BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে একদিনের বেতন দিলেন বারাসতের জেলা পুলিশের কর্মীরা

Published by: Paramita Paul |    Posted: May 4, 2020 10:11 pm|    Updated: May 4, 2020 10:15 pm

An Images

ব্রতদীপ ভট্টাচার্য, বারাসত: করোনা মোকাবিলায় সমাজের সর্বস্তরের মানুষ মুখ্যমন্ত্রীর পাশে দাঁড়িয়েছেন। পিছিয়ে নেই পুলিশ কর্মীরাও। বিভিন্ন কমিশনারেট, থানার পুলিশ কর্মীরা নিজেদের বেতনের একাংশ মুখ্যমন্ত্রী ত্রাণ তহবিলে দান করেছেন। সোমবার বারাসত জেলা পুলিশের আধিকারিক ও কর্মীরা একদিনের বেতন ত্রাণ তহবিলে দান করলেন। যার আর্থিকমূল্য প্রায় সাড়ে আট লক্ষ টাকা।

করোনায় ত্রস্ত গোটা বিশ্ব। সময় যতই এগোচ্ছে ততই দাপট বাড়াচ্ছে মারণ ভাইরাস। বিশ্বে ৩৫ লক্ষেরও বেশি মানুষ আক্রান্ত। মৃতের সংখ্যা ২ লক্ষ ৪৭ হাজার ছাড়িয়েছে। ভারতের সংখ্যাও বাড়াচ্ছে উদ্বেগ। আক্রান্ত ৪২,৮৩৬। মৃত্যু হয়েছে ১৩৮৯ জনের। এই পরিস্থিতিতে করোনা সংক্রমণকে জব্দ করতে ১৭ মে পর্যন্ত লকডাউনের সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে। তবে আজ থেকে লকডাউনের তৃতীয় দফায়  শর্তসাপেক্ষে  বেশ কিছু  ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হয়েছে। খুলছে মদের দোকান, সেলুন, স্পা-ও। বাংলার করোনা পরিস্থিতিও সন্তোষজনক নয়। ৬১ জনের মৃ্ত্যু হয়েছে এ রাজ্যে।  এখনও পর্যন্ত  আক্রান্ত হয়েছেন ১২৫৯। সুস্থ হয়েছেন ২১৮ জন।লকডাউন চলাকালীন রাজ্যবাসীর পাশে দাঁড়িয়েছে রাজ্য প্রশাসন। চিকিসা থেকে বিনামূল্য রেশন, কোথাও আবার রান্না করে খেতে দেওয়া হচ্ছে। গঠিত হয়েছে মুখ্যমন্ত্রী ত্রাণ তহবিল।

[আরও পড়ুন : ‘টিকিয়াপাড়ার অশান্তির পিছনে বিজেপি নেতার ভাই’, ভিডিও প্রকাশ করে দাবি হাওড়া সিটি পুলিশের]

 

মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে একদিনের বেতন দিলেন বারাসত জেলা পুলিশের আধিকারিক ও কর্মীরা। মোট সাড়ে ৮ লক্ষ ৪৬ হাজার টাকা তুলে দেওয়া হয়। পাশাপাশি, লকডাউনের শুরুর দিন থেকে এলাকার প্রৌঢ় ও বিশেষভাবে সক্ষম ব্যক্তিদের জন্য হেলপ লাইন নম্বর চালু করেছেন। এছাড়া কমিউনিটি কিচেন থেকে ফুটপাথবাসীদের কাছে খাবার পৌঁছে দিচ্ছেন জেলা পুলিশের কর্মীরা। তাঁদের এই উদ্যোগের প্রশংসা করেছেন এলাকাবাসী।

[আরও পড়ুন : ‘কাছে নয়, মনে থাকুন’, সামাজিক দূরত্বের বার্তা দিয়ে নয়া পোস্টার পুরুলিয়া জেলা প্রশাসনের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement