BREAKING NEWS

১৪ কার্তিক  ১৪২৭  শনিবার ৩১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

দুর্গাপুজোর মধ্যে হবে না NET? সোশ্যাল মিডিয়ার খবর ঘিরে ধন্দে পরীক্ষার্থীরা

Published by: Paramita Paul |    Posted: September 21, 2020 7:06 pm|    Updated: September 21, 2020 9:00 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দুর্গাপুজোর মধ্যে হবে না নেট (NET) পরীক্ষা! কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল (Ramesh Pokhriyal) এমনটাই তৃণমূল সাংসদ দিনেশ ত্রিবেদীকে জানিয়েছেন বলে খবর। যদিও এ বিষয়ে ইউজিসি (UGC) এখনও সরকারিভাবে কোনও ঘোষণা করেনি। তবে সোস্যাল মিডিয়া ও কয়েকটি সংবাদমাধ্যম সূত্রে পরীক্ষা পিছিয়ে যাওয়ার খবর মিলেছে। ফলে ধন্দে ভুগছেন পরীক্ষার্থীরা।

করোনা মহামারীর প্রকোপে ধাক্কা খেয়েছে দেশের শিক্ষাব্যবস্থা। পিছিয়ে গিয়েছে একাধিক পরীক্ষাও। এমন পরিস্থিতিতে ইউজিসি নেট পরীক্ষা নেওয়ার কথা ঘোষণা করে। পরীক্ষার সূচি থেকে জানা যায়, ২১, ২২ ও ২৩ অক্টোবর অর্থাৎ দুর্গাপুজোর পঞ্চমী, ষষ্ঠী ও সপ্তমীতে পরীক্ষা রয়েছে। এরপরই পরীক্ষা এই সূচির বিরোধিতা করে তৃণমূল। NET পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়ার আরজি জানিয়ে এনটিএ-কে চিঠি দেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। রাজনৈতিকভাবে এর বিরোধিতা শুরু হয়।

[আরও পড়ুন : ‘কালো রবিবার, সাংসদদের নিয়ে আমি গর্বিত’, কৃষি বিলের প্রতিবাদে সরব মমতা]

পাশাপাশি, দুর্গাপুজোর মধ্যে নেট পরীক্ষার বিরোধিতা করে তৃণমূল সাংসদ দীনেশ ত্রিবেদী শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিয়ালকে নোটিশ দেন। যেখানে লেখা হয়, “দুর্গাপুজো প্রত্যেক বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব। এই সময় প্রত্যেকে উৎসবের মেজাজে থাকেন। পুজোর সময় রাস্তায় যানবাহন যেমন বেশি থাকে, ঠিক তেমনই মানুষের ভিড়ও বেশি থাকে। ফলে পরীক্ষার্থীদের স্বাভাবিকভাবেই পরীক্ষাকেন্দ্রে পৌঁছনোর ক্ষেত্রে সমস্যা হতেই পারে”। একইসঙ্গে পুজোয় নেট পরীক্ষা স্থগিত রাখার দাবি জানান তিনি। পরিবর্তে অন্য কোনও দিন পরীক্ষা নেওয়ার প্রস্তাব দেন। সংসদ সূত্রে খবর, এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে কথাও বলেন তৃণমূল সাংসদ দীনেশ ত্রিবেদী। তখনই তাঁকে পরীক্ষার পিছনোর বিষয় আশ্বাস দেন রমেশ পোখরিয়াল। তবে ওই তিনদিনের পরিবর্তে কবে পরীক্ষা নেওয়া হবে, তা এখনও সিদ্ধান্ত হয়নি। বা পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়ার কথা সরকারিভাবে ঘোষণা হয়নি। তবে রাজনৈতিক মহলের দাবি, পরীক্ষা পিছিয়ে গেলে রাজনৈতিকভাবে কেন্দ্রকে দশগোল দেবে তৃণমূল কংগ্রেস।

[আরও পড়ুন : UGC’র নির্দেশিকা মেনে পরীক্ষার সময় কমাল কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়, বরাদ্দ আড়াই ঘণ্টা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement