BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

এভারেস্ট অভিযানে ছ’দফা গাইডলাইন বেঁধে দিল রাজ্য

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 27, 2016 11:45 am|    Updated: July 27, 2016 11:45 am

An Images

স্টাফ রিপোর্টার: এভারেস্টের শীর্ষে ওঠার কৃতিত্ব দেখাতে গিয়ে জীবন থেকেই হারিয়ে গিয়েছেন অনেকে৷ এঁদের কারও কারও বিরুদ্ধে পেশাদারিত্বের অভাবের অভিযোগও উঠেছে৷ পর্যাপ্ত প্রয়োজনীয় পর্যাপ্ত মাপকাঠি না থাকায় পড়তে হয়েছে দুর্ঘটনায়৷ রাজ্য সরকার দুর্ঘটনাগ্রস্তদের ফিরিয়ে এনেছে৷ কিন্তু কয়েকজনের দেহ চাপা পড়ে রয়েছে তুষারের নিচে৷ সবদিক বিবেচনা করেই এবার এভারেস্ট অভিযানের ক্ষেত্রে ছয় দফা গাইডলাইন বেঁধে দিল রাজ্য সরকার৷ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে যুবকল্যাণ দফতরের মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস মঙ্গলবার নবান্নে এই গাইডলাইনের কথা জানান৷ গাইডলাইনে শারীরিক সক্ষমতায় জোর দেওয়া হয়েছে৷ ঠিক হয়েছে, যুবকল্যাণ দফতরের একটি উচ্চ পর্যায়ের কমিটি গোটা বিষয় তদারকি করবে৷

১) যে ব্যক্তি বা সংস্থার সদস্যরা অভিযানে যাবেন, তাঁদের বয়স হতে হবে ৫০-এর মধ্যে৷
২) আট হাজার মিটারের বেশি উচ্চ শৃঙ্গজয়ের ক্ষেত্রে ছ’হাজার মিটারের বেশি শৃঙ্গজয়ের সাফল্য থাকতে হবে৷ অভিযানের আগের পাঁচ বছরে অন্তত চারটি ক্ষেত্রে শৃঙ্গে উঠতে হবে৷
৩) হৃদযন্ত্র ও ফুসফুস ফিটনেস পরীক্ষার বিশেষ সার্টিফিকেট দরকার৷ কেবল এসএসকেএম ও কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকেই এই সার্টিফিকেট আদায় করতে হবে৷ অন্যান্য
শারীরবৃত্তীয় পরীক্ষার ক্ষেত্রেও এই দুই হাসপাতাল থেকে শংসাপত্র জোগাড় করতে হবে৷
৪) অভিযাত্রীদের পারবিরারিক বিমা ও অভিযান সংক্রান্ত বিমা দাখিল করতে হবে৷ শেরপাদের বিমা ও হেলিকপ্টার সংক্রান্ত খরচ সেই বিমার অন্তর্ভুক্ত হবে৷
৫) অভিযানের আগে অবশ্যই রাজ্য সরকারের নির্দিষ্ট কমিটিকে জানিয়ে যেতে হবে৷ রাজ্য এ বিষয়ে নেপাল সরকারকে সরকারিভাবে জানাবে৷ রাজ্যের উচ্চ পর্যায়ের কমিটিকে না জানিয়ে গেলে দায়িত্ব বা ক্ষতিপূরণের দায়ভার বহন করা হবে না৷ রাজ্যের নবগঠিত কমিটির পদাধিকারবলে নেতৃত্বে থাকবেন যুবকল্যাণ দফতরের সচিব৷ এছাড়াও কমিটির সদস্য হিসাবে থাকবেন এভারেস্টজয়ী বসন্ত সিংহরায়, দেবাশিস বিশ্বাস, উজ্জ্বল রায়, দীপঙ্কর ঘোষ, পদাধিকারবলে যুবকল্যাণ অধিকর্তা, পর্বতারোহণের দায়িত্বপ্রাপ্ত যুবকল্যাণের আধিকারিক, সরকারের নিযুক্ত একজন কার্ডিওলজিস্ট ও একজন জেনারেল ফিজিশিয়ান৷
৬) অভিযাত্রী যে এজেন্সির মাধ্যমে অভিযানে অংশ নেবেন, সেই সংস্থার ম্যানেজারের নাম, মেল আইডি, মোবাইল নম্বর, ঠিকানা জানাতে হবে৷ যে বেসক্যাম্প দিয়ে শৃঙ্গ জয় করার কথা, সেই বেসক্যাম্পের ম্যানেজারের মোবাইল নম্বরও কমিটিকে জানাতে হবে৷

রাজ্যের নতুন ব্যবস্থাকে পর্বতারোহীরা স্বাগত জানিয়েছেন৷ পর্বত অভিযানে অভিজ্ঞরা এজন্য যুবকল্যাণ দফতরের মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসকে ধন্যবাদও জানিয়েছেন৷ তাঁদের কথায়, আশা করা যায়, যে কেউ এভারেস্ট যাওয়ার আগে একটু ভাববেন৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement