৪ কার্তিক  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২২ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

নিজস্ব সংবাদদাতা, বনগাঁ: কাটমানি নেওয়া এবং সরকারি প্রকল্পের টাকা নয়ছয় করার অভিযোগে বনগাঁর গোপালনগর খানার অন্তর্গত গঙ্গানন্দপুর গ্রাম পঞ্চায়েতে তালা ঝোলাল বিজেপি৷ শুক্রবার সকালে পঞ্চায়েতের গেটে তালা ঝোলালেন গেরুয়া শিবিরের ন’জন সদস্য৷ ঘটনাস্থলে মোতায়েন রয়েছে প্রচুর পুলিশ বাহিনী৷ এলাকার পরিস্থিতি থমথমে৷

[ আরও পড়ুন: লন্ডনে পাড়ি পদ্মের, দুর্গা আরাধনায় ফুলের জোগান বাঁকুড়ার চাষিদের ]

বিজেপির অভিযোগ, ইন্দিরা আবাস যোজনায় ঘর ও শৌচালয় তৈরির যে টাকা আসে, তা নিয়ে দুর্নীতি করছেন তৃণমূলের পঞ্চায়েত প্রধান জাফর আলি মণ্ডল৷ একই লোককে একাধিক ঘর ও শৌচালয় বানিয়ে দিচ্ছেন তিনি৷ এমনও প্রমাণ রয়েছে যে, একজন ব্যক্তি দুই থেকে তিনটে ঘর পেয়েছেন৷ পঞ্চায়েত প্রধান এবং শাসক দলের নেতাদের পরিচিতরাই সেই প্রকল্পের পরিষেবা পাচ্ছেন৷ সাধারণ মানুষকে এই পরিষেবা থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে৷ এখানেই শেষ নয়, গেরুয়া শিবিরের আরও অভিযোগ, সরকারি প্রকল্পের পরিষেবা পেতে গেলে কাটমানি দিতে হচ্ছে পঞ্চায়েত প্রধান জাফর আলি মণ্ডলকে৷ কাটমনি পেলে, তবেই তিনি সাধারণ মানুষকে সরকারি প্রকল্পের পরিষেবা দিচ্ছেন৷

[ আরও পড়ুন: চুরির পর সিদ্ধি খেয়ে মন্দিরে ঘুম চোরের! কপালে জুটল বেদম মার ]

পঞ্চায়েতে বিরোধী দল নেতা পবিত্র কুমার সরকার জানান, বৃহস্পতিবার রাতে সরকারি প্রকল্পে দুর্নীতির বিষয়ে পঞ্চায়েত প্রধানের সঙ্গে কথা বলতে যান তাঁরা৷ তাঁদের পাঁচ মিনিট অপেক্ষা করতে বলে, বিকালে ঘর থেকে বেরিয়ে যান পঞ্চায়েত প্রধান জাফর আলি মণ্ডল৷ এরপর রাতে তিনি আর ফেরেননি৷ শেষে পুলিশ ডেকে পঞ্চায়েতে তালা লাগান বিজেপির ন’জন পঞ্চায়েত সদস্য৷ শুক্রবার সকালে আবার পঞ্চায়েত অফিস খুললে, কর্মীদের বের করে অনির্দিষ্ট কালের জন্য অফিসে তালা ঝুলিয়ে দেন
বিজেপির সদস্যরা৷ গেরুয়া শিবিরের দাবি, দুর্নীতির বিষয়ে তাঁদের সঙ্গে কথা বলতে হবে পঞ্চায়েত প্রধানকে৷ যতক্ষণ না তিনি কথা বলবেন, ততক্ষণ বন্ধ থাকবে পঞ্চায়েতের কাজকর্ম৷ স্থানীয় বিজেপি নেতা বিকাশ ঘোষ বলেন, ‘‘প্রধান জাফর আলি প্রচুর কাটমানি খেয়েছে৷ সরকারি প্রকল্পে ঘর তৈরির নামে কাটমানি খায় উনি৷’’ জানা গিয়েছে, তালা ঝোলানোর পাশাপাশি পঞ্চায়েতের সামনে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন বিজেপি নেতা, কর্মী, সমর্থকরা৷ এলাকায় মোতায়েন রয়েছে প্রচুর পুলিশ৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং