২৬ বৈশাখ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

পাহাড়ে ঘুরবেন? এবার ঘরে বসেই বুকিং করুন এসি টয়ট্রেনের আসন

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: April 14, 2018 3:33 pm|    Updated: April 14, 2018 3:33 pm

Online ticket booking for Darjeeling toy train to start soon

সঞ্জীব মণ্ডল, শিলিগুড়ি: পর্যটকদের আকর্ষণ বাড়াতে আজ, শনিবার বাতানুকূল কামরা নিয়ে ছুটতে শুরু করল টয়ট্রেন৷ সমস্ত জল্পনার অবসান ঘটিয়ে তৈরি হল ভাড়ার তালিকাও৷ দু’একদিনের মধ্যেই অনলাইনেও পাহাড়ি এই ‘খেলনা’ ট্রেনের এসি বগি বুক করা যাবে৷ জানিয়েছেন, দার্জিলিং হিমালয়ান রেলের ম্যানেজিং ডিরেক্টর এমকে নার্জারি৷

[শিলিগুড়ি থেকে তিনধারিয়া পর্যন্ত গেল এসি টয়ট্রেন]

আপাতত দু’টি প্রথম শ্রেণির কামরার সঙ্গেই থাকছে ১৫ জন যাত্রীর বাতানুকূল কামরা৷ সব মিলিয়ে ৫১ জন যাত্রীর আসন যুক্ত টয়ট্রেনটি এনজেপি থেকে সকাল সাড়ে আটটায় রওনা দিয়ে দার্জিলিংয়ে পৌঁছবে বিকেল তিনটে ৩৫ মিনিটে৷ আবার দার্জিলিং থেকে সওয়া আটটায় রওনা দিয়ে এনজেপি’তে পৌঁছবে তিনটে দশ মিনিটে৷ পর্যটকদের সুবিধার জন্য দু’ফুট চওড়া এই ন্যারো গেজের ৮৭ কিলোমিটার পথে ট্রয়ট্রেন ছুটতে সময় নেবে মাত্র সাত ঘণ্টা৷ ইউনেস্কোর এই হেরিটেজ ট্রেনের এসি বগিতে প্রাপ্ত বয়স্কদের ভাড়া ১৫৫৫ টাকা৷ আর প্রথম শ্রেণির কামড়ার ভাড়া ১২৯৫ টাকা৷

[আরও আরামদায়ক টয়ট্রেন সফর, আসছে নয়া এসি রেক]

এনএফ রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক প্রণবজ্যোতি শর্মা শুক্রবার বলেন, ‘‘পর্যটকদের শৈলশহর দার্জিলিং ভ্রমণকে আরও উপভোগ্য এবং স্বাচ্ছন্দ্য দিতে টয়ট্রেনে বাতানুকূল কামরা সংযোজন করা হয়েছে৷ ভারতীয় রেলের ন্যারোজ গেজ লাইনে এই প্রথম বাতানুকূল কামরা বাণিজ্যিকভাবে চালু হল৷ এর আগে এমন কোনও নজির নেই৷’’ তিনি জানান, এবার থেকে ই-টিকিটের ব্যবস্থায় আইআরসিটিসি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে দেশের যেকোনও জায়গা থেকে টয়ট্রেনের বুকিং করা যাবে৷

[‘হেরিটেজ’ টয়ট্রেন নিয়ে উদ্বিগ্ন ইউনেস্কো]

সম্প্রতি বিশ্ব ঐতিহ্যের এই পাহাড়ি খেলনা ট্রেনকে আরও আকর্ষণীয় করতে বেশকিছু পদক্ষেপ নেয় ভারতীয় রেল৷ ৪৩ লক্ষ টাক খরচ করে তৈরি করা হয় এসি রেক৷ এই এসি বগিতে রয়েছে বিশেষ জানালা৷ বগির মধ্যেই গান এবং বেতার শোনার ব্যবস্থা থাকছে৷ আগের থেকে আরও ভালভাবে ট্রেনের জানালা দিয়েই পাহাড়ি প্রাকৃতিক দৃশ্য উপভোগ করতে পারবেন যাত্রীরা৷ এরফলে পাহাড়ি পথে আকাবাঁকা টয়ট্রেনের যাত্রা আরও আরামদায়ক হবে বলে মনে করছেন রেলকর্তারা৷ এনজেপি থেকে দার্জিলিংয়ের পুরো পথ ছাড়াও কাশিয়ং থেকে একটি প্যাসেঞ্জার ট্রেন এবং ঘুম থেকে দার্জিলিং পর্যন্ত টয়ট্রেনের ‘জয়রাইড রান’ চলছে৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে