১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

হনুমান শাবক নিয়ে ভোটপ্রচার, বিতর্কে মুনমুন সেন

Published by: Tanujit Das |    Posted: April 21, 2019 5:50 pm|    Updated: April 22, 2019 4:06 pm

An Images

সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, দুর্গাপুর: হনুমান শাবক নিয়ে নির্বাচনী প্রচারসভায় অংশগ্রহণ করে বিতর্কে জড়ালেন আসানসোলের তৃণমূল প্রার্থী মুনমুন সেন৷ ঘটনার বিরোধিতা করেছে ওই জেলার অন্যান্য বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতৃত্ব৷ নির্বাচনী বিধিভঙ্গের অভিযোগ তুলে অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে কমিশনে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে বিজেপি৷

[আরও পড়ুন: ‘দিল্লি থেকে পুলিশ আনলেও একটি আসনও পাবে না’, বিজেপিকে হুঁশিয়ারি মমতার ]

শনিবার ঘটনার সূত্রপাত হয় অণ্ডালের দক্ষিণখণ্ড এলাকার ধর্মরাজ তলায়৷ সেখানেই একটি নির্বাচনী প্রচারসভায় অংশগ্রহণ করেন আসানসোলের তৃণমূল প্রার্থী৷ জানা গিয়েছে, সভা চলাকালীন প্রার্থীর হাতে একটি হনুমানের শাবক দিয়ে যান দলেরই এক কর্মী৷ সভা চলাকালীন অনেকটা সময় ওই হনুমানটি আদর করতে এবং কোলে নিয়ে বসে থাকতে দেখা যায় মুনমুন সেনকে৷ এই ঘটনাকেই এবার তাঁর বিরুদ্ধে হাতিয়ার করেছে বিরোধীরা৷ নির্বাচনী প্রচারে একজন প্রার্থী আদৌ কোনও পশুর ব্যবহার করতে পারেন কিনা, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তাঁরা৷

ঘটনার বিরুদ্ধে কমিশনের দ্বারস্থ হওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে বিজেপি৷ তাঁদের জেলা সভাপতি লক্ষ্ণণ ঘোরুই বলেন, ‘‘এইভাবে একটি পশুকে নিয়ে ভোটপ্রচার করা যায় না৷ এভাবে নির্বাচনী আইন ভেঙেছেন মুনমুন সেন৷ তাঁর বিরুদ্ধে কমিশনে অভিযোগ জানাবে দল৷’’ যদিও এই সমস্ত অভিযোগকে পাত্তা দিতে নারাজ স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব৷ তাঁদের বক্তব্য, মুনমুন সেন পশুপ্রমিক মানুষ, তা তিনি বারবারই বলে এসেছেন৷ ভালবেসে কেবল হনুমান শাবকটিকে আদর করছিলেন তিনি৷ তবে এই প্রথম নয়, এর আগেও নির্বাচনী প্রচারে বিতর্কে জড়িয়েছেন মুনমুন সেন৷ ‘মা’ সুচিত্রা সেনের আত্মার শান্তির জন্য ভোট চেয়ে চরম সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন তিনি৷

  [আরও পড়ুন: বিরল লঙ্গুর ও বিন্টুরঙের খোঁজ মিলল বক্সা ব্যাঘ্র প্রকল্পের জঙ্গলে]

এদিনের প্রচারসভা থেকে অণ্ডালের মানুষদের উদ্দেশে একগুচ্ছ প্রতিশ্রুতি দেন মুনমুন সেন৷ তিনি বলেন, ‘‘ আমি এই এলাকায় কাজ করতে চাই৷ এখানকার মানুষের সেবা করতে চাই৷ বাম শাসনের ৩৪ বছরে এবং কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের পাঁচ বছরের, এই এলাকায় কোনও উন্নয়ন হয়নি৷ আমি তা করার সুযোগ চাই৷ আমি মহিলাদের রোজগার বাড়াতে চাই৷ মহিলারা যাতে বাড়িতে বসেই কাজ করতে পারেন, সেই সুযোগ তৈরি করতে চাই৷’’ এদিনের সভায় উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের আইনমন্ত্রী মলয় ঘটক৷ সভামঞ্চ থেকেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে প্রধানমন্ত্রী বানানোর ডাক দেন তিনি৷ সভায় উপস্থিত মানুষের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘‘এই সুযোগ আর আসবে না৷’’

ছবি: উদয়ন গুহরায়

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement