BREAKING NEWS

২৯ আশ্বিন  ১৪২৮  শনিবার ১৬ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

করোনা পরিস্থিতিতে বর্ধমানে অভিনব আয়োজন, মাস্ক না পরলে বিয়ে বাড়িতে ‘নো এন্ট্রি’

Published by: Paramita Paul |    Posted: April 27, 2021 9:27 pm|    Updated: April 27, 2021 9:28 pm

No mask, no entry in Marriage ceremony at Bardhaman amid COVID-19 surging | Sangbad Pratidin

অর্ক দে, বর্ধমান এবং অরূপ বসাক, মালবাজার: কোভিড পরিস্থিতি ছাপ ফেলেছে সর্বত্র। বদলে দিয়েছে জীবনযাত্রার ধরণ, উৎসব, আনন্দ সব কিছুই। এবার বিয়ের অনুষ্ঠানের আয়োজনের ভোল বদলাল কোভিডের কারণে। বিয়ের অনুষ্ঠানে সকলকে নিয়ে আনন্দে মেতে ওঠার মাঝেই তাড়া করে বেড়াচ্ছে সংক্রমণের ভয়। তাই সংক্রমণ ঠেকাতে মেয়ের বাড়ির পক্ষ থেকে বর পক্ষকে মাস্ক পরে আসা বাধ্যতামূলক জানিয়ে দেওয়া হল। পাশাপাশি, অন্যান্য যে অতিথিরা আসবেন তাঁরাও যাতে মাস্ক পরেন তারজন্য অনুষ্ঠান বাড়িতে ঢোকার মুখে ‘নো মাস্ক, নো এন্ট্রি’ নোটিশ ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। স্যানিটাইজার গেট বসানো হয়েছে। যতটা সম্ভব কম আমন্ত্রিতদের নিয়ে অনুষ্ঠান সারতে চাইছেন কনেপক্ষ।

বর্ধমানের বুড়ির বাগান এলাকার বাসিন্দা প্রীতি পণ্ডিত। পশ্চিম বর্ধমানের রানিগঞ্জের পাত্র বাবলু পণ্ডিতের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হতে চলেছেন তিনি। সেইমতো বর্ধমানের একটি অনুষ্ঠান বাড়িতে বিয়ের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠান বাড়িটির গেটের দু’পাশেই বড় বড় হরফে বাংলা ও ইংরেজিতে লেখা রয়েছে সতর্কবার্তা। মাস্ক পরে প্রবেশ করুন। অনুষ্ঠান বাড়ির ভিতরে গিয়ে দেখা গেল কিছুটা দূরত্ব অন্তর মাস্ক পরার কথা মনে করিয়ে দিতে পোস্টার দেওয়া রয়েছে। এছাড়া প্রবেশদ্বারে স্যানিটাইজার গেট রয়েছে। কোনও অতিথি এলেই নির্দিষ্ট সুইচ অন করে দিচ্ছেন এক ব্যক্তি। সম্পূর্ণ স্যানিটাইজ হওয়ার পরই অতিথিদের ভিতরে প্রবেশ করানো হচ্ছে। এমনকী, প্রীতিভোজের জায়গাতেও নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রেখে বসার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন : ভয়ংকর হচ্ছে করোনার দাপট, অতীত রেকর্ড ভেঙে একদিনে রাজ্যে মৃত ৭৩ জন]

কনেপক্ষের আত্মীয় মুন্না পণ্ডিত বলেন, “আমরা সবাইকে আগে থেকেই বলে দিয়েছি মাস্ক পরে আসার জন্য। এছাড়া নিজেদের কাছেও কিছু মাস্কের ব্যবস্থা রাখছি। যদি কেউ মাস্ক আনতে ভুলে যান তাঁকে দেওয়ার জন্য।” তিনি জানান, কোভিড এখনও চলে যায়নি। সংক্রমণ বাড়ছে। তাই অনুষ্ঠানেও অনেক কাটছাঁট করতে হয়েছে। শুধুমাত্র নিকট আত্মীয়দেরই নিমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। তাই আনন্দ উৎসব যাতে বিপদের কারণ না হয়ে দাঁড়ায় তার জন্য সমস্ত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে, ভিড় এড়াতে বউভাতের আয়োজন বাতিল করল মালবাজার মহকুমার নাগরাকাটা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি ফিরোজ নুর পাটোয়ারী। এদিন বউভাতের অনুষ্ঠানে ১২০০ মানুষকে নিমন্ত্রণ করেছিলেন। সেই মতো গত ছ’দিনে মণ্ডপ বানিয়ে ছিলেন। এমনকী, এদিন সকালে চেয়ার পাতাও হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু ভিড় এড়াতে এদিন সেই অনুষ্ঠান বাতিল করলেন পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি। করোনাবিধি মেনে গত বুধবার রাঙ্গালিবাজনা থেকে বিয়ে করেছিলেন সুলকাপাড়া গ্রামপঞ্চায়েত এলাকার খয়েরবাড়ির বাসিন্দা নাগরাকাটা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি ফিরোজনুর পাটয়ারির দেওর রাহুল ইসলাম। কিন্তু পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি এই অনুষ্ঠানটি বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নেন।

[আরও পড়ুন : কোন হাসপাতালে ক’টা বেড খালি? এবার কোভিড চিকিৎসার খুঁটিনাটি তথ্য মিলবে অ্যাপে]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement