১৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শনিবার ৪ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

শুভেন্দুর আদর্শে সেবামূলক কাজ, রাজ্যে প্রথম পৃথক দপ্তর খুললেন ‘দাদার অনুগামী’রা

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: December 6, 2020 3:38 pm|    Updated: December 6, 2020 3:40 pm

New office started at Purulia by the followers of Suvendu Adhikary named after 'Dadar anugami'

ছবি: সুনীতা সিং

সুমিত বিশ্বাস, পুরুলিয়া: পোস্টারে-হোর্ডিংয়ে ছয়লাপ হয়েছিল আগেই, রাজ্যের উত্তর থেকে দক্ষিণ, পূর্ব থেকে পশ্চিম – নানা প্রান্ত। এবার আলাদা দপ্তর খুলে ফেললেন ‘দাদার অনুগামী’রা। পুরুলিয়া (Purulia) পুরসভার ১৭ নং ওয়ার্ড এলাকার সরকার পাড়ায় রবিবার উদ্বোধন হল কার্যালয়টি। ‘আমরা দাদার অনুগামী’ দপ্তরের সদস্যদের স্পষ্ট দাবি, পুরুলিয়া থেকেই প্রথম কার্যালয় শুরু হল। শুভেন্দু অধিকারীর (Suvendu Adhikary) আদর্শে উদ্বুদ্ধ হয়ে সেবামূলক কাজেই নিজেদের নিয়োগ করবেন তাঁরা। কার্যালয় তৈরির মূল উদ্যোক্তা পুরুলিয়া জেলা তৃণমূলের অন্যতম সাধারণ সম্পাদক গৌতম রায়, যিনি বরাবর শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত। ফলে রাজনৈতিক ছবিটা বেশ স্পষ্ট।

তৃণমূল না বিজেপি, নাকি নিজস্ব রাজনৈতিক দল – আপাতত তিন সম্ভাবনায় দোদুল্যমান সদ্য মন্ত্রিত্ব ছাড়া শুভেন্দু অধিকারীর রাজনৈতিক ভবিষ্যত। তিনি নিজেও এ বিষয়ে একটি শব্দও উচ্চারণ করেননি এখনও পর্যন্ত। এসবের আগেই ‘আমরা দাদার অনুগামী’ লেখা, শুভেন্দুর ছবি দেওয়া পোস্টার-হোর্ডিং চোখে পড়ছিল রাজ্যের নানা প্রান্তে। যার মধ্যে একেবারে গোড়ার দিকেই পুরুলিয়ায় দেখা গিয়েছিল এই পোস্টার। এবার সরাসরি ‘আমরা দাদার অনুগামী’র ছত্রছায়ায় আলাদা দপ্তর খোলা হল সেই পুরুলিয়ার মাটিতেই।

[আরও পড়ুন: ‘কালীঘাটের টালির ছাদের নিচে জমছে কাটমানি!’, কিষাণ মোর্চার সভা থেকে তোপ দিলীপের]

সরকার পাড়ার নতুন দপ্তর নেতাজি, স্বামী বিবেকানন্দের পাশাপাশি শুভেন্দু অধিকারীর ছবিতে সাজানো। তবে তাৎপর্যপূর্ণভাবে নেই তৃণমূল নেত্রী কিংবা বিজেপির কোনও বড় মাপের নেতার ছবি। ফলে ‘দাদার অনুগামী’রা এই মুহূর্তে শুধুই যে ‘দাদা’র আদর্শকে সামনে রেখেই পথ চলতে চাইছেন, তা স্পষ্ট। এই কার্যালয়ের মূল উদ্যোক্তা শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ জেলা তৃণমূলের নেতা গৌতম রায়ের বক্তব্য, “আমরা দাদার অনুগামী – এই আদর্শে কাজ চলছিল, এবার কার্যালয় খুলে কাজ শুরু করছি। আপাতত এখানে শুধুই সেবামূলক কাজকর্ম হবে।” প্রসঙ্গত, মন্ত্রিসভা থেকে বেরিয়ে আসার পর শুভেন্দু অধিকারী যে কটি সভায় বক্তব্য রেখেছেন, সেখানে বারবারই নিজেদের মানুষের সেবায় নিয়োজিত ব্যক্তি হিসেবে পরিচয় দিয়েছেন, কোনও রাজনৈতিক নেতা হিসেবে নয়। তাই তাঁর অনুগামীরাও মানুষের সেবা করতে চাইবেন, সেটাই স্বাভাবিক।

[আরও পড়ুন: ‘চোরের মায়ের বড় গলা’, নাম না করে বেসুরো রাজীবকে খোঁচা অরূপ রায়ের]

তবে পুরুলিয়ায় এই উদ্যোগ মোটেই দিন কয়েকের নয়। এর ভিত তৈরি হচ্ছিল অনেকদিন আগে থেকেই। ‘আমরা দাদার অনুগামী’র ব্যানারে বিজয়া সম্মিলনীর হোর্ডিং পড়েছিল পুরুলিয়ায়। তখনও এত বেশি করে অন্যান্য জায়গায় তা চোখে পড়েনি। এমনকী হোয়াটসঅ্যাপে শুভেন্দুর মাথায় গেরুয়া পাগড়ি পরা একটি ছবি দেওয়া কার্ডও সেসময় বেশ ভাইরাল হয়েছিল। বিজয়া সম্মিলনীর দিন ভারচুয়ালি বক্তব্য পেশ করেছিলেন শুভেন্দু। সেখানে জানিয়েছিলেন যে তিনি জগদ্ধাত্রী পুজোয় যাবেন পুরুলিয়ায়।

Suvendu Adhikary
ছবি: সুনীতা সিং

তাৎপর্যপূর্ণভাবে জেলা তৃণমূলের অন্যতম সম্পাদক গৌতম রায়ের আয়োজিত জগদ্ধাত্রী পুজোতেই যোগ দিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। ফলে গৌতম রায় যে একান্তই ‘দাদার অনুগামী’, তা ফের স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল। এদিন নবনির্মিত দপ্তরের সামনে দাঁড়িয়ে তিনি তৃণমূলকেও একহাত নিলেন। বললেন, ”মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রশান্ত কিশোরের কাছে দল বিক্রি করেছেন। তাঁকে আগে দল থেকে বের করা উচিৎ। তবে এখনও সময় আছে, আলোচনা করে সমস্যা মেটানো যেতে পারে। নাহলে আগামীতে তৃণমূল ভেঙে যাবে।”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে