×

২ চৈত্র  ১৪২৫  সোমবার ১৮ মার্চ ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
নিউজলেটার

২ চৈত্র  ১৪২৫  সোমবার ১৮ মার্চ ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক : এক কিশোরীকে অপহরণ, তারপর ধর্ষণের অভিযোগ৷ বনগাঁ থানার পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হওয়া ওই ব্যক্তিকে বনগাঁ আদালতের তরফে তাঁকে ৫ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়৷

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, দিন কয়েক আগে বনগাঁ থানার ট্যাংরা কলোনি এলাকার প্রতিবেশী এক কিশোরীকে ভুল বুঝিয়ে গঙ্গাসাগর এলাকায় নিয়ে যায়৷ প্রথমে মেয়েকে খুঁজে না পেয়ে পুলিশে অভিযোগ করেন৷ বেশ কয়েকদিন কোনও খোঁজ খবর না পেলেও, পরে ওই কিশোরীর বাড়ির লোকেরা জানতে পারেন যে প্রতিবেশী ব্যক্তিই তাঁদের মেয়েকে নিয়ে গিয়েছে। 

[ওয়ার্ডে প্রার্থী হারলে পুরভোটে টিকিট পাবেন না কাউন্সিলররা, বার্তা ফিরহাদের]

এরপরই থানার দ্বারস্থ হয় কিশোরীর পরিবার। অভিযুক্ত ব্যক্তির নামে অপহরণের অভিযোগ দায়ের করে কিশোরীর পরিবার। অভিযোগ পেয়ে ঘটনার তদন্তে নামে বনগাঁ থানার পুলিশ।

[‘বাংলার মানুষ ব্যালটে জবাব দেবে’, বিজেপিকে চ্যালেঞ্জ মমতার]

বিভিন্ন সূত্র থেকে তদন্তকারীরা খবর পান যে গঙ্গাসাগর এলাকায় ওই কিশোরীকে নিয়ে গা-ঢাকা দিয়ে রয়েছে অভিযুক্ত। বুধবার সেখানে হানা দিয়ে ধৃতকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। উদ্ধার করা হয় ওই কিশোরীকেও। এরপর কিশোরীকে অপহরণ করে ধর্ষণের অভিযোগে বৃহস্পতিবার সকালে ধৃতকে নিজেদের হেফাজতে নেওয়ার আবেদন জানিয়ে বনগাঁ আদালতে তোলে পুলিশ। বিচারক সেই আবেদন মেনে ধৃতকে পাঁচদিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেন। ধৃতকে  জিজ্ঞাসাবাদ করে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করছে পুলিশ৷ কী উদ্দেশ্যে কিশোরীকে নিয়ে গঙ্গাসাগরে গিয়েছিল, তা বুঝতে চাইছেন তদন্তকারীরা৷ এর পিছনে আরও কোনও চক্র আছে কি না, কিশোরীকে কোথাও পাচারের লক্ষ্য ছিল কি না – এসবে নজর দেওয়া হচ্ছে৷ ধর্ষণ বা অন্য কোনও শারীরিক নির্যাতন হয়েছে কি না, উদ্ধার হওয়া কিশোরীর মেডিক্যাল পরীক্ষা করা হবে বলে পুলিশ সূত্রে খবর৷ আপাতত তাকে বাড়িতে ফেরানো হয়েছে৷ আর যাতে এধরনের ঘটনা না ঘটে, তার জন্য বাড়তি নিরাপত্তা দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে বনগাঁ থানার পুলিশ৷ 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং