BREAKING NEWS

১৪  আশ্বিন  ১৪২৯  মঙ্গলবার ৪ অক্টোবর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

নারদ কাণ্ডে হাজিরার জন্য এক সপ্তাহ সময় চাইলেন ইকবাল আহমেদ

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 10, 2017 5:23 am|    Updated: June 10, 2017 5:29 am

Narada Sting: TMC MLA Iqbal Ahmed seeks time to appear before CBI

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রোজা চলছে, শারীরিকভাবেও দুর্বল। আর তাই সিবিআইয়ের সামনে হাজিরা দিতে পারবেন না ইকবাল আহমেদ। আইনজীবী মারফত চিঠি পাঠিয়ে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার আধিকারিকদের এমনটাই জানালেন তৃণমূল বিধায়ক। পাশাপাশি হাজিরার জন্য আরও এক সপ্তাহ সময় চেয়ে নিয়েছেন তিনি। এমনটাই জানা গিয়েছে সিবিআই সূত্রে।

[রাজ্য মেডিক্যাল কাউন্সিলে রেজিস্ট্রেশন নেই ডক্টর সূর্যকান্ত মিশ্রর!]

নারদ কাণ্ডে শনিবার সকাল ১১ টায় নিজাম প্যালেসে সিবিআইয়ের দপ্তরে হাজিরা দেওয়ার কথা ছিল তৃণমূল বিধায়ক ইকবাল আহমেদের। এই মর্মে তাঁকে নোটিসও পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু এদিন আইনজীবী মারফত চিঠি পাঠিয়ে ইকবাল জানালেন, তিনি হাজিরা দিতে পারবেন না। রোজা চলছে। এই কারণে শারীরিকভাবে কিছুটা দুর্বল তিনি। তাই তাঁকে যেন এক সপ্তাহ সময় দেওয়া হয়। এদিকে, ইকবাল আহমেদকে এক সপ্তাহ সময় দেওয়া হবে নাকি দু’দিন পর ফের তাঁকে তলব করা হবে, সেই নিয়ে আলোচনা করছেন সিবিআই আধিকারিকরা।

[যীশু খ্রিষ্ট ‘শয়তান’! বিতর্কে গুজরাটের নবম শ্রেণির হিন্দি পাঠ্যবই]

এর আগে গত বৃহস্পতিবার নারদ কাণ্ডে ইকবাল আহমেদকে হাজিরার নির্দেশ দিয়ে নোটিস পাঠিয়েছিল সিবিআই। প্রসঙ্গত, নারদ কাণ্ডে তদন্তভার হাতে নেওয়ার পর এই প্রথম কোনও হেভিওয়েট নেতাকে নোটিস পাঠিয়েছিল কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। সিবিআইয়ের গোয়েন্দাদের সন্দেহ, নারদ কাণ্ডে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সূত্র ইকবাল আহেমদ। কারণ ইকবাল আহমেদই ম্যাথু স্যামুয়েলসকে তৃণমূল বিধায়ক-সাংসদদের সঙ্গে দেখা করিয়েছিলেন। সিবিআইয়ের দায়ের করা এফআইআরেও সেই কথার উল্লেখ ছিল। গত এক মাস ধরে তদন্তের পরে আরও অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য উঠে এসেছে। সেগুলির ভিত্তিতেই জেরা করা হবে ইকবাল আহমেদকে। এর পাশাপাশি সিবিআই সূত্রে আরও জানা গিয়েছিল, বেশ কয়েকটি অডিও ক্লিপিংসও তাঁদের হাতে এসেছে, সেখানেও নাকি নাম রয়েছে ইকবাল আহমেদের। তাই ম্যাথু স্যামুয়েলসকে জেরা করার আগে ইকবাল আহমেদকে নোটিস পাঠাল সিবিআই। তৃণমূল বিধায়ককে কী কী প্রশ্ন করা হবে তারও একটি তালিকা ইতিমধ্যে তৈরি করতে ফেলেছে সিবিআই। খতিয়ে দেখা হয় ভিডিও ফুটেজগুলিও। ইকবালের সঙ্গে ম্যাথুর পরিচয় কীভাবে হল? কেন তিনি দলের নেতা-মন্ত্রীদের সঙ্গে ম্যাথুর সাক্ষাৎ করিয়েছিলেন? কেন ম্যাথু তাঁদের টাকা দিয়েছিলেন? মনে করা হচ্ছে, এই সমস্ত প্রশ্নই কিন্তু কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার তরফ থেকে করা হবে তৃণমূল বিধায়ককে।

[‘দেশরক্ষার জন্য সেনাবাহিনীর প্রয়োজন অত্যাধুনিক প্রযুক্তির’]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে