দেহ আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দেয়। সেই নারকীয় হত্যাকাণ্ড ভিডিও রেকর্ডিং করে শম্ভুলালের ১৫ বছরের ভাইপো। শম্ভুলালের দাবি, আফরাজুল লাভ জেহাদের অঙ্গ হিসাবে স্থানীয় হিন্দু রমণীর সঙ্গে অবৈধ সম্পর্কে লিপ্ত ছিল। খুনের ওই ভিডিও শম্ভুলাল সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে দেয়। ভিডিওতে ছিল শম্ভুলালের উসকানিমূলক, সাম্প্রদায়িক মন্তব্যও। সে বর্তমানে পুলিশ হেফাজতে রয়েছে।

[নদিয়ায় অবৈধভাবে শিক্ষাকেন্দ্র দখল বাংলাদেশিদের, রিপোর্ট তলব হাই কোর্টের]

এ ধরনের বর্বরোচিত খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত হিসেবে যাকে দেখা গিয়েছে, তার সমর্থনেই মিছিল করার উদ্যোগ ঘিরে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে উদয়পুরে। রাজসামান্দ জেলার পুলিশ সুপার মনোজ কুমার জানিয়েছেন, রাজসামান্দ জেলা, চিতোরগড় জেলা ও উদয়পুর শহরে শম্ভুলালের সমর্থনে একাধিক ছোট ছোট মিছিল বের করার চেষ্টা চালায় উগ্র হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলি। মিছিলগুলি থেকে সাম্প্রদায়িক স্লোগান ওঠে। শম্ভুলালের সমর্থনে স্লোগান ওঠে। তার ছবি নিয়ে মিছিল বের হয়। মিছিল শহর পরিক্রমায় বাধা দেয় পুলিশ। পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে মিছিলে থাকা লোকজন। তারা ইট, পাথর ছুড়তে থাকে। পুলিশ পালটা লাঠিচার্জ করে এবং কাঁদানে গ্যাস ছোড়ে। এই ঘটনায় ৮০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্যদিকে, খুন, সাম্প্রদায়িক হিংসা ছড়ানো এবং নৃশংসতার অভিযোগে জামিন অযোগ্য একাধিক ধারা আনা হয়েছে শম্ভুলালের বিরুদ্ধে। পুলিশ সুপার জানান, সবরকমের রাজনৈতিক ও ধর্মীয় মিছিল, সমাবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে উদয়পুরে। সোশ্যাল মিডিয়ার উপরে কড়া নজর রাখছে পুলিশের সাইবার সেল। যে কোনও উসকানিমূলক আচরণ বা মিডিয়া পোস্ট কড়া হাতে দমন করবে পুলিশ।

[মৃতদেহ নিখোঁজ, মিসিং ডায়েরি করল ন্যাশনাল মেডিক্যাল!]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে