BREAKING NEWS

১৩ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  বুধবার ৩০ নভেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

পুরভোটের ফলাফলের পরই বদলি তাহেরপুর থানার ওসি! কারণ ঘিরে গুঞ্জন রাজনৈতিক মহলে

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: March 3, 2022 11:25 am|    Updated: March 3, 2022 4:46 pm

OC of Taherpur PS, Nadia has been transferred just after the result Municipal Election | Sangbad Pratidin

বিপ্লবচন্দ্র দত্ত, কৃষ্ণনগর: পুরভোটের (WB Civic Polls Result 2022) ফলপ্রকাশের পরই তাৎপর্যপূর্ণ ঘটনা নদিয়ার পুলিশ প্রশাসনে। বুধবার রাতেই বদলি করা হল নদিয়ার তাহেরপুর থানার অফিসার-ইনচার্জকে (OC)। তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হল পুলিশ লাইনে। তাঁর বদলে তাহেরপুর থানার নতুন ওসি হলেন ধানতলা থানার ওসি অমিয়তোষ রায়। আর ধানতলা থানার সেকেন্ড অফিসার রজনী বিশ্বাসকে সেই থানারই ওসির দায়িত্ব দেওয়া হল।

কিন্তু রাতারাতি কেন ওসি বদল, তা নিয়ে বিস্তর প্রশ্ন উঠেছে জেলার রাজনৈতিক মহলে। পুলিশ প্রশাসনের অবশ্য দাবি, বদলি যে হবে তা আগে থেকেই স্থির করা ছিল। ভোটের জন্য তা আটকে গিয়েছিল। পুরভোট মিটে যাওয়ায় সেই সিদ্ধান্ত কার্যকর করা হল। প্রসঙ্গত, রাজ্যের ১০৮ পুরসভার মধ্যে একমাত্র লাল দুর্গ এই তাহেরপুর পুরসভা। এখানে সিপিএম (CPM) নিজেদের ক্ষমতা ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছে।

[আরও পড়ুন: খাস কলকাতায় বার সিঙ্গারের রহস্যমৃত্যু, খুনের অভিযোগে সরব বাবা-মা]

বুধবার পুরভোটের ফলাফল প্রকাশের পর দেখা যায়, নদিয়ার তাহেরপুর (Taherpur) পুরসভার ১৩ টি ওয়ার্ডের মধ্যে আটটিই গিয়েছে সিপিএমের দখলে। ৫ টি ওয়ার্ডে জয় পেয়েছে তৃণমূল। ফলে পুরবোর্ড গঠন করতে চলেছে সিপিএম। সবুজ ঝড়ের মাঝে একমাত্র এই পুরসভাই নিজেদের দখলে রাখতে পেরেছেন বামপন্থীরা। তবে এই ফলাফল জানার পর রাতারাতিই বদলি করা হল তাহেরপুর থানার ওসি অভিজিৎ বিশ্বাসকে। তাঁকে পুলিশ লাইনে নতুন পোস্টিং দেওয়া হয়েছে বলে খবর। যা কার্যত ক্লোজ করারই শামিল বলে মত বিশেষজ্ঞ মহলের।

কেন তড়িঘড়ি এই বদলি? এ নিয়ে রাজনৈতিক মহলে যথেষ্ট জল্পনা শুরু হয়েছে। যদিও প্রকাশ্যে কোনও রাজনৈতিক শিবিরের তরফে কোনও মন্তব্য করা হয়নি। রানাঘাট পুলিশ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রূপান্তর সেনগুপ্ত জানিয়েছেন, ”চার বছর হয়ে গেল অভিজিৎ বিশ্বাস তাহেরপুর থানার ওসি পদে রয়েছেন। তাঁর বদলির সিদ্ধান্ত হয়েছিল আগেই। তবে পুরভোটের জন্য তা আটকে ছিল। এবার ভোট মিটতে তাঁকে বদলি করে দেওয়া হল।”

[আরও পড়ুন: রাজ্যের বিরোধী পরিসরে ফের বিজেপিকে টেক্কা বামেদের, খুশি আলিমুদ্দিন]

এর সঙ্গে রাজনৈতিক যোগ নিয়ে গুঞ্জন উঠতেই তা উড়িয়ে দিয়েছেন তৃণমূলের মিডিয়া কো-অর্ডিনেটর কুণাল ঘোষ। তাঁর বক্তব্য, ”এনিয়ে কোনও সমালোচনার বিষয় নেই। রাজ্যের অনেক ওয়ার্ডেই বিরোধীরা জিতেছে। সেই সব ওয়ার্ডও তো কোনও না কোনও থানা এলাকার মধ্যে পড়ে। সেসব নিয়েও তো তাহলে প্রশ্ন ওঠা উচিত। এসব কিছু নয়। এটা স্রেফ রুটিন বদলি।”  

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে